০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯, ৩ জিলহজ ১৪৪৩
`

এটাই শেষ মৌসুম : সানিয়া মির্জা

অবসর নিতে চলেছেন সানিয়া মির্জা। - ছবি : সংগৃহীত

এটাই শেষ মৌসুম। জানিয়ে দিলেন ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা। বুধবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে পরাজয়ের পর তিনি অবসরের এ ঘোষণা দেন।

গত বছরই টেনিস কোর্টে প্রত্যাবর্তন করেছিলেন সানিয়া মির্জা। মা হওয়ার পর প্রায় দুই বছর খেলাধুলা থেকে দূরে ছিলেন তিনি। কিন্তু প্রত্যাবর্তনটা মনের মতো হলো না তার। সেই কারণেই টেনিস থেকে অবসর নিতে চলেছেন সানিয়া মির্জা।

তিনি বলেছেন, ২০২২-এর মৌসুম তার জন্য শেষ। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের নারী ডাবলসের প্রথম রাউন্ডে হারের পর এই তথ্য দিলেন সানিয়া মির্জা। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের প্রথম রাউন্ডে সানিয়া ও তার ইউক্রেনের সঙ্গী নাদিয়া কিচনোককে হারের মুখে পড়তে হয়েছিল। তারা স্লোভেনিয়ার তামারা জিদানসেক এবং কাজা জুভানের কাছে ১ ঘণ্টা ৩৭ মিনিটে পরাজিত হন, খেলার ফল ছিল ৪-৬, ৬-৭(৫)। এবার অবশ্য সানিয়া আমেরিকার রাজীব রামের সাথে এই গ্র্যান্ডস্লামের মিক্সড ডাবলসে অংশ নেবেন।

এদিন ম্যাচে হেরে সানিয়া মির্জা বলেন, ‘আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি এটাই হবে আমার শেষ মৌসুম। আমি এক সপ্তাহ বা তারও বেশি সময় ধরে খেলছি। পুরো মৌসুম খেলতে পারব কিনা জানি না। তবে আমি পুরো মৌসুমেই থাকতে চাই।’

সানিয়া ভারতের সবচেয়ে সফল নারী টেনিস খেলোয়াড়। নারীদের ডাবলসে এক নম্বর র‌্যাঙ্কিংয়ে উঠেছেন তিনি। ক্যারিয়ারে ছয়টি গ্র্যান্ডস্লাম জিতেছেন। এর মধ্যে তিনটি শিরোপা জিতেছে নারীদের ডাবলসে এবং তিনটি মিক্সড ডাবলসে। মিক্সড ডাবলস ২০০৯ সালে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন, ২০১২ সালে ফ্রেঞ্চ ওপেন এবং ২০১৪ সালে ইউএস ওপেন জিতেছিলেন মির্জা। নারীদের ডাবলসে, ২০১৫ সালে উইম্বলডন এবং ইউএস ওপেন, ২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের খেতাব জিতেছিলেন তিনি।

২০১৩ সালে, সানিয়া সিঙ্গেলস খেলা ছেড়ে দেন। তারপর থেকে তিনি কেবল ডাবলসে খেলছিলেন। যদিও সিঙ্গেলস খেলেও সানিয়া অনেক সাফল্য পেয়েছিলেন। তিনি অনেক বড় টেনিস খেলোয়াড়কে হারিয়ে ২৭তম র‌্যাঙ্কে পৌঁছেছিলেন। সানিয়া মির্জা প্রায় ৯১ সপ্তাহ ধরে ডাবলসে এক নম্বরে ছিলেন। ২০১৫ সালে, সানিয়া মির্জা-মার্টিনা হিঙ্গিস জুটি বেঁধে টানা ৪৪টি ম্যাচ জিতেছিলেন। এশিয়ান গেমস, কমনওয়েলথ গেমসের মতো ইভেন্টেও তিনি পদক জিতেছেন।

২০১৮ সালে ছেলের জন্মের পর টেনিস কোর্ট থেকে দূরে ছিলেন পাকিস্তানের ক্রিকেটার শোয়েব মালিকের স্ত্রী সানিয়া মির্জা। এরপর দুই বছর পর ফিরে আসেন। ফিরে আসার জন্য, সানিয়া তার ওজন প্রায় ২৬ কেজি কমিয়েছিলেন। তার প্রত্যাবর্তনের পর, তিনি ইউক্রেনের নাদিয়া কিচেনোকের সাথে হোবার্ট ইন্টারন্যাশনালে নারীদের ডাবলসের শিরোপা জিতেছিলেন। এর পরে তিনি টোকিও অলিম্পিক্স ২০২০-তেও খেলেছিলেন। কিন্তু সেখানেও খুব একটা সাফল্য পাননি।

সূত্র : হিন্দুস্থান টাইমস


আরো সংবাদ


premium cement
কাশ্মীরে আটক লস্করের ২ সদস্য বিজেপির আইটি কর্মকর্তা : পুলিশ সুদানে নিরাপত্তা বাহিনীর নির্দেশ অমান্য করে শত শত বিক্ষোভকারী রাস্তায় বাংলাদেশের আম বিশ্ববাজারে নিয়ে যেতে চাই : কৃষিমন্ত্রী ত্রিভুজ প্রেমের হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা জোয়ারের পানিতে গোসল করতে নেমে স্কুলছাত্রের মৃত্যু ১ লাখ এতিম শিশুকে ঈদ পোশাক দিচ্ছে তুরস্ক এসএসসি পরীক্ষা আরো পেছাচ্ছে, হতে পারে আগস্টে স্ত্রীর আলট্রাসনোগ্রাফি রিপোর্ট আনতে গিয়ে নিহত স্বামী, দেখলেন না অনাগত সন্তানের মুখ ইঞ্জিন বিকল, ৫ জেলেকে উদ্ধার করল কোস্টগার্ড যেসব আয়াতে সাজানো পবিত্র কাবাগৃহ নোয়াখালীতে বিআরটিসি বাস চালুর দাবিতে বিক্ষোভ

সকল