Naya Diganta

ময়মনসিংহে মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভা

ময়মনসিংহে মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভা

দেশে মৎস্য গবেষণার ক্ষেত্র ও পরিধি বৃদ্ধি পাওয়ায় বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের প্রস্তাবিত চারটি কেন্দ্র ও ছয়টি উপকেন্দ্র স্থাপনসহ প্রয়োহনীয় জনবল বৃদ্ধির সুপারিশ করেছে দশম জাতীয় সংসদের মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। বুধবার দুপুরে ময়মনসিংহে বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বিএফআরআই) সদর দপ্তরের সম্মেলন কক্ষে কমিটির ২৯তম সভায় এসব সুপারিশ করা হয়।

মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মীর শওকত আলী বাদশা এমপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভায় মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ আলতাব আলী এমপি, বেগম শামছুন নাহার এমপি, ইফতিকার উদ্দিন তালুকদার পিন্টু এমপি, সচিব ওইছউল আলম মন্ডল, মৎস অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, বিএফডিসির চেয়ারম্যান ও প্রাণি সম্পদ অধিদপ্তরের চেয়ারম্যানসহ মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তা, মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সকল সংস্থার প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন। সভায় বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের সার্বিক কার্যক্রম তুলে ধরেন ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ।

সভায় সরকারের উন্নয়ন দর্শন ও এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের নিমিত্ত ২০১২-২০১৪ অর্থবছরকে ভিত্তিবছর ধরে ৭ম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় (২০১৬-২০২০) মৎস্য সেক্টরে অর্জিতব্য লক্ষ্য নির্ধারণ করা এবং নির্ধারিত লক্ষ্যসমুহ অর্জনে মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

এছাড়া দেশের মৎস্য সম্পদ উন্নয়নে জাতীয় চাহিদা নিরিখে গবেষণা পরিচালনা ও প্রযুক্তি উদ্ভাবন এবং গবেষণালব্ধ প্রযুক্তি প্রয়োগের মাধ্যমে দেশের মাছের উৎপাদন বৃদ্ধির পাশাপাশি আমিষের চাহিদা পূরণ, গ্রামীন জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থানের নতুন সুযোগ সৃষ্টিসহ রপ্তানি আয় বৃদ্ধি করা ও জীবপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে মাছের উন্নত জাত উদ্ভাবন, দেশীয় প্রজাতি সংরক্ষণ, মাছ ও চিংড়ির রোগ প্রতিকারের উন্নত কলাকৌশল উদ্ভাবনের বিষয়ে কমিটি সুপারিশ করে।

বৈঠক শেষে মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ ও মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মীর শওকত আলী বাদশা সাংবাদিকদের বলেন, বিএফআরআই এর বিজ্ঞানীদের গবেষণা ও এখানকার মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের তদারকিতে মৎস্য সেক্টরে অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধিত হয়েছে এবং দেশে মৎস্য বিপ্লবে অবদান রাখছে।

এর আগে সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যগণ বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের মুক্তচাষ প্রকল্পসহ গবেষণা ক্ষেত্রসমূহ পরিদর্শন করেন। এসময় বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক ড. খলিলুর রহমানসহ উর্ধ্বতন বিজ্ঞানীগণ উপস্থিত ছিলেন।