Naya Diganta

দুর্বৃত্তদের ভয়ে ঘরে ফিরতে পারছেন না জহিরুলের পরিবার

দুর্বৃত্তদের ভয়ে আজো ঘরে ফিরতে পারছেন না দক্ষিণ মুগদার জহিরুল আলম দেওয়ান ও তার পরিবার। স্ত্রী ও দু’টি শিশুসন্তান নিয়ে বিভিন্ন এলাকায় ঘুরতে হচ্ছে তাকে। বিচারের জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইজিপি, ডিএমপি কমিশনারসহ বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ দিয়েও কোনো লাভ হচ্ছে না তার। এমনকি প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চেয়ে সংবাদ সম্মেলনও করেছেন। তারপরও দুর্বৃত্তরা তার বসতবাড়ি দখল করে নিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। সন্ত্রাসীদের ভয়ে বাসায় নয়, এলাকাতে প্রবেশ করতে পারছেন না বলে অভিযোগ করেছেন জহিরুল আলম।
তিনি বলেন, দক্ষিণ মুগদা ১/২৪/ডি নম্বর জমিতে বাড়ি নির্মাণ করে তার তিন পুরুষ বসবাস করে আসছেন। পৈতৃক সূত্রে তিনিও পরিবার নিয়ে ওই বাড়িতে রয়েছেন। কিন্তু সম্প্রতি স্থানীয় মতিউর রহমান ওই বাড়ি দখলের পাঁয়তারা শুরু করে। গত ২২ অক্টেবার সকাল ৯টায় সন্ত্রাসীরা বাড়ির একটি সীমানা দেয়াল ভাঙতে শুরু করে। বাধা দিলে দুর্বৃত্তরা বাড়ির ভেতরে ঢুকে তাকে মারধর করে। এমনকি পরিবারের নারীদেরও গায়ে হাত তোলে। বিষয়টি পুলিশকে জানানো হলে রহস্যজনক কারণে পুলিশ দুর্বৃত্তদের পক্ষ নিয়ে উল্টো জহিরুলকে শাসায়। তারা চাঁদাবাজির মিথ্যা মামলা দিয়ে জহিরুলের দু’টি শিশুসন্তানসহ স্ত্রীকেও জেল খাটায়। জেল থেকে বের হয়ে এই করুণ পরিস্থিতির বিচারের জন্য বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ করেন। সংবাদ সম্মেলন করে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। কিন্তু তার পরও দুর্বৃত্তরা তার বাড়িটি দখল করে রেখেছে। গত কয়েক মাস স্ত্রী-সন্তান নিয়ে তিনি বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন।
জহিরুল বলেন, ৬ ও ৮ বছরের দু’টি সন্তান নিয়ে আর পালাতে পারছেন না। দুর্বৃত্তদের কবল থেকে পৈতৃক বসতভিটা রক্ষার জন্য প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা কামনা করেছেন তিনি। এ ব্যাপারে জানতে মতিউর রহমানের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।