Naya Diganta

‘পচেত্তিনোর সাথে সমঝোতায় ব্যর্থ হয়েছে ম্যানইউ’

প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি) থেকে মরিসিও পচেত্তিনোকে আনতে দুটি শর্ত দেয়া হয়েছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে।

স্থানীয় গণমাধ্যমের রিপোর্টে বলা হয়েছে দুটিতেই তারা ব্যর্থ হয়েছে।

টেলিফুট জানায়, নিউ ইয়ারে যোগ দেয়া পচেত্তিনোকে ক্লাব ছেড়ে যেতে দিতে রাজি ছিল পিএসজি। তবে দুটি শর্তে ফরাসি রাজধানী ছাড়ার অনুমতি পাবেন তিনি।

ওল্ড ট্রাফোর্ড যখন পিএসজি কোচকে পাবার জন্য যোগাযোগ শুরু করে, তখন ওল্ড ট্রাফোর্ডকে ওই রুপরেখা দেয়া হয়। প্রথম শর্ত ছিল মৌসুমের মধ্যভাগে পার্ক দেশ প্রিন্সেস থেকে পচেত্তিনোকে নিয়ে যেতে হলে ক্ষতি পুরণ হিসেবে পিএসজিকে দিতে হবে ১৫ থেকে ২০ মিলিয়ন ইউরো।

দ্বিতীয় শর্ত হচ্ছে পরিবর্তিত কোচ না পাওয়া পর্যন্ত পিএসজির হয়ে দায়িত্ব পালন করে যেতে হবে পচেত্তিনোকে।

এদিকে গুজব আছে ইউনাইটেড প্রস্তাবিত ফি দিতে রাজি হলে এবং পচেত্তিনো যদি প্রিমিয়ার লিগে ফিরে যায়, তাহলে জিনেদিন জিদানের হাতে তুলে দেয়া হবে পিএসজির দায়িত্ব। তবে শেষ পর্যন্ত কোনো সমঝোতা হয়নি।
ইতোমধ্যে অবশ্য অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে রাল্ফ রাংনিককে নিয়োগ দিয়ে পরিস্থিতি সামাল দিয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। লোকোমোটিভ মস্কো থেকে ছয় মাসের জন্য ইউনাইটেডে যোগ দিয়েছেন রাংনিক।

রাশিয়ান ক্লাবটিতে তিনি স্পোর্টস ও ডেভেলপমেন্ট কমিটির ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। মৌসুমের শেষে সার্বিক দিক বিবেচনা করে রাংনিকের স্থায়ী নিয়োগ নিয়ে নতুন করে চিন্তা করবে ইংলিশ জায়ান্টরা।

গত জুলাইয়ে লোকোমোটিভ মস্কোর ক্রীড়া পরিচালক হিসেবে তিন বছরের চুক্তি করেছিলেন রাংনিক। এই অবস্থায় ছয় মাস না যেতেই ইউনাইটেডের ডাক পাওয়ায় সে চুক্তি থেকে সরে এসেছেন। এ মৌসুমটা কোচ হিসেবেই থাকবেন। আর ২০২৪ সাল পর্যন্ত ইউনাইটেডের পরামর্শক হিসেবে এবং দলবদলে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়ার ভূমিকা নেবেন রাংনিক।

এদিকে জিদানের প্রতি পিএসজির নজর পড়লেও ওই বিষয়ে খুব একটা আগ্রহ নেই ফরাসি তারকার। গুজব আছে ক্লাবের দায়িত্বের পরিবর্তে ফরাসি জাতীয় দলের দায়িত্বের দিকেই তার আগ্রহ বেশী।

সমঝোতা না হলেও এখনো ইউনাইটেডের দৃষ্টিতেই রয়েছেন পচেত্তিনো। টটেনহ্যাম ও সাউদাম্পটনের সাবেক ওই কোচ অতীতে স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনের প্রতি নিজের আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন। অবশ্য অনেকেই মনে করছেন ইউনাইটেডের দীর্ঘমেয়াদি কোচের জন্য তিনিই সঠিক ব্যক্তি।

সূত্র : বাসস