০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ন ১৪২৯, ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

মালয়েশিয়ায় দেড় লাখ বাংলাদেশী বৈধ হয়েছে

মালয়েশিয়ায়-দেড়-লাখ-বাংলাদেশী-বৈধ-হয়েছে - ছবি : নয়া দিগন্ত

মালয়েশিয়া গত এক বছরে এক লাখ পঞ্চাশ হাজার বাংলাদেশী রিক্যালিব্রেশনের আওতায় বৈধ হয়েছে। গত এক বছরে তিন লাখ পাসপোর্ট প্রবাসী বাংলাদেশীদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।

মালয়েশিয়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ ছেলে বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭৩তম জন্মদিন পালনে এক বক্তব্যে এসব কথা বলেন কুয়ালালামপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত জনাব গোলাম সারোয়ার।

শেখ কামালের জন্মদিন উপলক্ষে ৫ আগস্ট শুক্রবার মালয়েশিয়া সময় বিকেল সাড়ে ৪ টায় বাংলাদেশ দূতাবাসে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

রাষ্ট্রদূত মো: গোলাম সারোয়ারের সভাপতিত্বে ও ফার্স্ট সেক্রেটারি রেহানা পারভীনের অনুষ্ঠান পরিচালনায় সভার শুরুতে বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যদের এবং শহীদদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত ও দোয়া পাঠ করা হয়। দোয়া পাঠ শেষে রাষ্ট্রপতির বাণী পাঠ করেন, কাউন্সিলর মো. রাজিবুল আহসান।

প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন, ফার্স্ট সেক্রেটারি লেবার এ এস এম জাহিদুর
রহমান।

বাণী পাঠ শেষে অনুষ্ঠানে শেখ কামালের জীবনের ওপর ভিত্তি করে নির্মিত ‘শেখ কামাল এক কিংবদন্তির কথা’ শীর্ষক প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। আলোচনা সভায় রাষ্ট্রদূত মো. গোলাম সারোয়ার বক্তব্যের সূচনায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল এবং বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সব শহীদ সদস্যের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘দেশের সমাজভাবনায় শেখ কামাল মাত্র ২৬ বছরের জীবনে বাঙালির সংস্কৃতি ও ক্রীড়াক্ষেত্রে এক বিরল প্রতিভাবান সংগঠক ও উদ্যোক্তা ছিলেন। ক্রীড়া ও সংস্কৃতিতে আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন নিয়ে তিনি কাজ করে গেছেন। তিনি দেশের তরুণ প্রজন্মের জন্য আজীবন অনুকরণীয়।’

দেশের ক্রীড়াঙ্গন, সাংস্কৃতিক অঙ্গন এবং মহান মুক্তিযুদ্ধে শেখ কামালের অবদানকে স্মরণ করেন রাষ্ট্রদূত। আলোচনা সভায় বিশ্বময় চলমান সঙ্কট উত্তরণে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশিত পথে এগিয়ে যাওয়ার আহবান জানিয়ে রাষ্ট্রদূত মো. গোলাম সারোয়ার বৈধ পথে বাংলাদেশে রেমিটেন্স পাঠানোর জন্য প্রবাসীদের প্রতি আহ্বান জানান।

প্রবাসীদের নিষ্ঠা ও সততার সাথে কাজ করে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশের সম্মান আরো সমুন্নত করার অনুরোধ জানিয়ে রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘প্রবাসীদের সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বর্তমান সরকার অত্যন্ত সচেতন।’

 

 

 

 


আরো সংবাদ


premium cement