২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ফালুর দুই ভাতিজাকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদ

-

অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে আট মিলিয়ন মার্কিন ডলার দুবাইয়ে পাচারের অভিযোগে বিএনপি নেতা মোসাদ্দেক আলী ফালুর দুই ভাতিজাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদকের সহকারী পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান গতকাল বৃহস্পতিবার তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।
যাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে তারা হলেন : মোসাদ্দেক আলী ফালুর ভাতিজা রোজা প্রোপার্টিজ লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নাঈম উদ্দিন আহম্মেদ ও অন্য ভাতিজা হলেন একই প্রতিষ্ঠানের পরিচালক আশফাক উদ্দিন।
দুদক সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে দুবাইয়ে অবস্থান করে পাওয়ার অব অ্যাটর্নির মাধ্যমে মোসাদ্দেক হোসেন ফালু তার সম্পত্তি দুই ভাতিজার নামে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া শুরু করেন।
প্রথমত যে প্রক্রিয়ায় তিনি সম্পত্তি হস্তান্তরের চেষ্টা করছেন, তা যথাযথ প্রক্রিয়া নয়। দ্বিতীয়ত, তার বিরুদ্ধে অন্য একটি অভিযোগ থাকা অবস্থায় তিনি এভাবে সম্পত্তি হস্তান্তর করতে পারেন না বলে দুদক সূত্রে জানা যায়।
গত ৫ সেপ্টেম্বর এই অভিযোগে মোসাদ্দেক আলী ফালুসহ ৯ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছিল দুদক। তবে সে দিন দুদকের তলবে পাঁচজন হাজির হলেও ফালুসহ চারজন আদালতে হাজির হননি।
দুদক সূত্রে জানা যায়, মোসাদ্দেক আলী ফালুসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে আট মিলিয়ন ডলার সমমূল্যের প্রায় ৬৫ কোটি টাকা (প্রতি ডলার ৮২ টাকা হিসাবে) দুবাইয়ে পাচার করে অফশোর কোম্পানি খুলে বিনিয়োগ, দুবাইয়ে আরো শত কোটি টাকা জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ রয়েছে। দুদকের অনুসন্ধানেও এর প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে।


আরো সংবাদ