২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

উত্তাল সাগরে মাছ ধরার ট্রলার ডুবি

শিববাড়িয়া নদীতে নিরাপদ আশ্রয় নিয়েছে আরো সহস্রাধিক ট্রলার
-

বৈরী আবহাওয়ায় বঙ্গোপসাগর উত্তাল হয়ে ওঠায় গভীর সমুদ্রে একটি মাছ ধরা ট্রলার ডুবে গেছে। বুধবার সকাল থেকে সমুদ্র উত্তাল হয়ে প্রচণ্ড ঢেউ বেড়ে যায়।

তীরে ফিরে আসার সময় আলীপুর মৎস্য আড়তদার সমিতির সভাপতি ও লতাচাপলী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো: আনছার উদ্দিন মোল্লার মালিকানাধীন একটি মাছ ধরা ট্রলার বুধবার গভীর রাতে ১৭ জন মাঝি-মাল্লাসহ সুন্দরবন সংলগ্ন সমুদ্রে ডুবে গেছে। অপর একটি ট্রলারের মাঝি-মাল্লাদের মৎস্য বন্দরে নিয়ে এলেও ট্রলারটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। জেলেরা গভীর সমুদ্রে টিকতে না পেয়ে উপকূলের বিভিন্ন স্থানে নিরাপদে আশ্রয় নিয়েছে।

মৎস্য বন্দর আলীপুর-মহিপুর শিববাড়িয়া নদীতে দেশের বিভিন্ন এলাকার সহস্রাধিক মাছ ধরা ট্রলার নিরাপদ আশ্রায় নিয়েছে। আবহাওয়া অধিদফতর ৩নং স্থানীয় সতর্ক সংকেত জারি করেছে।

জেলেদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, বুধবার সকাল থেকে বৃহস্পতিবার শেষ বিকেল পর্যন্ত মাছ ধরা ট্রলারগুলো উপকূলে এসে আশ্রয় নিয়েছে। তবে এখনো কিছুসংখ্যক মাছ ধরার ট্রলার তীরে এসে পৌঁছাতে পারেনি। দু’একদিনের মধ্যে সবগুলো ট্রলার ঘাটে এসে পৌঁছাবে এমনটাই জানিয়েছেন এখানকার ট্রলার মালিকরা।

সাগর থেকে ফিরে আসা জেলে সোহরাফ হোসেন বলেন, সাগর উত্তাল হওয়ার কারণে আমাদের ট্রলারের মাঝি-মাল্লা সবাই বমি করেছে। মনে করছিলাম কূলে ফিরতে পারবো না, ট্রলার সমুদ্রে পড়ে যাবে।

কুয়াকাটা আলীপুর মৎস্য আড়তদার সমবায় সমিতির সভাপতি ও লতাচাপলী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মো: আনছার উদ্দিন মোল্লা জানান, হঠাৎ সাগর উত্তাল হয়ে ওঠে। জেলেরা সমুদ্রে টিকতে না পেরে নিরাপদে আশ্রয়ে ফেরার পথে সুন্দরবন সংলগ্ন সমুদ্রে আমার ট্রলারটি ডুবে গেছে। অন্য একটি ট্রলার মাঝি-মাল্লাদের ঘাটে নিয়ে এসেছে।


আরো সংবাদ