Naya Diganta

যুবসমাজকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে কার্যকর পদক্ষপ নিতে হবে : স্পিকার

যুবসমাজকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে কার্যকর পদক্ষপ নিতে হবে : স্পিকার

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী যুবসমাজকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে কার্যকর পদক্ষপ নেয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। তিনি আজ তার কার্যালয়ে জাতিসংঘের জনসংখ্যা তহবিলের প্রতিনিধি ড. ইকো নারিতার সঙ্গে সাক্ষাকালে এ মতামত ব্যক্ত করেন। এসময় তারা কোভিড-১৯ পরিস্থিতি, জলবায়ু পরিবর্তন, জনস্বাস্থ্য ও লিঙ্গ বৈষম্য বিষয়ে আলোচনা করেন।

স্পিকার বলেন, জাতীয় সংসদের বিএপিপিডি প্রকল্পের আওতায় মূলত বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, মাতৃমৃত্যু ও শিশু মৃত্যুহার হ্রাস, যুব উন্নয়ন ও মাদক নিয়ন্ত্রণ নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলের যুবসমাজকে নিয়ে সর্বস্তরের জনগণকে অধিকতর সচেতন করতে বিএপিপিডি কাজ করতে পারে। খবর সংবাদ বিজ্ঞপ্তির।

তিনি বলেন, প্রকল্পের সাব-কমিটিসমূহ সংশ্লিষ্ট সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সাথে একযোগে কাজ করছে। স্থায়ী কমিটির সদস্যদের সমন্বয়ে সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন, এডভোকেসি ও সভা প্রকল্পের কার্যক্রম বাস্তবায়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

ড. ইকো নারিতা বলেন, ইউএনএফপিএ প্রকল্পের আওতায় জাতীয় সংসদকে সার্বিক সহায়তা প্রদান করবে। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় পলিসি প্রণয়ন করে যুবকদের অধিকতর সংযুক্ত করতে হবে। এক্ষেত্রে বৃক্ষরোপন অভিযান গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে বলে তিনি উল্লেখ করেন। এসময় বিশ্বব্যাপী কোভিডের নতুন ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে তার আশংকার কথা ব্যক্ত করেন।

এরপর স্পিকারের সাথে বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত নাথালি চুয়ার্ড এবং ইউএনডিপি’র আবাসিক প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জী সৌজন্য সাক্ষাত করেন। সাক্ষাতকালে তারা ১৬ দিন ব্যাপী নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ পক্ষ অনুষ্ঠান নিয়ে আলোচনা করেন। নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ পক্ষ নিয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানটি আগামী ১০ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদের উত্তর প্লাজায় অনুষ্ঠিত হবে।

এসময় সৈয়দা রুবিনা আক্তার এমপি, বেগম নাহিদ ইজাহার খান এমপি, বেগম আদিবা আনজুম মিতা এমপি এবং অপরাজিতা হক এমপিসহ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।