Naya Diganta

‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ ছবি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রদর্শনের নির্দেশ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংগ্রামী জীবনের একটি অংশকে কেন্দ্র করে নির্মিত সিনেমা ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ স্কুল কলেজে প্রদর্শনের জন্য সরকার নির্দেশ দিয়েছে। শেখ মুজিবুর রহমানের তারুণ্যে পা দেয়ার আগ পর্যন্ত জীবনের গল্প নিয়ে নির্মিত এ ছবিটি দেশের সব মাধ্যমিক স্কুল ও উচ্চমাধ্যমিক কলেজের শিক্ষার্থীদের দেখানো ব্যবস্থার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় এ নির্দেশনা জারি করে। গত মঙ্গলবার উপসচিব আনোয়ারুল হক স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে এ নির্দেশনার পর বুধবার মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক প্রফেসর ড. সৈয়দ মো: গোলাম ফারুক এ নির্দেশনা জারি করেন।
প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শৈশব, কৈশোর ও তারুণ্যের জীবন নিয়ে ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ সিনেমাটি নির্মাণ করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর হাতে স্থাপিত বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন সংস্থা (বিএফডিসি) থেকে এ যাবৎকালে এটিই প্রথম জাতির পিতার জীবনীভিত্তিক নির্মিত চলচ্চিত্র। শাপলা মিডিয়ার প্রযোজনায় নির্মিত ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ ইতোমধ্যে বিনামূল্যে সিনেবাজ ওটিটি প্লাটফর্মে স্ট্রিমিং করেছে। সরকারি প্রজ্ঞাপনে ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ সিনেমাটি সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অনলাইনে এবং প্রতিষ্ঠান খোলার পর সিনেমাটি প্রদর্শনের ব্যবস্থা করতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। প্রযোজক সেলিম খান বলেন, মাধ্যমিক পর্যায়ে ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ সিনেমাটি প্রদর্শনের নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এতে করে শিক্ষার্থীরা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে সঠিক ইতিহাস জানতে পারবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণে অনুপ্রাণিত হবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়সহ সরকারের সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান তিনি। শামীম আহমেদ রনীর চিত্রনাট্যে ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ সিনেমার নির্বাহী পরিচালক সেলিম খান। ২ ঘণ্টা ১২ সেকেন্ডের সিনেমাটিতে শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব চরিত্রে অভিনয় করেছেন প্রার্থনা ফারদিন দীঘি এবং বঙ্গবন্ধুর কৈশোরকালের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন শান্ত খান।
এ ছাড়া আরো অভিনয় করেছেন শিবা শানু, জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়, মাজনুন মিজান, দিলারা জামান, নাজনীন চুমকি প্রমুখ। এর আগে গত ২ এপ্রিল সারা দেশে ৫৪টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছিল সিনেমাটি।