Naya Diganta

স্বামী ঝগড়া না পাড়ায় তালাক চেয়ে আদালতে স্ত্রী!

স্বামী ঝগড়া না করায় তালাক চাইলেন স্ত্রী

তিনি একজন শান্তশিষ্ট, স্ত্রী-ভক্ত ভদ্রলোক। কিন্তু এমন স্বামী পছন্দ নয় স্ত্রীর। তিনি চান ঝগড়াটে স্বামী! তাই এমন ভালো মানুষ স্বামীর ঘর আর তিনি করতে চান না।

এমন অদ্ভুত ঘটনাটি ভারতের উত্তরপ্রদেশের। ১৮ মাস হলো সম্ভলের বাসিন্দা ওই নারীর বিয়ে হয়েছে। এর মধ্যেই স্বামীর অতিরিক্ত ভালোবাসায় ‘অতিষ্ঠ’ হয়ে শরিয়া আদালতে তালাকের আবেদন জানান স্ত্রী! স্বামীর ‘অপরাধ’- তিনি খুব শান্তশিষ্ট! বড্ড ভালো মানুষ! একদম ঝগড়া করতে পারেন না!

এমন আর্জি দেখে হতবাক আদালত। স্ত্রীর আবেদন অবশ্য খারিজ হয়ে গেছে। শরিয়া আদালতের মতে, অবুঝের মতো আচরণ করছেন ওই নারী।

এর পরেও ওই নারী যে ‘বুঝদার’ হয়ে উঠেছেন, এমন নয়। এই একই আবেদন নিয়ে এর পরে তিনি হাজির হন স্থানীয় পঞ্চায়েতের কাছে। এমন আশ্চর্য আর্জি শুনে পঞ্চায়েতও থ। এই বিষয়ের নিষ্পত্তি তাদের পক্ষেও করা সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দিয়েছে পঞ্চায়েতও।

সম্প্রতি আদালতে করা আর্জিতে ওই নারী জানিয়েছেন, স্বামীর এই অতিরিক্ত ভালোবাসা তার হজম হচ্ছে না। স্ত্রীর কথায়, ‘আমার স্বামী আমার উপরে কখনো চিৎকার করেন না। বিরক্ত হন না। কখনো কখনো তিনি আমার জন্য রান্না করেন। বাড়ির কাজেও আমাকে সাহায্য করেন। আমি কোনো ভুল করলেও আমার স্বামী আমাকে সব সময় ক্ষমা করে দেন। আমি তর্ক-ঝগড়া করতে চাই। কিন্তু তিনি কখনো আমার সঙ্গে ঝগড়া করেন না। আমি এমন দাম্পত্য চাই না। এমন পরিবেশে আমার দমবন্ধ হয়ে আসছে। তাই আমি স্বামীর থেকে আলাদা হতে চাই।’

আর কোনো কারণ আছে কি-না, এমন প্রশ্নের জবাবে ওই নারীর উত্তর ছিল ‘না’।

আর শান্তশিষ্ট, স্ত্রী-ভক্ত ওই ভদ্রলোক কী বলছেন? তিনি জানিয়েছেন, বৌকে তিনি সব সময় খুশি রাখতে চান। তাই এমন ব্যবহার করেন। সংসার বাঁচাতে স্ত্রীর আর্জি খারিজ করার জন্য শরিয়া আদালতের কাছে অনুরোধ করেছিলেন তিনি। আদালত ওই দম্পতিকে কথা বলে বিষয়টি মিটিয়ে নিতে বলেছে।

বিষয়টি মিটিয়ে নেয়ার সময় এ বার হয়তো স্ত্রীর সঙ্গে একটু-আধটু ঝগড়া করবেন স্বামী। এখন তিনি নিশ্চয় বুঝে গিয়েছেন, অতিরিক্ত ভালোবাসাও ভালো না।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা