২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

মিসরে ব্রাদারহুড প্রধানসহ ১১ নেতার যাবজ্জীবন

ব্রাদারহুড প্রধান মোহাম্মাদ বদিই(বামে) সহ কারাবন্দী দলটির তিন শীর্ষনেতা - ছবি : সংগৃহীত

মিসরের মুসলিম ব্রাদারহুডের শীর্ষ নেতা মোহাম্মদা বদিইসহ ১১ সিনিয়র নেতাকে আরেকটি মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে কায়রোর একটি  আদালত। কুদস প্রেসের খবরে বলা হয়েছে, ফিলিস্তিনের মুক্তি আন্দোলন হামাসের পক্ষে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ এনে তাদের ওই মামলায় সাজা দেয়া হয়েছে।

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্তদের মধ্যে আরো রয়েছেন, সাবেক স্পিকার সাদ আল কাতাতনি, ব্রাদারহুডের উপনেতা খাইরাত আল শাতের, ইসসাম আরইয়ান, মোহাম্মাদ আল বেলতাজো। এছাড়া প্রেসিডেন্ট মুরসির অফিসের দুই কর্মকর্তাকে ১০ বছর করে জেল ও আরো দুই জনকে ৭ বছর করে জেল দেয়া হয়েছে।

একই মামলায় আসামী ছিলেন কিছুদিন আগে মৃত্যুবরণ করা সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মাদ মুরসি।

২০১২ সালে মিসরে প্রথম গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট হন মোহাম্মাদ মুরসি; কিন্তু এক বছর পর এক সামরিক অভ্যুত্থানে তাকে ক্ষমতাচ্যুত করে গদিতে বসেন সেনাপ্রধান আবদুল ফাতাহ সিসি। এরপর প্রেসিডেন্ট মুরসিসহ ব্রাদারহুড নেতাকর্মীদের ওপর চলে তুমুল দমন নিপীড়ন। বিক্ষোভে গুলি চালিয়ে হত্যা করা হয় কয়েক শ’ কর্মীকে। এরপর শুরু হয় গ্রেফতার, গুম, নির্যাতন আর মামলায় সাজা দেয়া।
খোদ প্রেসিডেন্ট ও ক্ষমতাসীন দল ব্রাদারহুড প্রধানের বিরুদ্ধেও যেখানে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ আনা হয় সেখানে অন্যদের অবস্থা সহজেই অনুমেয়। এখন পর্যন্ত বেশ কয়েকটি মামলায় ব্রাদারহুডের শীর্ষ নেতাকর্মীদের মৃত্যুদণ্ডসহ বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেয়া হয়েছে।


আরো সংবাদ