১৫ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১, ৮ মহররম ১৪৪৬
`

বাইডেন-ট্রুডো সীমান্ত পারাপার বন্ধে চুক্তিতে পৌঁছেছেন

বাইডেন-ট্রুডো সীমান্ত পারাপার বন্ধে চুক্তিতে পৌঁছেছেন - ছবি : সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা তাদের অভিন্ন স্থল সীমান্ত দিয়ে আশ্রয়পার্থীদের অনানুষ্ঠানিক সীমান্ত অতিক্রম বন্ধ করার জন্য একটি চুক্তিতে পৌঁছেছেন। কানাডার একটি সরকারি সূত্র এবং যুক্তরাষ্ট্রের একজন কর্মকর্তা একথা জানায়। তবে দুই পক্ষ কখন মিলিত হয়েছে সে সম্পর্কে বিশদ বিবরণ এখনো জানা যায়নি।

সংশোধিত সেফ থার্ড কান্ট্রি এগ্রিমেন্ট-টি শুক্রবার অটোয়াতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সাথে একটি আনুষ্ঠানিক মুখোমুখি বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। এরপর পরবর্তী ঘোষণা দেয়া হবে।

ট্রুডো মূলত কুইবেকে আশ্রয়প্রার্থীদের প্রবাহ বন্ধ করার জন্য চাপের মধ্যে আছেন। ফরাসি-ভাষী প্রদেশ কুইবেকেই তার সংসদীয় আসন রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তা বলেছেন, চুক্তির অংশ হিসেবে কানাডা পশ্চিম থেকে মানবিক কারণে ১৫ হাজার অভিবাসী নেবে।

ইউক্রেনের প্রতি ঐক্য প্রকাশ করতে বাইডেন তার দীর্ঘ বিলম্বিত সফরে বৃহস্পতিবার কানাডায় পৌঁছেছেন। তিনি শুক্রবার ট্রুডোর সাথে পার্লামেন্টে বক্তব্য রেখেছেন। সন্ধ্যায় ট্রুডোর বাসভবনে এই দুই নেতা এবং তাদের স্ত্রীরা একান্তে সাক্ষাৎ করেন।

দুই দেশের মধ্যকার সীমান্ত পারাপারগুলো এসটিসিএ দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এটি যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডার কর্মকর্তাদেরকে প্রবেশের আনুষ্ঠানিক স্থলে উভয় দিকের আশ্রয়প্রার্থীদেরকে ফিরিয়ে আনতে অনুমতি দেয়। তবে কুইবেকের রক্সহাম রোডের মতো অনানুষ্ঠানিক পারাপারগুলোতে এটি প্রযোজ্য নয়।

যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডার মধ্যে রয়েছে উত্তর আমেরিকার দীর্ঘতম অভিন্ন স্থল সীমান্ত। নতুন চুক্তিটি তাদের সন্ধিকে প্রসারিত করবে যাতে এটি সম্পূর্ণ দৈর্ঘ্যের জন্য প্রযোজ্য হয়। বেসরকারি পারাপার ব্যবহার করে গ্রেফতার হওয়া আশ্রয়প্রার্থীদেরকে ফিরিয়ে দেয়া হবে।
সূত্র : ভয়েস অফ আমেরিকা


আরো সংবাদ



premium cement