০৪ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৯ অগ্রহায়ন ১৪৩০, ১৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৫ হিজরি
`

আপন বোনেরা হাতিয়ে নিলো ৬০০ কোটি টাকার সম্পত্তি!

-

বগুড়ায় পারিবারিক বিরোধের জেরে ৬০০ কোটি টাকার সম্পত্তি হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ করা হয়েছে সদর থানায়। সরিফ শিল্প গ্রুপের আগের মালিক মরহুম সরিফ উদ্দিনের স্ত্রী মরহুমা দেলওয়ারা বেগমের বড় মেয়ে আকিলা সরিফা সুলতানা গত শনিবার রাতে বগুড়া সদর থানায় অভিযোগটি দায়ের করেন। এতে তিনি তার তিন বোন ও বোন-জামাইদের বিরুদ্ধে সম্পত্তি, এফডিআর, শিল্পপণ্যের কাঁচামাল, ৪০০ ভরি স্বর্ণসহ প্রায় ৬০০ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ তোলেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ৩ মে রাতে দেলওয়ারা বেগমের মৃত্যু সংবাদ পেয়ে বাদি মরহুমার বড় মেয়ে আকিলা সরিফা, তার স্বামী আনোয়ার হোসেন রানা ও তাদের সন্তানরা লাশ দেখতে আসেন। কিন্তু তাদেরকে লাশ দেখানো কিংবা মৃত্যুর কোনো তথ্যও জানানো হয়নি। মৃত্যু নিয়ে সন্দেহ সৃষ্টি হওয়ার আগেই ঘটনার পরের দিন দেলওয়ারা বেগমকে দাফন করা হয়। দেলওয়ারা বেগমের মৃত্যু রহস্যজনক দাবি করে মৃত্যুর ছয়দিন পর গত ৯ মে বগুড়া চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি হত্যা মামলাও দায়ের করেন বাদি মরহুমার মেয়ে আকিলা সরিফা সুলতানা।
অভিযোগ সূত্রে আরো জানা যায়, গত ২৭ এপ্রিল মরহুমার ৪০০ ভরি স্বর্ণের গয়না, ভূসম্পত্তি, সরিফ বিড়ি তৈরির জন্য কেনা তামাকের মজুদ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি, নগদ অর্থ, এফডিআরসহ আনুমানিক ৬০০ কোটি টাকার সম্পত্তি হাতিয়ে নিয়েছেন তার আপন তিন বোন ও তাদের স্বামীরা। তারা মরহুমা দেলওয়ারা বেগমের টিপ সইয়ের মাধ্যমে ওই সম্পত্তি
লিখে নেন।
অভিযুক্ত বোনের স্বামীরা হলেন- আবুল হোসেন খোকন (স্ত্রী নাদিরা সরিফা বিলকিস), মোফাজ্জল হোসেন রঞ্জু (স্ত্রী তৌহিদা সরিফা শান্তনা) ও ফেরদৌস আলম ফটু (স্ত্রী মাহবুবা সরিফা আমেনা)।
অভিযোগ প্রসঙ্গে অভিযুক্ত মোফাজ্জল হোসেন রঞ্জু বলেন, এসব অভিযোগ মিথ্যা ও বানোয়াট। বরং সরিফ উদ্দিন মার্কেটসহ অধিকাংশ সম্পত্তি দখল করে রেখেছেন অভিযোগকারী নিজে। এ ব্যাপারে কোনো পুলিশ কর্মকর্তাও আমাদের সাথে যোগাযোগ করেননি।
বগুড়া সদর থানার ওসি নূরে আলম সিদ্দিকী জানান, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।


আরো সংবাদ



premium cement