২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট স্কোয়াডে নেই ম্যাক্সওয়েল : হতবাক পন্টিং-লেহম্যান

গ্লেন ম্যাক্সওয়েল - সংগৃহীত

পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট দল থেকে ব্যাটিং অল-রাউন্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের বাদ পড়ার বিষয়টি কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না অস্ট্রেলিয়ান সাবেক অধিনায়ক রিকি পন্টিং ও সাবেক কোচ ড্যারেন লেহম্যান।

আগামী মাসে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিতব্য দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজকে সামনে রেখে অস্ট্রেলিয়ান নির্বাচকরা গতকাল দল ঘোষণা করেছেন। যেখানে জায়গা পেয়েছেন পাঁচজন নতুন মুখ। অথচ অফ-স্পিনের বিপরীতে বর্তমান বিশ্বের অন্যতম দ্রুততম রান সংগ্রাহক ভিক্টোরিয়ার তারকা ম্যাক্সওয়েলকে বিবেচনা করা হয়নি। বর্তমান কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার যদিও মনে করেন ২৯ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যানের নিয়মিতভাবে বড় স্কোর করার দক্ষতা থাকবে হবে। কিন্তু ম্যাক্সওয়েলের বাদ পড়া নিয়ে পন্টিং সরাসরি প্রশ্ন তুলেছেন। বিশেষ করে অস্ট্রেলিয়া এ’ দলের চলমান ভারত সফরে কেন ম্যাক্সওয়েলকে নেয়া হলো না সেটা নিয়েও বির্তক রয়েছে।

পন্টিং বলেছেন, ‘আমি ম্যাক্সের জায়গায় হলে অবশ্যই আমার মধ্যে এই প্রশ্নটা আসতো। অস্ট্রেলিয়া এ’ দলের হয়ে অবশ্যই তার সুযোগ পাওয়া উচিত ছিল।’

অথচ একেবারে নতুন দুই মুখ মারনুস লাবুসচাগনে ও ট্রেভিস হেডকে ভারতে নেয়া হয়েছে, এমনকি ১৫ সদস্যের টেস্ট দলেও ডাকা হয়েছে। যদিও ভারত সফরে অস্ট্রেলিয়ার সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন হেড। কিন্তু লাবুসচাগনে নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। পুরো সফরে এ পর্যন্ত তার ব্যাটিং গড় মাত্র ২৪।

পন্টিং বলেন, আমি জানি না এর অর্থ কী, কিন্তু পুরো বিষয়টা আমাকে বেশ বিচলিত করেছে।

চলতি বছরের শুরুতে বিতর্কিত দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের পরেই লেহম্যানের স্থানে কোচ হিসেবে দায়িত্ব পান ল্যাঙ্গার। ম্যাক্সওয়েলের সাথে যা করা হয়েছে সেটা নিয়ে লেহম্যানও বেশ হতাশ। উপ-মহাদেশের কন্ডিশনে এর আগেও ম্যাক্সওয়েল নিজেকে প্রমাণ করেছেন। আর সে কারণেই ল্যাঙ্গার বলেছেন, ‘আমি অবশ্যই তাকে দলে নিতাম। সর্বশেষ অস্ট্রেলিয়ার ভারত সফরে ম্যাক্সওয়েল সেঞ্চুরি করেছিলেন। শেফিল্ড শিল্ডেও তার যথেষ্ঠ রান আছে। সে স্পিন বেশ ভাল খেলে। এসবই ম্যাক্সওয়েলকে দলে নিতে সহায়ক ছিল।’

লেহম্যান অবশ্য বলেছেন, বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারির ঘটনাকে পিছনে ফেলে নির্বাচকরা ভবিষ্যতের জন্য ইতোমধ্যেই কাজ শুরু করেছে। তারই ধারাবাহিকতায় তারা আসন্ন সিরিজের জন্য দল নির্বাচন করেছেন। এজন্যই কুইন্সল্যান্ড থেকে হেড ও তরুণ মারনুসকে বিবেচনা করা হয়েছে।

মিডল অর্ডারে পিটার হ্যান্ডসকম্ব ও জো বার্নসের সাথে ম্যাক্সওয়েলের বাদ পড়ার বিষয়টি নিয়ে জাতীয় নির্বাচক ট্রেভর হনস বলেছেন, এখনই কোনো কিছু শেষ হয়ে যায়নি। এই তিনজনই টেস্ট ক্রিকেটের জন্য আমাদের বিবেচনায় আছেন। কিন্তু আমরা চাই তারা নিজেদের যোগ্যতা অনুযায়ী পারফর্ম করুক। আসন্ন গ্রীষ্ম মৌসুমকে সামনে রেখে তাদের আগে নিজেদের প্রমাণ করতে হবে।


আরো সংবাদ

Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme