০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯, ৫ জিলহজ ১৪৪৩
`

কপিল শর্মার শো বন্ধ হলো যে কারণে

কপিল শর্মার শো বন্ধ হলো যে কারণে - ছবি : সংগৃহীত

কথায় বলে শরীর সঙ্গ না দিলে কিছুই যেন ভাল লাগে না। নিজের কাজেও একেবারেই মন বসানো দায়। কমেডিয়ান কপিল শর্মার বিষয়টিও একেবারেই আলাদা নয়। প্রতিশ্রুতির তুলনায় কপিল শর্মা শো দেরিতে সম্প্রচারের বিষয় নিয়ে অনুরাগী মহলের অনেকেই ক্ষুব্ধ ছিলেন। তবে এর আসল কারণ সম্পর্কে অবগত নন কেউই।

অবশেষে সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে কপিল নিজেই জানিয়েছেন এর কারণ প্রসঙ্গে। পিঠে চোট পেয়েছিলেন তিনি, দিনের পর দিন অবস্থার অবনতি বাধ্য করেছিল শো বন্ধ করতে। অসুস্থতার কারণে বিছানাতেই ঠাঁই হয় তার। কপিল জানান, ২০১৫ সালেই প্রথম ব্যথা অনুভব করেন তিনি। যথারীতি এইসব বিষয়ে সেরকম জ্ঞান ছিল না এবং কাজের সূত্রে যুক্তরাষ্ট্রের ছিলেন। তাৎক্ষণিক এপিডিউড়াল দেয়াতে ব্যথা থেকে স্বস্তি মেলে। তবে সমস্যার সমাধান হয় নি। সেই পুরনো ব্যথাই চাগাড় দিয়ে ওঠে এই বছর জানুয়ারিতে।

বিস্তারিত ভাবে নিজের মনের অভিব্যাক্তি জানিয়ে কপিল বলেন, অনেক কিছুর প্ল্যান ছিল এই বছরের শুরুতে তবে আঘাত লাগার জন্য সবকিছুই বানচাল করতে হয়। এতই মারাত্মক ব্যথার সম্মুখীন হন, তার ব্যবহারে পরিবর্তন আসতে থাকে। নিজেকে বড্ড অসহায় বোধ করতে থাকেন সেই সময়। শুধু তাই নয়, একেতে অসুস্থতা তার মধ্যেই মানুষের নানান ধরনের খোঁটা শুনেও দিন কেটেছে তার। বিছানা ছেড়ে ওঠার ক্ষমতা ছিল না কিন্তু শুয়ে থাকতে থাকতে ওজন বেড়ে যাবে এই ইঙ্গিতও মিলেছে প্রচুর। লিকুইড ডায়েট শুরু করেন। দুঃখের সাথেই জানান, ‘ভাবুন! একজন এমনিই শুয়ে আছে তারপর তাকে ডায়েটে স্যালাড খেতে দিচ্ছেন ব্যথা আরো দ্বিগুণ বেড়ে যাবে’।

যদিও অসুস্থতার মাঝেই ফ্যানদের উদ্দেশ্যে তিনি জানিয়েছিলেন, সুস্থ আছেন তিনি। জিম করতে গিয়েই হঠাৎ করে আঘাত পান, তবে চিন্তার কোনো কারণ নেই। সুস্থ হওয়ার পরেই, বেশি দেরি একেবারেই করেননি পর্দায় ফিরতে। কথা রেখেছেন কপিল। আগস্টেই ফিরেছেন নতুন সিজন নিয়ে এবং সেটি রমরমিয়ে দর্শকমহলে চলছে সেই নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

দেখুন:

আরো সংবাদ


premium cement