৩০ নভেম্বর ২০২৩, ১৫ অগ্রহায়ন ১৪৩০, ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৫ হিজরি
`

মশা নিধন একটি বড় চ্যালেঞ্জ

-

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের বাসাবাড়িসহ আশপাশ এলাকা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার আহ্বান জানিয়ে নবনির্বাচিত মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, মশা নিধন একটি বড় চ্যালেঞ্জ। ইতোমধ্যে আমি এ ব্যাপারে প্যানেল মেয়র ও কাউন্সিলরদের সাথে কথা বলেছি। মনিটরিং করছি। তাদের প্রধান দায়িত্ব এলাকা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার বিষয় মনিটরিং করা। মশা নিধন কর্মীদের মনিটরিং করে খোঁজখবর নিতে হবে। তারা তাদের নির্ধারিত এলাকায় দায়িত্ব পালন করছে কি না। আমাদের নির্দেশনা তারা মানছে কি না।
মেয়র বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেনÑ মশা ক্ষুদ্র, কিন্তু এর বিরক্ত অনেক বড়। তাই মশা নিয়ন্ত্রণ আমাদের কাছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। শহরকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার দায়িত্ব আমাদের সবার। সবাই মিলে কাজ করলে কোনো কিছুই অসম্ভব নয়। সবার প্রচেষ্টায় একটি সুস্থ, সচল ও আধুনিক ঢাকা শহর গড়ে তুলতে চাই।
আতিকুল ইসলাম আরো বলেন, সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলরদের নিয়ে বিভিন্ন ওয়ার্ডে গিয়ে মশা নিধনের কার্যক্রম মনিটর করা হচ্ছে। পাশাপাশি প্রতিটি এলাকার পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার বিষয়টিও মনিটর করা হবে। আমাদের দেশে আইন আছে, ফাইন নেই। কিন্তু উন্নত দেশে বাড়িঘর ও আশপাশ এলাকা নোংরা থাকলেই ফাইন করা হয়। তারা পরিবেশ সম্পর্কে সচেতন, তারপরও ফাইনের ভয়ে সবসময় বাড়িঘর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখেন। উত্তর সিটি করপোরেশনের যেখানে অপরিষ্কার-অপরিচ্ছন্নতা পাওয়া যাবে, সেখানেই ফাইন করা হবে। অনেকেই বাড়ির মধ্যে ময়লা-আবর্জনার স্তূপ করে রাখেন। গত বছরও আমরা ডেঙ্গু মৌসুমে ময়লা-আবর্জনা জমিয়ে রাখা বাড়িতে ফাইন করেছিলাম। এবারো এটি অব্যাহত থাকবে। এ জন্য তিনি তার সব কাউন্সিলরকে সকাল ও বিকাল দুই বেলাই মশা নিধন কার্যক্রম মনিটরিংয়ের নির্দেশ দেন।


আরো সংবাদ



premium cement