Naya Diganta

এখন পুরোদস্তুর সুগৃহিণী মৌসুমী নাগ

এখন পুরোদস্তুর সুগৃহিণী মৌসুমী নাগ

মৌসুমী নাগের বিশেষ একটি গুণ রয়েছে। আর সেটা তার কাছের ও প্রিয় মানুষগুলো জানে। যারা এই তারকা অভিনেত্রীর রান্না খেয়েছেন, তারা জানেন মৌসুমী কতটা ভালো রাঁধুনি। অবশ্য প্রিয়জনদের নিজের রান্না করা খাবার খাওয়ানো দারুণ উপভোগ করেন টিভি নাটকের জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী।

অভিনয়ের বাইরে এখন পুরোদস্তুর সুগৃহিণী মৌসুমী নাগ। টিভি নাটকের ব্যস্ততা আগের চেয়ে একটু কমিয়ে দিয়েছেন তিনি। স্বামী শোয়েব (টিভি অভিনেতা) ও সন্তান অরিত্রের কথা চিন্তা করে সংসারেই বেশি মনোযোগী মৌসুমী।

তিনি বললেন, ‘এখন কাজ একটু কমিয়ে দিয়েছি বা কম করা হচ্ছে এ কারণে যে, আমি সবার আগে প্রায়োরিটি দিই আমার স্বামী, সন্তান ও সংসারকে। আমি যদি ক্যারিয়ারের প্রথম দিকের মতো অভিনয়ে সময় দিই তাহলে আমার স্বামী ও সন্তান আমাকে মিস করবে। ওদের প্রতি যথাযথ দায়িত্ব পালন করা হবে না। আমি সেটা পারব না। আমার সংসার আমার কাছে অনেক ভালোলাগা ও ভালোবাসার জায়গা।’ টিভি নাটকে বৈচিত্র্যময় অনেক চরিত্রে কাজ করেছেন মৌসুমী নাগ।

তার অভিনয় দর্শক মহলে বারবার প্রশংসিত হয়েছে। নাটকের বাইরে একাধিক চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন এই গুণী অভিনেত্রী। মা হওয়ার কারণে মাঝে অনেকদিন কোনো কাজ করেননি। এখন আবার নিজের চেনা জায়গায় সরব হচ্ছেন। বিরতির পর কোনো পরিবর্তন দেখছেন? উত্তরে তিনি ‘পরিবর্তন তো হয়েছেই। নতুন করে আবার শুটিং করতে এসে দেখলাম কিছু কিছু নাটকের শুটিংয়ের আগে কোনো পরিকল্পনা ছিল না। অগোছালো কাজ করছেন কেউ কেউ।

স্পটের কাউকেই তেমন করে চিনি না। আবার নতুনদের অনেককেই দেখলাম বেশ গুছিয়ে কাজ করেন।’ তিনি এখন দুটি ধারাবাহিকে কাজ করছেন। তার অভিনীত আরটিভিতে প্রচার চলতি ধারাবাহিকটির শিরোনাম ‘লাকি থার্টিন’, নাগরিক টিভিতেও প্রচারিত হচ্ছে অনিমেষ আইচ পরিচালিত একটি ধারাবাহিক। এরমধ্যে ‘লাকি থার্টিন’ নাটকে মৌসুমী চ্যালেঞ্জিং একটি চরিত্রে কাজ করছেন। এক যুগেরও বেশি সময় ধরে টিভি নাটকে অভিনয় করছেন।

এই সময়ে এসে নিজের অভিনয় নিয়ে কী ভাবছেন? প্রশ্ন শুনে ভাবনার সময় না নিয়েই মৌসুমী বলেন, ‘আসলে আমি আমার ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই চেষ্টা করেছিলাম ভিন্ন চরিত্রে কাজ করতে। কিন্তু চাইলেই তো সবসময় ভিন্ন চরিত্রে কাজ করা যায় না। কারণ ভিন্ন কাজগুলো আমাদের অভিনয়শিল্পীদের সবার মধ্যেই ভাগ হয়ে যায়। তবে এই সময়ে এসে আগের মতো আর গাছের নিচে বসে প্রেমের সংলাপ আওড়ানোর মতো চরিত্রে কাজ করতে চাই না।

এখন ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রগুলোকেই বেছে নিচ্ছি। এরইমধ্যে বেশকিছু কাজ করেছি। যেগুলোতে নতুন করে দর্শকরা আমাকে আবিষ্কার করবেন। সত্যি বলতে কী, ক্যারিয়ারের এই সময়ে আমিও চাই না আমার অভিনীত চরিত্রগুলোর রিপিটেশন হোক। দর্শকরা আমার কাছ থেকে যেন নতুন কিছু পায়, সেই চেষ্টাই আমি করছি।’ টিভি নাটকের বাইরে একাধিক চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন মৌসুমী নাগ।

এই ধারার কাজ নিয়ে নিজের অভিমত প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘চলচ্চিত্র নিয়ে আমি কখনোই সেভাবে ভাবিনি। আমি একজন অভিনয়শিল্পী আমার কাছে বড়পর্দার কাজের প্রস্তাব আসার পর আমার মনে হয়েছে যে, এখানে আমার কিছু করার আছে। আমি সেই কাজগুলোই করেছি। তবে গতানুগতিক নাচে গানে ভরপুর ছবিতে কাজ করার ইচ্ছে আমার কোনো কালেই ছিল না। এখনো নেই। কিন্তু যেহেতু আমি একজন অভিনেত্রী, অভিনয়ের ভালো সুযোগ রয়েছে, এমন যেকোনো জায়গাতেই আমি কাজ করতে চাই, হোক সেটা বড়পর্দা কিংবা ছোটপর্দা।’

প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন মৌসুমী নাগ। এ কারণে ইউটিউবের ভিউটাকে তিনি ইতিবাচকভাবেই দেখছেন? মৌসুমীর কথায়, ‘বরাবরই আমি নতুনত্বের পক্ষে। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়েই আমাদের চলতে হবে। আমি আধুনিক যুগের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ইতিবাচক যেসব বিষয় রয়েছে, সেটাকে স্বাগত জানাই। ইউটিউবও একটা মাধ্যম। এখন তো এই মাধ্যমে প্রচার করার জন্যই নাটক, ওয়েব সিরিজ নির্মিত হচ্ছে। গানের ক্ষেত্রে অ্যালবাম তো এখন কেউ কিনছে না বা অ্যালবাম করাও হয় না। ইউটিউবেই এই সময়ে গান বা মিউজিক ভিডিও রিলিজ করা হচ্ছে।’