১৪ নভেম্বর ২০১৯

অন্ধ জাপানী নাবিক পাড়ি দিলেন প্রশান্ত মহাসাগর

নৌপথের দিক নির্দেশক মার্কিন নাগরিক ডগ স্মিথের সাথে অন্ধ জাপানী নাবিক মিৎসুহিরো ইওয়ামোটো - সংগৃহীত

এক অন্ধ জাপানী নাবিক প্রশান্ত মহাসাগর যাত্রা সম্পন্ন করেছেন কোনো ধরনের বিরতি নেয়া ছাড়াই। এই প্রথম কোনো দৃষ্টিহীন ব্যক্তি এমন অভিযানে অংশ নিয়েছেন এবং সফলও হয়েছেন। ৫২ বছর বয়সী এই জাপানী নাবিকের নাম মিৎসুহিরো ইওয়ামোটো। একটি সাইটেড ন্যাভিগেটর বা দেখতে পান এমন একজন দিক নির্দেশনাকারী সহযোগীর সাহায্যে তিনি ১৪ হাজার কিলোমিটার সমুদ্রপথ পাড়ি দেন।

আর এ জন্য তার সময় লাগে পুরো দুই মাস। এই দুই মাসের পুরোটা সময় সমুদ্রেই ছিলেন ইওয়ামোটো। কোথাও এক রাতের জন্যও বিরতি নেননি তিনি। এই দীর্ঘ যাত্রার পর শনিবার সকালে তার ৪০ফুট দৈর্ঘ্যের ইয়ট বা পালতোলা নৌকাটি ফুকুশিমার বন্দরে নোঙর করে।

মি. ইওয়ামোটো গত ২৪ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া থেকে যাত্রা শুরু করেন। সে সময় দিক নির্দেশক ডগ স্মিথ তার সাথে ছিলেন। দিক নির্দেশক ডগ স্মিথ একজন মার্কিন নাগরিক।

তবে এবারই প্রথম নয়, এর আগেও এমন দুঃসাহসী অভিযাত্রায় আরো একবার বেরিয়ে পড়েছিলেন ইওয়ামোটো। তাও সেটা প্রায় ছয় বছর আগে ২০১৩ সালের জানুয়ারি মাসে। কিন্তু সেইবার কোন সফলতার মুখ দেখেননি তিনি। কেননা তার নৌকাটি মাঝ পথে হাঙ্গরের হামলার মুখে পড়ে, আর তাতে তার নৌকাটির ডুবে যেতে শুরু করে। পরে তাকে জাপানের সেনা সদস্যরা উদ্ধার করেন।

প্রশান্ত মহাসাগর পাড়ি দিয়ে ইয়াকি বন্দরে শনিবার নিজের নৌকাটি নোঙর করে তিনি স্থানীয় গণমাধ্যম কোদোয়ো নিউজকে দেয়া সাক্ষাতকারে বলেন,‘তার এতদিনের চ্যালেঞ্জটি দ্বিতীয়বারের চেষ্টায় সফল হওয়াটা যেন স্বপ্ন সত্যি হওয়ার মতোই ব্যাপার। এখন আমি এই পৃথিবীর সবচেয়ে সুখী মানুষ।’ গণমাধ্যমের সামনে এভাবেই নিজের অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন তিনি।

জাপানী নাবিক ইওয়ামোটো মাত্র ১৬ বছর বয়সে তার দৃষ্টিশক্তি হারান। এমন পরিস্থিতিতেও তিনি তার সহযাত্রী মার্কিন নাগরিক ডগ স্মিথের মৌখিক পথ নির্দেশনা, সেই সঙ্গে বাতাসের গতিপথ অনুযায়ী প্রয়োজনীয় উপদেশ এবং সম্ভাব্য দুর্ঘটনা এড়াতে প্রয়োজনীয় পরামর্শ মেনে নৌকাটি এক নাগাড়ে চালিয়ে যান।

তিনি পৃথিবীর প্রথম কোনো অন্ধ ব্যক্তি যিনি কোনো বিরতি ছাড়া পুরো প্রশান্ত মহাসাগর সফলতার সাথে অতিক্রম করতে পেরেছেন। এমনটি জানিয়েছে জাপান ব্লাইন্ড সেইলিং অ্যাসোসিয়েশন।

তবে এখানেই শেষ নয়। মাত্রই প্রশান্ত মহাসাগর জয় করা মি. ইওয়ামোটো দ্বিতীয়বারের মতো পুনরায় এই প্রশান্ত মহাসাগর অতিক্রমের সংকল্প করেছেন। জাপানি এই নাগরিক বর্তমানে ক্যালিফোর্নিয়ার উপকূলীয় শহর সান ডিয়েগোতে বসবাস করেন। এর আগে তিনি ট্রায়াথলন খেলাতেও অংশ নিয়েছিলেন।

এই খেলাতে অ্যাথলেটকে একনাগাড়ে তিন ধরণের রেইস করে লক্ষ্যে পৌঁছাতে হয়। এখানে মূলত তিন ধরণের অনুশীলনের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। সেগুলো হল দৌড়, সাতার এবং সাইক্লিং। এমন কঠিন একটি খেলায় অংশ নেয়ার পর এবার তিনি জয় করলেন সমুদ্র।

এ ব্যাপারে ইওয়ামোটো তার ওয়েবসাইটে লিখেছেন,‘আমরা এই যাত্রাটি কেবল ব্যক্তিগত অর্জনের জন্যই করিনি, বরং এর মাধ্যমে আমি একটি বার্তা দিয়েছি যে মানুষ যখন একত্রিত হয় তখন সব কিছুই সম্ভব হতে পারে।’

তিনি এবং মিস্টার স্মিথ মূলত একটি দাতব্য সংস্থার অর্থ উপার্জনের জন্য এবং অন্ধত্ব সৃষ্টিকারী রোগ প্রতিরোধের প্রচেষ্টায় এই সমুদ্র যাত্রা করেন। সূত্র : বিবিসি বাংলা।


আরো সংবাদ

৮০০০ আসামির তালিকা তুলে দেয়া হলো জনপ্রতিনিধিদের হাতে প্রধান বিচারপতিকে মোদির কৃতজ্ঞতাই জানান দেয় রায় পূর্বপরিকল্পিত : সুশীল ফোরাম সিদ্ধিরগঞ্জে মেঘনা তেলের ডিপোতে শ্রমিকদের কর্মবিরতি রাঙ্গা ক্ষমা চাইলেন এবার সংসদে ভূ-কৌশলগত বিরোধ নয় সুষ্ঠু প্রতিযোগিতা চায় বাংলাদেশ : পররাষ্ট্রমন্ত্রী জলবায়ূ পরিবর্তনের ইস্যু নিয়ে বাংলাদেশ নেপাল একযোগে কাজ করবে বাকৃবিতে ৯ দফা দাবিতে ক্লাস পরীক্ষা বর্জন অব্যাহত রাতে ভোট ডাকাতি বাংলাদেশেই প্রথম : আ স ম রব রাতে ভোট ডাকাতি বাংলাদেশেই প্রথম : রব ইকবালের দর্শন অনুসরণে বিশ্বে মুসলিমদের বিজয় পতাকা উড়বে চালকরা ঘুমিয়ে থাকায় পরপর ৩টি সিগন্যাল ভাঙে তূর্ণা নিশীথা

সকল

ডা. শফিকুর রহমান জামায়াতে ইসলামীর আমীর নির্বাচিত (২৬৯৯৯)বাবরি রায় নিয়ে যা বললেন দিল্লির শাহী ইমাম (২৫২৯২)বিয়ের ২৮ দিন পর স্বামী হারানো সেই আফরোজার কোলে নতুন অতিথি (১২০৩৫)মন্দিরের আগে রামের বিশাল মূর্তি অযোধ্যায় (১১৯১২)হাসপাতালের মর্গে ছোঁয়ামনির নিথর দেহ, ইয়াছিনের খোঁজে স্বজনদের আহাজারি (১০৮৯১)ট্রেন দুর্ঘটনা : বি.বাড়িয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি ৪৪, রক্তের প্রয়োজন (৯৭৮৮)ব্রিটেনের নির্বাচনে পাকিস্তান-ভারত লড়াই! (৮৪৯৮)বাবরি মসজিদের স্থানে রাম মন্দির নির্মাণ নিয়ে হিন্দু সংগঠনগুলোতে প্রকাশ্য মতপার্থক্য ও বাকযুদ্ধ (৮১১৪)গোসলের পর কাফন পরানো হলেও জানাজা হল না কিবরিয়ার (৭৮২৫)মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা করায় গাম্বিয়াকে ঢাকার অভিনন্দন (৭৭৫৬)