১০ জুলাই ২০২০

ইসলামবিদ্বেষী পোস্ট : সৌদি আরবে ভারতীয় অধ্যাপক বরখাস্ত

এবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে ইসলাম বিরোধী পোস্ট করে বরখাস্ত হলো সৌদি আরবের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত এক ভারতীয় অধ্যাপক। নিরাজ বেদি নামের ওই অধ্যাপককে  বরখাস্ত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। খবর সিয়াসাত ডটকমের। খবরে বলা হয়েছে, এই প্রথম সৌদি আরব থেকে কোন উচ্চ পদস্থ প্রবাসী ভারতীয়কে বরখাস্ত করা হলো।

সাম্প্রতিক অতীতে উপসাগরীয় কয়েকটি দেশ, কানাডা ও নিউজিল্যান্ডে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘৃণা ছড়ানোর দায়ে বেশ কয়েকজন ভারতীয় নাগরিকের চাকরি হারানোর ঘটনা ঘটেছে। যার সর্বশেষ সংযোজন নিরাজ বেদী।

বরখাস্ত হওয়া নিরাজ বেদী সৌদি আরবের জাজান বিশ্ববিদ্যালয়ের কমিউনিটি মেডিসিনের অধ্যাপক ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয় কৃর্তপক্ষ টুইটারে জানিয়েছে, মুসলিমদের মর্যাদাহানীর অভিযোগে এক শিক্ষককে বরখাস্ত করা হয়েছে। তবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ টুইটারে তার নাম উল্লেখ করেনি।

এই তথ্য নিশ্চিত করেছে জাজান বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার তাদের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে টুইট করে জানানো হয়, আপত্তিকর পোস্ট ও ইসলামফোবিক টুইট আমাদেরও নজরে এসেছে। জাজান বিশ্ববিদ্যায় কোন বিকৃত বা উগ্রবাদী ধারণা- যা পরিবেশ বিনষ্ট করে এমন কোন কিছু সহ্য করবে না।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের টুইটের পরই বিভিন্ন টুইটার ব্যবহারকারী স্ক্রিনশট পোস্ট করেন যাতে দেখা যায় সেই প্রফেসরের নাম নিরাজ বেদী এবং তিনি একজন ভারতীয়। নিরাজ বেদী জাজান বিশ্ববিদ্যালয়ের পাবলিক হেলথ এন্ড ট্রপিক্যাল মেডিসিনের অধ্যাপক হিসেবে চাকরি করছিলেন।

এই ঘটনার পর থেকে ওই অধ্যাপকের টুইটার অ্যাকাউন্টটি বন্ধ রয়েছে। তবে তিনি প্রায়ই ইসলাম বিদ্বেষী পোস্ট ও করোনাভাইরাস ছড়ানোর জন্য মুসলিমদের দায়ী করে পোস্ট দিতেন।


আরো সংবাদ