০৩ এপ্রিল ২০২০

ভেবেছিলাম কোহলিই সেরা, কিন্তু স্মিথ...

দীর্ঘ ১৬ মাস পর সাদা পোশাকের দলে ফিরলেন স্টিভেন স্মিথ। ১২ মাসের নির্বাসন কাটিয়ে অ্যাশেজই ছিল তার প্রথম টেস্ট সিরিজ। আর মাঠে ফিরেই এখন ক্রিকেট বিশ্বে আলোচনার কেন্দ্রে একুট নাম স্মিথ। এতটা কঠিন সময় পার করে দলে ফিরে যে চমক দিয়েছেন তা দেখে রীতিমতো অবাক ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। সেই ধারাবাহিকতায় ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং স্মিথকে নিয়ে চলছে  তুলনা।

কে এগিয়ে, কে পিছিয়ে? কিন্তু সাময়িকভাবে বিরাটকে ছাপিয়ে গেছেন স্মিথ তার ধারাবাহিকতা দিয়ে। তাচতুর্থ টেস্টে প্রথম ইনিংসে ডবল সেঞ্চুরির পর দ্বিতীয় ইনিংসে ৯২ বলে ৮২ রান করেছেন তিনি। যার ফলে এক ম্যাচে বাকি থাকতে অস্ট্রেলিয়া ২-১-এ সিরিজে এগিয়ে গিয়েছে। দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ইতিমধ্যেই পাঁচ ইনিংসে ঝুলিতে পুড়ে নিয়েছেন ৬৭১ রান এই চলতি অ্যাশেজে। অস্ট্রেলিয়ার কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার যার পর তাকে বিরাটের থেকে এগিয়ে রাখতে দ্বিতীয়বার ভাবছেন না। সদ্য টেস্ট ক্রিকেট র‍্যাঙ্কিংয়ে এই স্টিভ স্মিথের কাছে শীর্ষ স্থান হারিয়েছেন ভারতীয় অধিনায়ক।

ল্যাঙ্গার বলেন, ‘‘আমি ভাবতাম আমার দেখা সেরা ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি, কারণ ও যেভাবে খেলে। কিন্তু স্টিভ স্মিথের উচ্চতা আলাদা পর্যায়ের।''

তিনি এর সঙ্গে জুড়ে দেন, ‘‘ও সমস্যার সমাধান করতে পারে। ওর খেলার জন্য খিদে এরকম আর কারও মধ্যে দেখি‌নি।'' ল্যাঙ্গার  প্যাট কামিন্সেরও প্রশংসা করতে ভোলেননি।  আইসিসি টেস্ট বোলিং র‍্যাঙ্কিংয়ে এখন তিনিই শীর্ষে রয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘‘আমরা বিশ্বের সেরা ফাস্ট বোলারকে (প্যাট কামিন্স) আমাদের দলে পেয়েছি। এবং বিশ্বের সেরা টেস্ট ব্যাটসম্যানও আমাদের দলেই রয়েছে।''


আরো সংবাদ

সব দরজা খুলে দিলো বাংলাদেশ ব্যাংক (১৯২১৭)এশিয়ায় করোনা কত দিন থাকবে? জানালো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (১৮৯৮১)যেভাবে রেবিয়ে আসছে আরো ভয়ঙ্কর অনেক প্রাণঘাতী ভাইরাস (১৫৫০০)‘একটা পয়সাও হাতে নেই, চারদিন ধরে শুধু পানি খেয়ে বেঁচে আছি’ (১৩২৩৫)আবেগে কেঁদে ফেললেন আবুধাবির ক্রাউন প্রিন্স (১১৭৫৯)করোনাভাইরাস : ভারতে মাওলানা সাদ ও তাবলিগ জামাত কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা (৯৭৬৯)মার্কিন বিমানবাহী জাহাজের ৫০০০ নৌ সেনা মারা পড়বে! (৮৯৪০)করোনার বিপক্ষে জিতবে বাংলাদেশ (৮৫৬৯)মুসলিমদেরকে দোষারোপের জন্য দিল্লির মসজিদকে ব্যবহার করা হচ্ছে : ক্রুদ্ধ ওমর আবদুল্লাহ (৬৯১৬)এশিয়ায় করোনা কত দিন থাকবে? জানালো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (৬৭৭৪)