১৩ নভেম্বর ২০১৮

পীরগঞ্জে ক্লাস রুমে তালা দিয়ে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

-

রংপুরের পীরগঞ্জের ঐতিহ্যবাহি রায়পুর বহুমুখি উচ্চ বিদ্যালয়ে নির্বাচন ছাড়াই গোপনে ভুয়া কাগজপত্র তৈরি করে স্থাণীয় এক প্রভাবশালী আওয়ামীলীগ নেতার সভাপতি হওয়ার অভিযোগে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও এলাকাবাসি। এ ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার ওই স্কুলের প্রতিটি কক্ষে তালা লাগিয়ে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে শিক্ষার্থীরা। এসময় তারা ভোট না করেও ভূয়াভাবে হওয়া সভাপতিকে বাতিল করে পুনরায় ভোটের মাধ্যমে সভাপতি নির্বাচন না করা পর্যন্ত ক্লাস বর্জনের হুমকি দিয়েছে। এ ঘটনায় স্কুলটির শিক্ষা কার্যক্রম মারাত্বকভাবে ভেঙ্গে পড়েছে।
এলাকাবাসি, স্কুল ও অভিভাবকদের সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সকাল ১০ টায় স্কুলের ৩ শতাধিক শিক্ষার্থী ক্লাস বর্জন করে স্কুল মাঠ ও পাশের বাজারে বিক্ষোভ করে। এসময় তারা অবৈধ কমিটি, অবৈধ সভাপতি মানি না বলে শ্লোগান দেয়। বেলা ১১ টায় শিক্ষার্থীরা স্কুলের প্রতিটি কক্ষে তালা দিয়ে ক্লাস বর্জন করে মাঠে নেমে মানববন্ধন করে শিক্ষার্থীরা। এসময় তারা প্রধান শিক্ষক ও শিক্ষকরুমেও তালা লাগিয়ে দেয়। এতে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন প্রধান শিক্ষকসহ অন্যান্য শিক্ষকরা। অন্যদিকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের সময় স্থাণীয় বাজারে তাদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে মিছিল করে অভিভাবকরা। এক পর্যায়ে তারাও স্কুলে গিয়ে শিক্ষার্থীদের কর্মসূচিতে অংশ নেয়।
স্কুলে মানবন্ধন চলাকালে দশম শ্রেনীর ছাত্রী মোহিনা আখতার মিতু বলেন, আমরা এখানে নৈতিকতা শিখতে এসেছি। আমাদের স্কুলে ভোট ছাড়াই ভুয়া কাগজ বানিয়ে সভাপতি হয়েছেন একজন। এটা অবৈধ। আমরা বৈধভাবে ভোটের মাধ্যমে একজন ভালো সভাপতি চাই। যিনি এসে আমাদের ভালো শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে আমাদের পড়ালেখায় সহযোগিতা করবেন। যতক্ষণ পর্যন্ত আমাদের বৈধ কমিটি না আসবে ততদিন পর্যন্ত আমরা ক্লাসে যাবো না। দশম শ্রেনীর ছাত্র আশিক মিয়া জানান, আমাদেরন চোখের সামনে দেখলাম, কোন ভোট হলো না, অথচ ভোটের মাধ্যমে কমিটি গঠন করা সংক্রান্ত কাগজপত্র দেখানো হচ্ছে। চুরি করে হওয়া কমিটির নেতৃত্বে কখনও ভালোভাবে স্কুল চলতে পারে না। তাদের নেতৃত্বে কখনও ভালো লেখাপড়া ও ফলাফলও সম্ভব নয়। তাই আমরা বৈধভাবে কমিটি চাই। কর্তৃপক্ষ যেদিন সেটির ব্যবস্থা করবেন। সেদিন আমরা ক্লাসে যাবো।
এ ব্যপারে স্কুলের সাবেক সভাপতি ও অভিভাবক মাহমুদুল হক তুষারসহ অন্যান্যরা জানান, আওয়ামীলীগের রংপুর জেলা সদস্য, পীরগঞ্জ উপজেলা উপদেস্টা সদস্য এবং রায়পুর ইউনিয়ন আহবায়ক মোঃ রেজাউল করিম নান্নু নির্বাচন ছাড়াই জোড়পুর্বক গোপনে ভুয়া কাগজপত্র তৈরি করে স্কুলের সদ্য প্রয়াত প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলামকে বাধ্য করে একটি ভুয়া কমিটি দিনাজপুর বোর্ড থেকে পাশ করে এনে ওই স্কুলের সভাপতি হন। বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে অভিভাবকরা ওই ভুয়া কমিটি বাতিল করে নির্বাচনের মাধ্যমে কমিটি গঠনের দাবি জানিয়ে দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডর চেয়ারম্যান বরাবরে লিখিত আবেদন করেন হত ১৬ জুলাই।
তিনি আরও বলেন, সভাপতি ও আওয়ামীলীগ নেতা নান্নুর চাপ সহ্য করতে না পেরে গত ১৭ জুলাই প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম হার্ট এ্যটাকে মারা যান। এ ঘটনার পরের দিনই নান্নু মিয়া স্কুলের অপর শিক্ষক সুনীল চন্দ্র রায়কে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে কার্যক্রম শুরু করেন। এরপর সভাপতি ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক স্কুলে জরুরী ভিত্তিতে প্রধান শিক্ষক, সহকারী প্রধান শিক্ষক, কম্পিউটার অপারেটর ও চতুর্থ শ্রেনীর কর্মচারী নিয়োগের পাঁয়তারা করতে থাকে। এতে স্কুলের শিক্ষা কার্যক্রম মারাত্বক হুমকির মুখে পরে। বিষয়টি জানতে পেরে আমিসহ অন্যান্য অভিভাবকরা বোর্ডে এই অবৈধ কমিটি বাতিলের আবেদন করি। বোর্ড থেকে ইউএনওকে চিঠি দিয়ে বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়। ইউএনও মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে বিষয়টি তদন্ত করার নির্দেশ দেন। কিন্তু তিনি অজ্ঞাত কারনে গত এক মাসেও তদন্তে আসেন নি। এতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন।
এ ব্যপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল মতিন মন্ডল জানান, ইউএনও আমাকে যে মুহুর্তে বিষয়টি তদন্ত করার দায়িত্ব দিয়েছিলেন। সেই মুহুর্তে আমি একটি ট্রেনিংয়ে ছিলাম। সেকারনে তদন্ত করতে পারি নি। বিষয়টি গত ১৬ আগস্ট ইউএনওকে লিখিতভাবে জানিয়েছি। এখন স্কুলে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, তালা লাগানোর বিষয় জানার পর আমি সেখানে লোক পাঠিয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এ ব্যপারে স্কুলের সভাপতি আওয়ামীলীগ নেতা রেজাউল করিম নান্নু জানান, আগের প্রধান শিক্ষক আমাকে সব নিয়ম মেনে সভাপতি করেছেন। নির্বাচন হয়েছে। আমি ইউএনওর কাছে গেছিলাম। উনিও বলেছে ঠিক আছে। কিন্তু আমাকে সাবেক সভাপতি তুষার মেনে নিতে পারছে না। সে কানোছগাড়ি এলাকার কিছু অভিভাবককে দিয়ে ষড়যন্ত্র করছে।তুষার সভাপতি থাকাকালে স্কুলের গাছ কেটে ফেলেছিল। উন্নয়ন করে নি। আমি এর আগেও দুইবার ছিলাম। সেসময় ব্যপক উন্নয়ন করেছি।


আরো সংবাদ

১০ বিশিষ্ট ব্যক্তিকে নির্বাচনে সম্পৃক্ত করতে চান ড. কামাল আস্থা রাখুন, হিন্দু সম্প্রদায়কে ফখরুল ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন আগের চেয়ে বেশি দমনমূলক : অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল আ’লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সদস্য হলেন ফারুক খান ও আব্দুর রাজ্জাক সহকর্মীর আঘাতে প্লাস্টিক ফ্যাক্টরির কর্মচারী নিহত শিক্ষাক্ষেত্রে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে : শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিক শিমুল হত্যা মামলায় মেয়র মিরুর জামিন স্থগিত শিশুশ্রম নির্মূলের ল্যমাত্রা অর্জনে দেশ যথেষ্ট পিছিয়ে নির্বাচনী তফসিল পুনর্নির্ধারণ জাপা ইতিবাচকভাবেই দেখছে : জি এম কাদের ৩২ আসনে প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে খেলাফত আন্দোলন অভিভাবক ঐক্য ফোরাম চেয়ারম্যানের মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি

সকল