২২ নভেম্বর ২০১৮

রাণীনগরে পিয়নের নারী কেলেঙ্কারী নিয়ে তোলপাড়

পিয়নের নারী কেলেঙ্কারী নিয়ে তোলপাড় -

নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার বরেন্দ্র বহুমূখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ অফিসের পিয়ন আব্দুল মতিনের নারী কেলেঙ্কারী ফাঁস হওয়ার পর এলাকায় ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়েছে। ঘটনাটি ধামা-চাপা দিতে গ্রামের কতিপয় প্রভাবশালী শালিসী-বৈঠকের মাধ্যমে মতিনের নারী কেলেঙ্কারী ধামাচাপা দিতে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে। তবে গুঞ্জন চলছে জরিমানা’র পরিমাণ আরো বেশি করা হয়েছে। যে টাকা মেয়ে পক্ষকে না দিয়ে নানান কায়দায় ভাগবাটোয়ারার অভিযোগ উঠছে।

জানা গেছে, উপজেলার কালিগ্রাম ইউনিয়নের বেলঘড়িয়া গ্রামের রবি মাস্টারের ছেলে রাণীনগর বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ অফিসের পিয়ন আব্দুল মতিন (২৭) একই এলাকার জনৈক ব্যক্তির মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। দীর্ঘ প্রায় দু’বছর সম্পর্ক চলাকালে মেয়েটি বার বার বিয়ের প্রস্তাব দিলেও তা কৌশলে এড়িয়ে চলে মতিন। গত মঙ্গলবার অন্যত্র বিয়ের জন্য পাত্রী পক্ষ মতিনের ঘর-বাড়ি দেখতে আসে। ওই দিন রাতেই আবার প্রেমিকাকে নিজ ঘরে ডেকে নেয় মতিন। এরপর চলে যেতে বললে মেয়েটি তাকে বিয়ে না করলে বাড়ি থেকে যাবে না সাফ জানিয়ে দেয়।

এ খবর জানাজানি হলে স্থানীয় মাতাব্বর প্রধান ও ইউপি মেম্বার ওই রাতেই শালিস বসায়। সেখানে সমাধান না হওয়ায় বুধবার বিকেলে শালিসের আয়োজন করে ঘটনাটি ধামা-চাপা দেয়ার জন্য মতিনের ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করে মাতব্বররা। অভিযুক্ত আব্দুল মতিন জানান, ঘটনার পর দিন বিকেলে বসে স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করা হয়েছে। স্থানীয় ইউপি মেম্বার এবাদুল হক জানান, প্রথম রাতে ঘটনা মীমাংসার জন্য আমরা বসেছিলাম। ওই সময় সমাধান না হওয়ায় পরের দিন ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করা হয়েছে।

তবে এই রকম ন্যাক্কারজনক ঘটনায় বরেন্দ্র অফিসের পিওন জরিত থাকার ঘটনা ফাঁস হলেও সহকারি প্রকৌশলী তিতুমীর রহমান পিয়নের পক্ষেই সাফাই গাইলেন। রাণীনগর বরেন্দ্র বহুমূখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সহকারি প্রকৌশলী তিতুমীর রহমান জানান, সে আমার অফিসের পিয়ন। শুনেছি বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংসা করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, সামান্য ব্যাপার নিয়ে সাংবাদিকদের এত উৎসাহ কেন? আমি বুঝি না!

রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ এএসএম সিদ্দিকুর রহমান জানান, এব্যাপারে এখন পর্যন্ত কেউ আমাকে জানায়নি। তবে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো পড়ুন: 

নড়াইলে গাঁজা ও ইয়াবাসহ যুবক আটক
ফরহাদ খান, নড়াইল
নড়াইলের হাতিরবাগান বাসস্ট্যান্ড থেকে গাঁজা ও ইয়াবাসহ এক যুবককে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। সোমবার (১০ সেপ্টেম্বর) রাতে ডিবি পুলিশের ওসি আশিকুর রহমানের নেতৃত্বে ১৫ পিস ইয়াবা ও ৫০ গ্রাম গাঁজাসহ মাদক কারবারি ইউসুফ মুসল্লিকে (২৫) আটক করা হয়। ইউসুফ লোহাগড়া উপজেলার মঙ্গলহাটা গ্রামের আব্দুর রউফ মুসল্লির ছেলে।

ওসি আশিকুর রহমান জানান, ইউসুফকে নড়াইল-যশোর সড়কের হাতিরবাগান বাস কাউন্টারের সামনে থেকে মাদকসহ আটক করা হয়। এর আগে গত রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ডিবি পুলিশ ১০পিস ইয়াবাসহ ইসলাম মোল্যাকে (২০) আটক করে। ইসলাম লোহাগড়া উপজেলার ঈশানগাতী পূর্বপাড়ার ইদ্রিস মোল্যার ছেলে।


এছাড়া গত ৭ সেপ্টেম্বর দুপুরে হাতিরবাগান মোড়ে বাসে তল্লাশি করে মাদক কারবারি শহিদকে (২৮) আটক করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে কোকাকোলার বোতলে রাখা ফেনসিডিলসহ ১৫ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়। সহিদ ঢাকার নবাবপুর এলাকার নূর জামানের ছেলে।


আরো সংবাদ