১৪ নভেম্বর ২০১৯

আলাবামায় গর্ভপাত নিষিদ্ধ করে আইন পাস

-

ধর্ষণসহ প্রায় সব ধরনের পরিস্থিতিতেই গর্ভপাতকে নিষিদ্ধ করে বিল পাস করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের আলাবামা অঙ্গরাজ্যের আইনপ্রণেতারা। মঙ্গলবার বিলটি অঙ্গরাজ্যের সিনেটে ২৫-৬ ভোটে পাস হয়। এটিকে আইনে পরিণত করতে এখন শুধু গভর্নরের স্বাক্ষরের অপেক্ষা। যুক্তরাষ্ট্রে প্রচলিত থাকা এ ধরনের আইনগুলোর মধ্যে এটিকে সবচেয়ে কঠোর বলে বিবেচনা করা হচ্ছে।
এ বছর যুক্তরাষ্ট্রের ১৬টি অঙ্গরাজ্যে গর্ভপাতের অধিকারের ওপর কড়াকড়ি আরোপ করা হয়। গর্ভপাতকে নিষিদ্ধ করতে বিল পাসের উদ্যোগ নেন আলাবামার রিপাবলিকানরা। এ মাসের শুরুর দিকে আলাবামা হাউজে বিলটি ৭৪-৩ ভোটে পাস হয়। মঙ্গলবার তা তোলা হয় সিনেটে। চার ঘণ্টার বিতর্কের পর রিপাবলিকান নেতৃত্বাধীন সিনেটে ২৫-৬ ভোটে পাস হয় বিলটি। এটিকে আইনে পরিণত করতে রিপাবলিকান গভর্নর কায় আইভির কাছে স্বাক্ষরের জন্য পাঠানো হবে। এতে স্বাক্ষর করার প্রশ্নে কিছু বলেননি আইভি। তবে গর্ভপাতের ঘোর বিরোধী হিসেবেই মনে করা হয় তাকে।
অনাগত সন্তানের মায়ের স্বাস্থ্য যদি গুরুতর ঝুঁকিতে থাকে কিংবা অনাগত শিশুটির মধ্যে যদি মারাত্মক অসঙ্গতি থাকে, তবেই কেবল গর্ভপাত করানো যাবে। ধর্ষণের কারণে গর্ভবতী হয়ে গেলে গর্ভপাতের অনুমতি প্রদানের প্রস্তাব দিয়েছিল ডেমোক্র্যাটরা। তবে তা খারিজ হয়ে যায়।
বিলটি আইনে পরিণত হলে গর্ভপাত করানোর জন্য চিকিৎসকেরা সাজার মুখোমুখি হবেন। গর্ভপাত চেষ্টার জন্য ১০ বছর এবং গর্ভপাত প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য ৯৯ বছর পর্যন্ত শাস্তি হতে পারে তাদের। তবে যে নারীর গর্ভপাত হয়েছে তাকে অপরাধী হিসেবে দায়ী করা হবে না।
আমেরিকান সিভিল রাইটস ইউনিয়ন অব আলাবামার নির্বাহী পরিচালক রান্ডাল মার্শাল বিলটির বিরোধিতা করেছেন। তিনি জানিয়েছেন তারা জাতীয় পর্যায়ের সংগঠন এসিএলইউ, প্ল্যানড প্যারেন্টহুড ও প্ল্যানড প্যারেন্টহুড অব সাউথইস্টের সাথে একত্রিত হয়ে আদালতে বিলটিকে চ্যালেঞ্জ করবেন।


আরো সংবাদ