২২ এপ্রিল ২০১৯

হোটেল রুমে অভিনেত্রীর ঝুলন্ত লাশ

পায়েল চক্রবর্তী - সংগৃহীত

হোটেলে উঠার সময় অভিনেত্রীর আচরণে কোন অস্বাভাবিকতা ছিল না। পরের দিন কি করবেন, কটায় বের হবেন সেগুলোও জানিয়ে রেখেছিলেন হোটেল কর্তৃপক্ষের কাছে। অথচ সকালে পাওয়া গেল ঝুলন্ত লাশ। মৃত এই অভিনেত্রীর নাম পায়েল চক্রবর্তী। পশ্চিমবঙ্গের উত্তরবঙ্গের শিলিগুড়ির চার্চ রোডের এয়ারভিউ মোড়ের একটি হোটেলে এই ঘটনা ঘটেছে। 

টালিউডের বেশ কয়েকটি সিনেমা, টিভি সিরিয়াল ও ওয়েব সিরিজে এরই মধ্যে অভিনয় করেছেন পায়েল চক্রবর্তী। উঠতি অভিনেত্রী হিসেবে পরিচিত মুখ ছিলেন তিনি। বাড়ি দক্ষিণ কলকাতার নেতাজিনগরে। শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেটের পানির ট্যাঙ্কি ফাঁড়ির পুলিশ বুধবার দুপুরের পর ওই অভিনেত্রীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

হোটেল সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে হোটেলে ওঠেন পায়েল চক্রবর্তী। সাথে ছিল ভারী ওজনের দুটি ব্যাগ। বুধবার সকালে তিনি গ্যাংটক যাবেন বলে হোটেল কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছিলেন। সে কারণে সকাল ৭টার দিকে ডেকে দিতেও বলেছিলেন তাদের। হোটেলে তার জমা দেওয়া পরিচয়পত্র থেকে জানা গেছে, তার স্বামীর নাম সুমিত চক্রবর্তী। শিলিগুড়িতে তিনি একাই এসেছিলেন।

মঙ্গলবার রাতে হোটেলে এসে সোজা রুমে চলে যান। হোটেল রিসেপশনে জানিয়ে যান, রাতে তিনি খাবেন না। সঙ্গে খাবার নিয়ে এসেছেন। বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া কেউ যেন তাকে ডাকাডাকি না করে।

বুধবার সকালে হোটেলের রুম সার্ভিসের কর্মীরা তার ঘরে গিয়ে ডাকাডাকি করেও কোনো সাড়া পাননি। এরপর দুপুর ১২টার দিকে স্থানীয় পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পরে পুলিশ এসে দরজা ভেঙে অভিনেত্রী পায়েলের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে।

এই ঘটনায় শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেটের ডিসিপি (জোন-১) গৌরব লাল বলেন, মৃত অভিনেত্রীর পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, পায়েল চক্রবর্তীর সঙ্গে কিছুদিন আগেই তার স্বামীর বিচ্ছেদ হয়ে যায়। তার দুই বছরের একটি সন্তানও রয়েছে। পুলিশ হোটেলের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ খতিয়ে দেখছে। মঙ্গলবার রাতে হোটেলের রুমে ঢোকার পর একবারের জন্যও তিনি রুম থেকে বের হননি। এই ঘটনা নিছক আত্মহত্যা না কি অন্য কিছু, তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

টালিউড সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি ‘কেলো’ নামে একটি সিনেমায় চিকিৎসকের ভূমিকায় অভিনয় করছিলেন পায়েল চক্রবর্তী। এ ছাড়া ‘চতুর্থ রিপু’ নামে একটি সিনেমাতেও অভিনয় করেছেন তিনি। এ ছবিটি খুব শিগগিরই মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

এ ছাড়া ‘এক মাসের সাহিত্য সিরিজ’, ‘চোখের তারা তুই’ ও ‘গোয়েন্দা গিন্নি’ ছবিতেও অভিনয় করেছেন পায়েল। কলকাতার জনপ্রিয় নায়ক দেবের ‘ককপিট’ ছবিতেও তিনি অভিনয় করেন। পায়েল চক্রবর্তীর মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমেছে টালিউডে।

ভারতে অভিনেত্রীদের এভাবে মৃত্যুর ঘটনা নতুন নয়। এর আগে দুবাইয়ের একটি হোটেলে অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছিল বলিউডের দিবা হিসাবে পরিচিত শ্রী দেবীর। 

আরো পড়ুন: নেটফ্লিক্স-এর সব জায়গায় রাধিকা কেন
নয়া দিগন্ত অনলাইন ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:২১
বলিউড তারকা রাধিকা আপ্তে যেসব কারণে আলোচনায় থাকেন তা উপ-মহাদেশের সমাজ ব্যবস্থায় বরাবরই সমালোচিত। কিন্তু  এই সমালোচিত বিষয়গুলোই কেন বেঁছে নিলো নেটফ্লিক্স, সেটাই এখন বড় প্রশ্ন।  নেটফ্লিক্স ইন্ডিয়ার সাইট খুললে এখন চারপাশে কেবল রাধিকা। নেটফ্লিক্স নামটি খোদ নেটফ্লিক্সেরই দেওয়া। ভিডিও স্ট্রিমিং ওয়েবসাইটটি ভারতে নিজেদের ব্যবসা বিস্তৃত করতে বেছে নিয়েছে অভিনেত্রী রাধিকা আপ্তেকে। লাস্ট স্টোরিজ, সেকরেড গেমস, ঘুল-একের পর এক ওয়েব সিরিজে রাধিকা আপ্তেকে দেখা যাচ্ছে। 

সম্প্রতি, নেটফ্লিক্সে মুক্তি পেল বলিউড ছবি প্যাড ম্যান। কিন্তু নেটফ্লিক্স অক্ষয় কুমারের তারকাখ্যাতির চেয়ে রাধিকাকেই বেশি প্রচার করছে নেটফ্লিক্স ইন্ডিয়া। গত মঙ্গলবার তেমনি একটি টুইট করেছে নেটফ্লিক্স। টুইটটি ছিল এমন- ‘এখন প্যাড ম্যান দেখা যাচ্ছে। এতে রাধিকা আপ্তে আছেন বলে আমরা এটা বলছি না। কিন্তু হ্যাঁ, এতে রাধিকা আপ্তে আছেন!’

ওয়েবসাইটটির এত রাধিকা-প্রীতি দেখে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ট্রল হচ্ছে প্রচুর। এরই একটি পাওয়া গেল টুইটারে। সেখানে বিভিন্ন শব্দের শেষে ‘পনির’ শব্দটি যোগ করে একেকটি নতুন খাবারের পদের তালিকা দেওয়া হয়। বোঝানো হয়, নেটফ্লিক্সের জন্য রাধিকা ‘পনির’-এর মতো, সবকিছুর মধ্যেই লাগে। অর্থাৎ, বৈচিত্র্যময় অভিনয়ের প্রতিভাসম্পন্ন রাধিকাকে তারা যেকোনো প্রযোজনার সঙ্গেই জুড়ে দিচ্ছে।

নেটফ্লিক্সের ইনস্টাগ্রাম পেজের ওপরও লেখা, ‘জাস্ট অ্যানাদার রাধিকা আপ্তে ফ্যান অ্যাকাউন্ট’ (রাধিকা আপ্তের ভক্তদের আরও একটি অ্যাকাউন্ট)। আর সেখানে অমনিপ্রেজেন্ট নামের একটি ‘ছবি’র পোস্টারও রয়েছে। তাতে লেখা, ওই ছবির প্রতিটি চরিত্রেই নাকি দেখা যাবে রাধিকাকে। এর গল্প রাধিকার, সংগীত রাধিকার, এমনকি পরিচালনাও। পোস্টারও নাকি রাধিকার করা! ছবিটিকে তারা বলছে ‘র‍্যাডফ্লিক্স অরিজিনাল ফিল্ম’। র‍্যাড অর্থাৎ আর-এ-ডি, ইংরেজিতে রাধিকার নামের প্রথম তিন অক্ষর।

আসলে এটি নেটিফ্লিক্সের একটি রসিকতা। আর এ নিয়ে একটি ভিডিও-ও তৈরি করেছে তারা। নেটফ্লিক্সে রাধিকার প্রতিটি সিরিজের মতো এই পোস্টার ও ভিডিও লোকে দেখছে সমানে।

 


আরো সংবাদ




iptv al Epoksi boya epoksi zemin kaplama Daftar Situs Agen Judi Bola Net Online Terpercaya Resmi

Hacklink

Bursa evden eve nakliyat
arsa fiyatları tesettür giyim
Canlı Radyo Dinle hd film izle instagram takipçi satın al ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme

instagram takipçi satın al
hd film izle
gebze evden eve nakliyat