২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

সৌদির কাছে বোমা বিক্রি নিয়ে যা করলো স্পেন

সৌদির কাছে বোমা বিক্রি নিয়ে যা করলো স্পেন - সংগৃহীত

ইয়েমেনের স্কুলবাসে সৌদি বিমান হামলায় বহু শিশু নিহত হওয়ার জের ধরে রিয়াদের কাছে ৪০০ অত্যাধুনিক বোমা বিক্রির পরিকল্পনা বাতিল করেছে স্পেন। ৯২ লাখ ডলার মূল্যে এসব বোমা কিনতে চেয়েছিল সৌদি সরকার এবং এ অর্থ এরইমধ্যে পরিশোধ করা হয়েছিল।

স্পেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সোমবার জানিয়েছে, সৌদি আরবের পক্ষ থেকে বোমা কেনা বাবদ যে ৯২ লাখ ডলার দেয়া হয়েছিল তা শিগগিরই রিয়াদকে ফিরিয়ে দেয়া হবে। ইয়েমেনের নিরপরাধ বেসামরিক নাগরিকদের ওপর এই বোমা ব্যবহৃত হতে পারে বলে আশঙ্কা থাকায় এর বিক্রি বাতিল করা হয়েছে।

স্পেনের সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী পেদ্রো মোরেনেস এওলেত সৌদি আরবের সঙ্গে অস্ত্র বিক্রির ওই চুক্তি করেছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি ইয়েমেনে সৌদি আরবের একটি বিমান হামলায় ৪০ শিশুসহ ৫১ বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হওয়ার পর স্পেনের বর্তমান প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্গারিতা রোবেলস চুক্তিটি বাতিল করে দিলেন। তিনি সৌদি আরবের সাথে আরো কিছু সমরাস্ত্র চুক্তি পুনর্বিবেচনা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলেছে, সৌদি আরবের কাছে সমরাস্ত্র বিক্রির দিক দিয়ে স্পেন বিশ্বে চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে। সম্প্রতি দেশটির রাষ্ট্র-নিয়ন্ত্রিত জাহাজ নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান নাভান্তিয়া রিয়াদের কাছে ১৮০ কোটি ডলার মূল্যের পাঁচটি ছোট যুদ্ধজাহাজ বিক্রির চুক্তি করেছে।  গত এপ্রিলে দু’দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রীরা এ চুক্তি সই করেন। স্পেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর ভাষ্য অনুযায়ী এই চুক্তিটিও পুনর্বিবেচনা করছে মাদ্রিদ।

স্পেন, সৌদি আরব ও কানাডাকে পেছনে ফেলবে ইরান
ফার্স, আইএমএফ ও মেহের নিউজ, ১৫ আগস্ট ২০১৮

আন্তর্জাতিক অর্থ তহবিল বা আইএমএফ (ইন্টারন্যাশনাল মনিটারি ফান্ড) এক পূর্বাভাসে বলেছে, আগামী তিন বছর পর অর্থাৎ ২০২১ সালে ইরান হবে বিশ্বের ১৫ তম বৃহত্তম অর্থনীতি। স্পেন, সৌদি আরব ও কানাডাকে পেছনে ফেলে ইরান এই অবস্থানে উঠে আসবে বলে সংস্থাটি মন্তব্য করেছে। 

সংস্থাটির পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২০১৭ সালে ইরানের জিডিপি বা মোট দেশজ উৎপাদন ছিল মার্কিন মুদ্রায় ১৬৪৪ বিলিয়ন ডলার (বা এক লাখ ৬৪ হাজার ৪০০ কোটি ডলার) এবং এরই আলোকে দেশটি বিশ্বের ১৮ তম বৃহত্তম অর্থনীতি। আর ২০২১ সালে ইসলামী এই দেশটির জিডিপি হবে ২ হাজার ৯৫ বিলিয়ন ডলার বা দুই লাখ একুশ হাজার কোটি ডলার।

অন্যদিকে চীনের জিডিপি ২০২১ সালে হবে ২৩ হাজার এক শত ৫৯ বিলিয়ন ডলার এবং এর ফলে ওই বছর চীন হবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় অর্থনীতি। আর ওই বছর মার্কিন জিডিপি হবে ১৯ হাজার ৩৯০ বিলিয়ন ডলার এবং ভারতের জিডিপি হবে নয় হাজার ৪৫৯ বিলিয়ন ডলার। ফলে এ দুটি দেশের অর্থনীতি হবে যথাক্রমে বিশ্বের দ্বিতীয় ও তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি।


আরো সংবাদ

Hacklink

ofis taşıma Instagram Web Viewer

canli radyo dinle

Yabanci Dil Seslendirme