২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯, ৩০ সফর ১৪৪৪ হিজরি
`

নারায়ণগঞ্জ ছাত্রদলের ঢাকায় মানববন্ধন, তারেক রহমানের কাছে স্মারকলিপি

নারায়ণগঞ্জ ছাত্রদলের ঢাকায় মানববন্ধন, তারেক রহমানের কাছে স্মারকলিপি - ছবি : নয়া দিগন্ত

ঝুট ব্যবসাকে কেন্দ্র করে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা এনায়েতনগর ইউনিয়নের মাসদাইরে ২০১৫ সালে খুন হন ৩ নম্বর ওয়ার্ড বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সভাপতি মোকলেসুর রহমান। সরাসরি আওয়ামী লীগের রাজনীতি করলেও এ পরিবারের হাতেই তুলে দেয়া হয়েছে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ঈদ উপহার। ২০২০ সাল থেকে শুরু করে চলতি বছর ধারাবাহিকভাবে এ উপহার পাচ্ছে আওয়ামী লীগ করা ওই পরিবার। এতে করে রীতিমত ক্ষুব্ধ নারায়ণগঞ্জের বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের জুলুম-নির্যাতনের শিকার পরিবারগুলো।

আওয়ামী লীগ করা ওই পরিবারের কাছে তারেক রহমানের দেয়া ত্রাণ ও ঈদ উপহার পৌঁছে দিয়েছেন জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও যুবদলের সদস্য সচিব মশিউর রহমান রনি।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধনে এমন অভিযোগ তুলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন নারায়ণগঞ্জ ছাত্রদলের নেতারা।

জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক নাজমুল হাসান বাবুর নেতৃত্বে, ফতুল্লা থানা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক লেলিন আহম্মেদ, সোনারগাও থানা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক রবিউল ইসলাম প্রধান, জেলা ছাত্রদল নেতা আবু জাফর সাগর।

এ সময় অভিযুক্ত মশিউর রহমান রনির বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। বিএনপি মহাসচিবের মাধ্যমে দলের ভাইস চেয়ারম্যানের কাছে ওই স্মারকলিপি পৌঁছানো হয়েছে।

মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, সারা দেশে সরকার বিরোধী আন্দোলন করতে গিয়ে হামলা-মামলার শিকার হয়ে বন্দি, গুম-খুনের শিকার হওয়া দলীয় নেতাকর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে ঈদ উপহার পাঠানো হয় তারেক রহমানের পক্ষ থেকে। গত ঈদের আগে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন উপজেলার নেতাকর্মীদের বাড়িতে এ উপহার পাঠানো হয়। তবে ফতুল্লা থানার এনায়েতনগরে ঈদের পরদিন বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সভাপতি নিহত মোকলেসের পরিবারের কাছে তারেক রহমানের ঈদ উপহার তুলে দেয়া হয়।

সৈনিক লীগের সভাপতি মোকলেসের স্ত্রী রোজিনা সেই উপহার গ্রহণ করেন। এ সময় জেলা যুবদলের সদস্য সচিব মশিউর রহমান রনি, ফতুল্লা থানা বিএনপির আহ্বায়ক জাহিদ হাসান রোজেলও উপস্থিত ছিলেন। আসন্ন ঈদুল আজহায় একই ঘটনার পাঁয়তারা চলছে বলে অভিযোগ করেন মানববন্ধনের বক্তারা।

ছাত্রদল নেতারা অভিযোগ করে বলেন, এ ঘটনায় আমরা বিব্রত। কী করে আমাদের নেতা তারেক রহমান সৈনিক লীগের প্রয়াত নেতার পরিবারকে ঈদ উপহার সামগ্রী পাঠায় তা আমাদের বোধগম্য নয়। জেলা যুবদলের সদস্য সচিব মশিউর রহমান রনি এককভাবে এ লিস্ট করে দলকে অবমাননা করেছেন। তারেক রহমানকে অপমান করেছে। যে দলটি প্রতিনিয়ত আমাদের উপর নির্যাতন চালাচ্ছে, সেই দলের একজন ওয়ার্ড সভাপতির পরিবারের হাতে ঈদ উপহার তুলে দেয়া মানে বিএনপির সাথে মশকরা করা। আমরা এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ। আশা করি দলের কেন্দ্রীয় নেতারা এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে রনির বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। নয়তো দলের জন্য জীবন দেয়া নেতাকর্মীদের আত্মা শান্তি পাবে না।

ছাত্রদল নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, আমরা জুলুম-নির্যাতনের শিকার। আমরা চাই দলের অসহায় পরিবারগুলো তারেক রহমানের কাছ থেকে আর্থিক অনুদানসহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করুক কিন্তু সরকারি দলের লোকজন তারেক রহমানের ঈদ উপহার পাবে এটা দলের নির্যাতিত নেতাকর্মীদের সাথে তামাশা আর উপহাস ছাড়া কিছু নয়। এটা হতে পারে না। তদন্ত করে অভিযুক্ত রনির বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান তারা।


আরো সংবাদ


premium cement