film izle
esans aroma Umraniye evden eve nakliyat gebze evden eve nakliyat Entrumpelung wien Installateur Notdienst Wien
১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

আশরাফুলের ফেবারিট পাকিস্তান

মোহাম্মাদ আশরাফুল - ছবি : সংগ্রহ

এশিয়া কাপের বিশ্লেষণ শুরু হয়েছে আগেই, সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিতব্য এ আসরে কে ফেবারিট সেটা নিয়ে নানান মত ক্রীড়া সংশ্লিষ্টদের। যেহেতু ওয়ানডে ম্যাচ, প্রতিটা দলই প্রায় সমশক্তির। ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কার সাথে বাংলাদেশ। কেউ কাউকে ছেড়ে দেয়ার নয়। প্রতিটা দলই খেলছে দুর্দান্ত ক্রিকেট। এরপরও যে বিশ্লেষণ হচ্ছে তাতে পাকিস্তানকে এগিয়ে রাখছেন কেউ কেউ। তাদের মধ্যে মোহাম্মাদ আশরাফুল একজন। বাংলাদেশকেও তিনি রেখেছেন সম্ভাবনার মধ্যে।

বুধবার মিরপুর শেরেবাংলায় সাংবাদিকদের তিনি জানিয়েছেন, কেন তিনি পাকিস্তানকে এগিয়ে রেখেছেন সেটা। দীর্ঘদিন ধরেই পাকিস্তানের হোম ভেনু সংযুক্ত আরব আমিরাত। আর এটিই আশরাফুলের বিবেচনায় পাকিস্তানকে এগিয়ে রাখছে। ২০০৯ এ লাহোরে শ্রীলঙ্কা দলের উপর হামলার পর থেকে পাকিস্তানে হচ্ছে না আন্তর্জাতিক ম্যাচ। ফলে তারা হোম ভেন্যু হিসেবে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে বেছে নিয়েছে। এতে করে ওই দেশটির খুটিনাটি তাদের নখদর্পনে। এরপর রয়েছে গ্যালারির বিশাল সাপোর্ট। যার অধিকাংশ পাকিস্তানেরই।

আশরাফুল বলেন,‘যেহেতু আরব আমিরাতে খেলা, এটা পাকিস্তানের হোম ভেন্যু। কন্ডিশনটাও তাদের খুব পরিচিত। তাই পাকিস্তানই এগিয়ে থাকবে। এছাড়া সম্প্রতি ভাল ক্রিকেট খেলে আসছে দলটি। এতে আমার মনে হচ্ছে অবশ্যই পাকিস্তান একটু এগিয়ে থাকবে।’

সর্বশেষ ২০ ম্যাচের পরিসংখ্যানে পাকিস্তান বাজে খেলেছে নিউজিল্যান্ড সফরে। পাচ ম্যাচের সিরিজের প্রতিটাতেই তারা হেরে এসেছে। এ ছাড়া বাকী ১৫ ম্যাচের ১৪ টিতেই তাদের রয়েছে জয়। যার মধ্যে লন্ডনে অনুষ্টিত গত বছরের আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিও রয়েছে। ফাইনালে ভারতকে হারিয়ে জিতেছিল শিরোপা। সর্বশেষ জিম্বাবুয়ে সফরের পাচটি ওয়ানডেতেও জিতেছে তারা বড় ব্যাবধানে।

তবে বাংলাদেশকেও তিনি মোটেও পিছিয়ে রাখছেন না। তার প্রধান কারণ সাম্প্রতিককালের পারফরমেন্স। বেশ কিছুদিন ধরেই বাংলাদেশ
ওয়ানডে ক্রিকেটে সফলতা নিয়ে এগিয়ে চলছে। এর সর্বশেষ উদাহরণ ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে সিরিজ জয়। তিনি বলেন, ‘ওয়ানডেতে আমরা অসাধারণ ক্রিকেট খেলে আসছি, শেষ ৪-৫ বছর। এ ফরম্যাটে আমরা ভাল দল। এশিয়া কাপে আমরা ২ বার ফাইনাল খেলেছি। এবার আমাদের সবার স্বপ্ন আমরা চ্যাম্পিয়ন হব। সে জন্য ম্যাচ বাই ম্যাচ সবাই চেষ্টা করবে দল, ভাল খেলার।
সিনিয়ররা যদি ভাল ক্রিকেট খেলে আর জুনিয়ররা যদি সাধ্যমত সহযোগিতা করে, তাহলে আমি মনে করি বাংলাদেশেরও ভাল সম্ভাবনা
আছে।’

তিনি অবশ্য বাংলাদেশের ভাল করার পেছনে কিছু পূর্বশর্তও জুড়ে দিয়েছেন। বিগত বেশ কিছু পরিসংখ্যানের দিকে তাকালে দেখা যাবে কোনো টুর্নামেন্ট শুরুতে সুচনা ম্যাচের গুরুত্ব অনেক। তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রথম ম্যাচটা খুব গুরুত্বপুর্ণ। শ্রীলঙ্কার সাথে পরিস্থিতিটা যদি আমাদের পক্ষে রাখতে পারি, তাহলে আমাদের জন্য আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ সহজ হয়ে যাবে। যদি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে জয়টা অনুকুলে না রাখতে পারি তাহলে সব কিছুই একটু কঠিন হয়ে যাবে।’

উল্লেখ্য, এশিয়া কাপে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ ১৫ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।

আরো পড়ুন:  দু্বাইয়ে দলের সাথে যোগ দিলেন সাকিব
বাংলাদেশ টিমের সাথে যোগ দিয়েছেন সাকিব আল হাসান। তিনি যুক্তরাষ্ট্র থেকে সরাসরি দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন।  ইনজুরি বিতর্ককে পেছনে ফেলে নেটে অনুশীলন করেছেন তিনি। নেটে তাঁর ব্যাটিং অনুশীলনে তাকে স্বাভাবিক দেখা গেছে। সাকিব কতটুকু ফিট সেটা নিয়ে অনেক বিতর্ক তৈরি হলেও বিসিবি ও কোচ বরাবরই বলে এসেছেন, সাকিব এশিয়া কাপ খেলতে পারবেন।

এশিয়া কাপের ‘বি’ গ্রুপে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ শ্রীলংকা ও আফগানিস্তান। মঙ্গলবার জাতীয় দলের সঙ্গে অনুশীলন শেষে সাকিব নিজেদের টার্গেট নিয়ে বলেন, শিরোপা জিততেই আমরা এখানে এসেছি। এই মুহূর্তে আমাদের লক্ষ্য শুরুটা ভালো করা। এরপর টার্গেট থাকবে ম্যাচ বাই ম্যাচ ভালো খেলার।


আফগানদের কথা বলতে গিয়ে সাকিব বলেন, আফগানদের বিপক্ষে আমরা আগেও খেলেছি। ওদের সম্পর্কে আমাদের ধারণা আছে। টি-টোয়েন্টিতে ওরা দারুণ খেলেলেও আমার বিশ্বাস ওয়ানডে ফরম্যাটে আমরা ভালো কিছু করতে পারব।

আগামী শনিবার বাংলাদেশ-শ্রীলংকা ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে এশিয়া কাপ। প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে গত রোববার সংযুক্ত আরব আমিরাতের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।

দেখুন:

আরো সংবাদ