১৬ অক্টোবর ২০১৯

গলাচিপা হাসপাতাল সড়কটির বেহাল দশা

-

গলাচিপায় ৫০শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে ভাঙ্গা থাকার কারণে রোগীসহ জনসাধারণের ভোগান্তির শেষ নেই। প্রতিদিনই ঘটছে নানা ধরনের দুর্ঘটনা। যার ফলে রোগিসহ সবাইকেই পোহাতে হয় সীমাহীন দুর্ভোগ।
জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে গলাচিপা হাসপাতালের প্রধান সড়কটি খানাখন্দ রয়েছে। এ রাস্তার পাশে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, একটি পাকা জামে মসজিদ, চারটি ক্লিনিকসহ বেশ কয়েকটি ঔষধ, মুদি মনোহরি ও চায়ের দোকান রয়েছে। ওই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন কোমলমতি শিক্ষার্থীরা অনেক ঝুঁকি নিয়ে বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়া করে। রাঙ্গাবালীতে কোনো হাসপাতাল না থাকার কারনে প্রতিদিন দুই উপজেলার শতশত রোগী স্বাস্থ্যসেবা নেয়ার জন্য এই হাসপাতালে আসেন। কিন্তু সড়কটির এ বেহাল দশার কারণে ভোগান্তিতে পড়তে হয় রোগীদের। বিশেষ করে মুমূর্ষু ও গর্ভবতী রোগীদেরকে হাসপাতালে নিয়ে আসতে গেলে অনেক সময় এ্যাম্বুলেন্সের দরকার হয়। কিন্তু সড়কটি সরু এবং ভাঙ্গা হওয়ায় এ্যাম্বুলেন্স চলার অনুপযোগী। সড়কটি এত সরু যার কারণে দুইটি রিকশা একসাথে চলতে পারে না। যার ফলে পথচারীর হাটার কোনো পথ থাকে না। ফলে প্রায়ই দুর্ঘটনার শিকার হয় পথচারী ও রোগীদের। সড়ক খানাখন্দের কারণে যেতে দেরি হওয়ায় হাসপাতালে পৌঁছার পূর্বেই এক গর্ভবতী মহিলা সড়কের ওপরে সন্তান প্রসব করেছে বলে স্থানীয়রা জানান। তাই সড়কটি মেরামত এবং প্রশ্বস্ত করার জন্য জোর দাবি জানিয়েছে হাসপাতালে আসা অনেকে।
এ বিষয়ে গলাচিপা পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র মোসা. আঞ্জুমান আরা করুনা জানান, জাইকার অর্থায়নে অতি দ্রুত হাসপাতালের সড়কটি প্রশস্ত করে পুনঃনির্মান করা হবে।


আরো সংবাদ




astropay bozdurmak istiyorum