২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩০, ১৪ জিলহজ ১৪৪৫
`

সিলেটে বিল্ডিংয়ের ছাদ থেকে পাইপ পড়ে সেনা সদস্য নিহত

- ছবি: নয়া দিগন্ত

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের (সিসিক) বিল্ডিংয়ের ছাদ থেকে স্টিলের পাইপ পড়ে ল্যান্স কর্পোরাল মো: দেলওয়ার হোসেন নামে এক সেনা সদস্য নিহত হয়েছেন।

শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। 

সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

সেনা সদস্য দেলওয়ার সিলেট ১৭ ডিভিশন ৫০ ফিল্ট রেজিমেন্ট আর্টিলারী। তিনি মেহেরপুর জেলার রাংনি থানাধীন জগিরগোফার রায়পুর গ্রামের বাসিন্দা।

এদিকে সেনা সদস্য নিহত হওয়ার ঘটনায় সাত সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন সিলেট সিটি কর্পোরশেনের (সিসিক) মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক সিসিকের প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমান, সদস্য গণপূর্ত বিভাগ সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী রিপন কুমার রায়, সিসিকের তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আলী আকবর, শিক্ষা ও প্রকৌশল অধিদফতর সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী নজরুল হাকিম, সিসিকের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মো: মতিউর রহমান খান, নির্বাহী প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) রুহুল আলম, নির্বাহী প্রকৌশলী রাজি উদ্দিন খান।

প্রত্যক্ষদর্শী ও সিসিক সূত্রে জানা গেছে, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নির্মাণাধীন বিল্ডিংয়ের ১২ তলায় কাজ চলছিল। জামাল অ্যান্ড কোং নামের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এ কাজ করছিল। শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে ১২ তলা ভবনের ছাদ থেকে হঠাৎ একটি স্টিলের পাইপ পাশের সিটি মার্কেটের ভিতরে ওই সেনা সদস্যের মাথায় এসে পড়ে। সাথে সাথে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। তাৎক্ষণিক স্থানীয় ব্যবসায়ীরা তাকে উদ্ধার করে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মহানগর পুলিশের কোতোয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আলী মাহমুদ বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ওসমানী হাসপাতালে পাঠান। নিহত পথচারী সেনাসদস্য। লাশ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, ‘খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ ঘটনায় আমি মর্মাহত। নিহত সেনা সদস্যের পরিবারের প্রতি গভীর শোক জানাচ্ছি। এ ঘটনায় সাত সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছি। ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তারা প্রতিবেদন জমা দিবেন। আমি সেনা কতৃপক্ষের সাথেও কথা বলেছি। তদন্ত রিপোর্ট অনুযায়ী দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’


আরো সংবাদ



premium cement