২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১১ আশ্বিন ১৪৩০, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫ হিজরি
`

শাবিতে র‌্যাগিং : ১৭ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

শাবিতে র‌্যাগিং : ১৭ শিক্ষার্থী বহিষ্কার - ছবি : সংগৃহীত

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭ শিক্ষার্থীকে র‌্যাগিং ও শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তাদের ১৬ জন বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী। একজন কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের শিক্ষার্থী।

বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) এ তথ্য নিশ্চিত করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের সৈয়দ মুজতবা আলী হলে নবীনদের র‌্যাগিংয়ের ঘটনায় জড়িত থাকায় ১৬ শিক্ষার্থীকে আবাসিক হল থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়।

তারা হলেন মো: পাপন মিয়া, মো: রিয়াজ হোসেন, পায়েল আহমদ, মো: খালেদ সাইফুল্লাহ, রামীম আহমদ, মো: রাকিব হোসেন, অশেষ চাকমা, সৌরভ নাথ, শরীফুল ইসলাম, অনিক দাশ, মো: ফাহিম মিয়া, নয়ন চন্দ্র দে, মো: তোহা মিয়া, মো: আশিক হোসেন, মো: আল আমিন এবং মো: আপন মিয়া।

তাদের নিজ নিজ হল থেকে বহিষ্কার ও সকাল হলেই প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তারা পরবর্তীতে যেকোনো শৃঙ্খলা বিরোধী কাজে জড়িত হলে কঠোর শাস্তি প্রদান করা হবে বলে সতর্ক করা হয়।

অন্যদিকে, গত ২৬ নভেম্বর নেশাগ্রস্ত হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকে এক ছাত্রীকে মারধরের ঘটনায় সিএসএই বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের ছাত্র জীবন চন্দ্র সেনকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। এছাড়া এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির ঘটনায় মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৫-১৬ সেশনের তাসফিকুল হক নামের আরেক শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এক বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।

পাশাপাশি পরীক্ষায় অসাধু উপায় অবলম্বনে ১২ জন শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি প্রদান করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২২৭তম সিন্ডিকেট। এতে বিভিন্ন ঘটনায় ৩০ জন শিক্ষার্থী বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি পেলেন।

ভিসি বলেন, নবীন শিক্ষার্থীদের র‌্যাগিংয়ের ঘটনায় জড়িত ১৬ জনের বিরুদ্ধে প্রমাণ পাওয়া গেছে। তাদেরকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। পাশাপাশি তাদের হলে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তারা বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে কখনো হলে থাকতে বা প্রবেশ করতে পারবে না।

তিনি আরো বলেন, কিছুদিন আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকে শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও এক ছাত্রীকে মারধরের ঘটনায় সিএসই বিভাগের এক শিক্ষার্থীকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। এ ঘটনা ছাড়াও ওই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মাদকাসক্তসহ বেশ কিছু অভিযোগ রয়েছে।

পাশাপাশি আরেক ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গাড়ি চালককে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠানো হয়েছে। এসব সিদ্ধান্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় নেয়া হয়েছে বলেন ভিসি।


আরো সংবাদ



premium cement