২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৮ শাবান ১৪৪৫
`

ভুটানের বিপক্ষে বাংলাদেশ দলে পরিবর্তন

-

ভুটানের কাছে মহিলা ফুটবলে এখনো হারের লজ্জা পেতে হয়নি বাংলাদশেকে। আজ এই পাহাড় বেষ্টিত দেশটির কাছে পরাজিত হলেও সমস্যা নেই ছোট শামসুন্নাহারদের। আজ দিনের প্রথম ম্যাচে ভারত যদি নেপালকে হারিয়ে দেয় তাহলেই ৯ ফেব্রুয়ারি শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে খেলার ছাড়পত্র মিলবে গোলাম রাব্বানী ছোটন বাহিনীর। কারণ নেপালের পয়েন্ট তিন। বাংলাদেশের চার এবং ভুটান এখনো পয়েন্ট শূন্য। তবে বাংলাদেশ আজ অনূর্ধ্ব-২০ মহিলা ফুটবলের শেষ লিগ ম্যাচে জয়ের জন্যই মাঠে নামবে। তবে গত দুই ম্যাচে খেলা প্রথম একাদশ আজ এক হচ্ছে না। ফাইনালের প্রস্তুতি হিসেবে দুই-একজনকে বিশ্রাম দেয়া হবে। আজ সন্ধ্যা ৭টায় কমলাপুর স্টেডিয়ামে হবে এ খেলা। এর আগে বেলা ৩টায় মুখোমুখি হবে ভারত ও নেপাল।
বাংলাদেশ ও ভারত দুই দলই ৪ পয়েন্ট করে পেয়েছে। তবে গোল পার্থক্যে এগিয়ে প্রতিবেশী দেশটি। নেপালের বিপক্ষে আজ ভারতের জেতারই কথা। আর বড় ধরনের কোনো অঘটন না ঘটলে বাংলাদেশেরও আজ বড় জয়ই পাওয়ার সম্ভাবনা। কোচ ছোটন জানান, আমরা আমাদের স্বাভাবিক খেলাই উপহার দেবো। লক্ষ্য একটাই জয় নিয়ে মাঠ থেকে আসা।’ এরপরই তথ্য দেন, তবে গত দু’টি টাফ ম্যাচ খেলায় ভুটানের বিপক্ষে দুই এক খেলোয়াড়কে বিশ্রাম দেবো। সেটা অবশ্য ঠিক করবো শেষ সময়ে। দেখবো কোনো কোনো ফুটবলারের হালকা ইনজুরি আছে।
অবশ্য এই কার্যত গুরুত্বহীন ম্যাচে বিশ্রাম দেয়া হচ্ছে না বাংলাদেশ অধিনায়ক শামসুন্নাহারকে। নেপালের বিপকে মাথায় আঘাত পেয়ে বিরতির পর আর মাঠে না নামা এই ফরোয়ার্ড ভারতের বিপক্ষে পুরো সময়ই খেলেছেন।
বাংলাদেশ ও ভুটানের ম্যাচটি অনেকটা নিয়মরক্ষার হয়ে যাবে যদি আগের ম্যাচের ফল ভারতের পক্ষে যায়। বিকেলের এই ম্যাচ ভারত ও নেপাল উভয়ের জন্যই গুরুত্বপূর্ণ। ফাইনালে যেতে হলে নেপালের আজ জিততে হবে। ড্র করলেও লাভ হবে না হেড টু হেডে বাংলাদেশের কাছে হারের কারনে। অন্য দিকে ৯ তারিখের ফাইনাল খেলতে ভারতের দরকার ন্যূনতম ড্র।


আরো সংবাদ



premium cement