২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩০, ১৪ জিলহজ ১৪৪৫
`

অনিয়মের অভিযোগ রায়গঞ্জে প্রাণিসম্পদ কার্যালয় ঘেরাও

অনিয়মের অভিযোগ রায়গঞ্জে প্রাণিসম্পদ কার্যালয় ঘেরাও। - ছবি : নয়া দিগন্ত

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে সমন্বিত প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় হতদরিদ্র পরিবারে মাঝে হাঁস বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ও রায়গঞ্জ উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে। সুফলভোগীরা প্রাণিসম্পদ অফিস ঘেরাও করলে পালিয়ে যান উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ওয়ালী-উল ইসলাম ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন।

বৃহস্পতিবার (৮জুন) সকালে এ ঘটনা ঘটে।

রায়গঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৃপ্তি কণা মণ্ডল বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। তবে অভিযোগ ওঠার পর বিতরণ কার্যক্রম স্থগিত করা হয়।

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রকল্পের আওতায় ৫০০টি হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে ১০ হাজার হাঁস বিতরণের উদ্যোগ নেয় উপজেলা প্রানিসম্পদ। একটি সুবিধাভোগী পরিবার পাবে ২০টি হাঁস। প্রতিটি হাঁস হবে খাকি জাতের ও বয়স হবে ৫০ দিন এবং ২০টি হাঁসের ওজন হবে ১৬ কেজি। বিতরণ কাজের দায়িত্ব পায় জেনন্টেক ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেড নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

জানা গেছে, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটি বিতরণ শুরু করলে অভিযোগ ওঠে বাচ্চা হাঁস দেয়ায়। এক পর্যায় সুফলভোগীরা প্রাণিসম্পদ অফিস ঘেরাও করলে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ওয়ালী-উল ইসলাম ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন পালিয়ে যান।

উপজেলার সুফলভোগী সুবাস, বিজয়, জয়দেব, রমেশ, ধিরেন, রজব, শহিদুল, চঞ্চলসহ আরো অনেকে জানান, ‘প্রকল্পের আওতায় প্রথমে আমাদের হাঁস পালনে ট্রেনিং দেয়া হয়। ট্রেনিংয়ে বলা হয়, আমাদেরকে খাকি জাতের হাঁস দেয়া হবে। এখন এসে দেখছি, ২০টি বাচ্চা হাঁস দেয়া হচ্ছে। আমরা দিনমজুর, আজ ৩০০-৪০০ টাকা গাড়ি ভাড়া করে হাঁস নিতে এসেছি। হাঁস বিতরণে অনিয়ম করায় আমরা প্রাণিসম্পদ অফিস ঘেরাও করেছি।’

সোনাখাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু হেনা মোস্তফা কামাল রিপন বলেন, ‘আমার ইউনিয়নে মোট ২৭০ জন সুফলভোগীদের খাকি হাঁস দেয়ার কথা থাকলেও দিচ্ছে বাঁচ্চা হাঁস। অনিয়মের কথা শুনে আমি প্রাণিসম্পদ অফিসে এসে দেখি ২০টি হাঁস ১৬ কেজি ওজন হওয়ার কথা থাকলেও ২০টি হাঁসের ওজন পাঁচ থেকে সাত কেজি। এ ঘটনায় সুফলভোগীরা অফিস ঘেরাও করলে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ওয়ালি-উল ইসলাম অফিস থেকে পালিয়ে যান।’

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান জেনটেক ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেডকে ফোন দেয়া হলে প্রতিষ্ঠানের কোনো কর্মকর্তা ফোন ধরেননি।

উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের ভেটেনারি সার্জন ডা. আমিনুল ইসলাম বলেন, ২০টি হাঁসের ওজন পাঁচ-সাত কেজি হওয়ায় বিতরণ কার্যক্রম স্থগিত করে দেয়া হয়েছে।

জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. গৌরাঙ্গ কুমার তালুকদার বলেন, ‘অভিযোগের ভিত্তিতে আমি উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাকে বলে দিয়েছি যে ওজনে কম হলে হাঁসের বাচ্চাগুলো ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে ফেরত দিতে।’

রায়গঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৃপ্তি কণা মণ্ডল জানান, ‘আমাকে শুধু উদ্বোধনের দাওয়াত দেয়া হয়েছিল। উদ্বোধনের সময় আমি বড় হাঁস দিয়েই উদ্বোধন করে এসেছি।’


আরো সংবাদ



premium cement
ইতালির ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে পুরস্কৃত হলো ‘ময়না’ পাতাল রেলের আকর্ষণের অন্ত নেই লন্ডনের বিভিন্ন দেশের আশ্রয় প্রক্রিয়া খতিয়ে দেখবে জার্মানি বান্দরবানে ট্রাক গভীর খাদে পড়ে নিহত ১, আহত ৪ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বিএনপির ৬ নেতাকে দাওয়াত দিলো আ’লীগ দোয়ারাবাজারে নির্বাচনে পরাজিত হয়েও বন্যাদূর্গতদের পাশে সবার আগে লাইলী আক্তার লাকী একই বৃত্তে ঘুরপাক খাচ্ছে চামড়াশিল্প মেরে ফেললে নয়, জীবিত রাসেল ভাইপার ধরতে পারলে পুরস্কার দেবেন আ.লীগ নেতা বন্যায় বিদ্যুৎহীন সিলেটের ১২ হাজার গ্রাহক সিলেটের বন্যায় সাড়ে ১০ লাখ মানুষ পানিবন্দী আমাদের সকল কাজের মূল উদ্দেশ্য হলো মহান রবের সন্তুষ্টি অর্জন : মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান

সকল