১৬ জুন ২০২৪
`
শি জিনপিংয়ের সাথে কথা বলতে আগ্রহী বাইডেন, জানিয়েছে হোয়াইট হাউজ

পুতিনের ওপর চাপ বাড়াতে চীনকে যুক্তরাষ্ট্রের আহ্বান

-

ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধে রাশিয়ার ওপর চাপ সৃষ্টি করতে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। গতকাল মঙ্গলবার রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের সাথে যুদ্ধবিরতি নিয়ে বৈঠকের আগে চীনকে এমন আহ্বান জানান মার্কিন নিরাপত্তা পরিষদের মুখপাত্র জন কিরবি। তিনি বলেন, ‘শুধু যুদ্ধবিরতিই যথেষ্ট নয়। আমরা আশা করছি, ইউক্রেনীয় ভূখণ্ডে রাশিয়ার বোমাবর্ষণ, লোকালয়ে আগ্রাসন ও যুদ্ধাপরাধমূলক কর্মকাণ্ড থামিয়ে ইউক্রেন থেকে সেনা প্রত্যাহারে পুতিনের ওপর চাপ সৃষ্টি করবে বেইজিং।’
তিনি আরো বলেন, ‘সেনা প্রত্যাহার না করে মস্কোকে শুধু যুদ্ধবিরতির আহ্বান করা হলে দখলকৃত অঞ্চলগুলোতে অঘোষিতভাবে রাশিয়ার অবৈধ বিজয় মেনে নেয়া হয়। যা বেশ উদ্বেগের বিষয়।’ অবশ্য, ইউক্রেন সঙ্কট নিয়ে চীনের প্রস্তাবিত ১২ দফা শান্তিচুক্তি নিয়ে আলোচনায় আগ্রহ প্রকাশ করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন। পুতিন বলেন, ‘সমঝোতার জন্য আমরা সবসময়ই প্রস্তুত’। যুদ্ধ থামাতে গত মাসে শান্তি আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছিল চীন। তবে রুশ সেনা প্রত্যাহার নিয়ে এই পরিকল্পনায় নির্দিষ্ট করে কিছু বলেনি বেইজিং।
এ দিকে যেকোনো শান্তি আলোচনার ক্ষেত্রে পূর্বশর্ত হিসেবে রুশ সেনা প্রত্যাহারের কথা উল্লেখ করে আসছে ইউক্রেন। সোমবার তিন দিনের মস্কো সফরে যান চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। এর কিছুদিন আগেই যুদ্ধাপরাধের দায়ে পুতিনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছিল আন্তর্জাতিক ফৌজদারি আদালত। সম্প্রতি দেশ দু’টির প্রেসিডেন্ট পরস্পরকে প্রিয় মিত্র হিসেবে সম্বোধন করে আলোচনায় এসেছেন।
শি’র সাথে কথা বলতে চান বাইডেন : এ দিকে জন কিরবি জানিয়েছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন শি জিনপিংয়ের সাথে আবারো কথা বলতে আগ্রহী। তিনি আরো জানান, প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সাথে আলোচনার বিষয়ে এখনো কোনো সময় বা স্থান নির্ধারণ হয়নি। তবে উপযুক্ত সময়ে তা নির্ধারণ করতে চান মার্কিন কর্মকর্তরা। এ বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ যে, আমরা আলোচনার পথ সবসময় উন্মুক্ত রাখি, বিশেষ করে পরিস্থিতি যখন ঘোলাটে অথবা উত্তেজনা বিরাজ করে।
বাইডেন প্রশাসনের এই কর্মকর্তা আরো বলেন, বেইজিংয়ে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেনের স্থগিত হওয়া সফরের সময় পুনর্নিধারণ করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রের আকাশে চীনের বিশালাকৃতির বেলুন প্রবেশের ঘটনায় দুই দেশের কূটনৈতিক পর্যায়ে উত্তেজনা শুরু হয়। বেইজিং ওই বেলুনটিকে গুপ্তচরবৃত্তির কাজে ব্যবহার করছিল, এমন দাবি করে যুদ্ধবিমান দ্বারা গুলি করে ভূপাতিত করে ওয়াশিংটন। যদিও বেলুনটি আবহাওয়াসংশ্লিষ্ট কাজে ব্যবহার হচ্ছিল, কক্ষচ্যুত হয়ে যায় বলে দাবি করেন শি জিনপিং প্রশাসন।


আরো সংবাদ



premium cement