২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩০, ১৩ জিলহজ ১৪৪৫
`

মহৎভাবে বাঁচতে সংস্কৃতি চর্চার বিকল্প নেই -আ জ ম নাছির উদ্দিন

-


সমাজকে মাদক, সন্ত্রাস, অস্থিরতা ও সাম্প্রদায়িকতা মুক্ত করতে সংস্কৃতি চর্চাকে বেগবান করতে হবে। মনুষত্বের উন্মেষ ঘটাতে ও সভ্যতার যাত্রাকে অব্যাহত রাখতে কোমলমতি শিশুদের সংস্কৃতিবান করে গড়ে তোলা আমাদের দায়িত্ব। এ দায়িত্ব সমাজকে নিতে হবে, মা-বাবাকে নিতে হবে। পুরো সমাজ ব্যবস্থাকে তিনজনই পারে সুন্দর ও কল্যাণের পথে এগিয়ে নিতে। তারা হলেন- মা-বাবা ও শিক্ষক। মানবিক সমাজ গড়ার মাধ্যমে দেশের অর্থনীতিকে ও প্রগতির ধারাকে অব্যাহত রাখা আজকের দিনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।
গতকাল শুক্রবার সকালে চট্টগ্রাম থিয়েটার ইনস্টিটিউট হলে সঙ্গীত পরিষদের ৮৪তম বার্ষিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন এ কথা বলেন।
পরিষদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মেজর জেনারেল অব: প্রকৌশলী আবদুল মতিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দিনব্যাপী অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন আলিয়াঁস ফ্রঁসেন্স দ্য চট্টগ্রামের পরিচালক ব্রুনো লাক্রাম্প। পরিষদের পক্ষ থেকে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলা ফোক একাডেমির সাধারণ সম্পাদক ড. উত্তম কুমার সাহা ও বাংলাদেশের প্রবীণ উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত শিল্পী উস্তাদ নির্মলেন্দু চৌধুরীকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।


অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ বেতার চট্টগ্রাম কেন্দ্রের আঞ্চলিক পরিচালক এস এম মোস্তফা সরোয়ার। সম্মানিত অতিথি ছিলেন অদম্য আগামীর সভাপতি ও লেখক এম তারিকুল ইসলাম জুয়েল, বাংলাদেশ-ভারত ইতিহাস ও ঐতিহ্য পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম।
স্বাগত বক্তব্য রাখেন পরিষদের সম্পাদক তাপস হোড়। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সাবেক সদস্য অসীম কুমার রায়, প্রকৌশলী প্রদীপ দত্ত, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ দক্ষিণ জেলা কমিটির যুগ্ম সম্পাদক প্রদীপ কুমার দাশ, জামালখানের ওয়ার্ড কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, মীর নাজমুল আহসান রবিন, ওমর আলী ফয়সাল, সাজেদুল হক হাসান, বিশিষ্ট নজরুল সঙ্গীত শিল্পী নওসিন তাবাসুম ওমি। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন অধ্যাপক দেবাশিস রুদ্র।
অনুষ্ঠানে ২০২২ সালে পরিষদের বার্ষিক পরীক্ষায় বিভিন্ন বিষয়ে মেধা তালিকায় প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় স্থান অধিকারী শতাধিক ছাত্রছাত্রীদের সার্টিফিকেট ও পুরস্কার প্রদান করা হয়। আ জ ম নাছির উদ্দিনসহ সম্মানিত অতিথিবৃন্দ ছাত্রছাত্রীকে ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট প্রদান করেন।
আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে ‘জয় হোক জয় হোক-শান্তির জয় হোক, সাম্যের জয় হোক’ শীর্ষক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে পরিষদের ছাত্রছাত্রীরা সঙ্গীত পরিবেশন করেন।বিজ্ঞপ্তি।


আরো সংবাদ



premium cement