০৮ মার্চ ২০২১
`

রূপান্তরিত করোনা আরো প্রাণঘাতী হতে পারে : যুক্তরাজ্যের প্রধান বিজ্ঞানী

-

দক্ষিণ-পূর্ব ইংল্যান্ডে প্রথম চিহ্নিত হওয়া রূপান্তরিত করোনাভাইরাসটি মূল জাতের চেয়ে বেশি মৃত্যুর ঝুঁকি বহন করে বলে শুক্রবার জানিয়েছেন ব্রিটিশ সরকারের প্রধান বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টা।

প্যাট্রিক ভাল্যান্স এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘রূপান্তরিত করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের বাড়তি ঝুঁকি রয়েছে বলে প্রমাণ মিলেছে।’

তিনি বলেন, ভাইরাসটির আসল ধরনে আক্রান্ত ৬০ বছর বয়সী একজন ব্যক্তির ক্ষেত্রে গড় ঝুঁকি হলো যে সংক্রমিত ১০০০ মানুষের মধ্যে প্রায় ১০ জন দুর্ভাগ্যক্রমে মারা যেতে পারেন।

‘তবে নতুন ধরনের ভাইরাসে আক্রান্ত ১০০০ মানুষের মধ্যে প্রায় ১৩ বা ১৪ জনের মৃত্যুর সম্ভাবনা রয়েছে,’ বলেন তিনি।

তবে ভাল্যান্স জোর দিয়ে বলেছেন যে ‘এ সংক্রান্ত যে প্রমাণ রয়েছে তা এখনো শক্তিশালী নয়’ এবং এ বিষয়ে আরো গবেষণার প্রয়োজন আছে।

তিনি আরো বলেন, মূল করোনাভাইরাস জাতের তুলনায় নতুন ধরনটি আরো বেশি সংক্রমণযোগ্য। ‘এটি ৩০ থেকে ৭০ শতাংশ বেশি সংক্রমণযোগ্য বলে মনে হচ্ছে।’

নতুন ধরনের করোনাভাইরাসের সংক্রমণ হার ও তীব্রতা দেখার জন্য গবেষণা চলছে বলে জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কোভিড-১৯ বিষয়ক কারিগরি দলের প্রধান মারিয়া ভ্যান কেরকভ।

এর আগে, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ব্রাজিলে পাওয়া নতুন করোনার ধরনে সংক্রমিত ব্যক্তিদের যুক্তরাজ্যে প্রবেশ বন্ধে পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

এদিকে বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ২১ লাখ ৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। সেই সাথে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৯ কোটি ৮১ লাখ ২৯ হাজার অতিক্রম করেছে।

শনিবার সকাল ৯টার দিকে জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয় (জেএইচইউ) থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ২১ লাখ ৫ হাজার ৫৬ জনে।

এছাড়া, ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯ কোটি ৮১ লাখ ২৯ হাজার ৩৯৪ জনে।

চীনের উহানে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। গত ২০২০ সালের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে মহামারি ঘোষণা করে। এর আগে ২০ জানুয়ারি জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও।

করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এ পর্যন্ত দেশটিতে ২ কোটি ৪৮ লাখ ১৫ হাজার ৮৪ জন করোনায় আক্রান্ত এবং ৪ লাখ ১৩ হাজার ৯২৫ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

পৃথিবীর দ্বিতীয় জনবহুল দেশ ভারত রয়েছে করোনায় আক্রান্ত দেশের তালিকায় দ্বিতীয় এবং মৃত্যু নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে। ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল আক্রান্ত দেশের তালিকায় তৃতীয় স্থানে থাকলেও সর্বাধিক মৃতের সংখ্যায় রয়েছে দ্বিতীয়তে।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভারতে মোট আক্রান্ত প্রায় ১ কোটি ৬ লাখ ২৫ হাজার এবং মারা গেছেন ১ লাখ ৫৩ হাজার ৩২ জন। ব্রাজিলে মোট শনাক্ত রোগী ৮৭ লাখ ৫৩ হাজারের অধিক এবং মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ১৫ হাজার ২৪৩ জনের।



আরো সংবাদ


সাতক্ষীরায় ২ মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ৩ হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত ফরাসি বিলিয়নিয়ার এমপি পরমাণু সমঝোতা পুনর্বহাল করতে যুক্তরাষ্ট্রের সাথে আলোচনায় প্রস্তুত রাশিয়া তেজস্বিনী কাদম্বিনী রুহিয়ায় বাঁশঝাড় থেকে লাশ উদ্ধার তুরস্কে তৈরি সৌদি গোয়েন্দা ড্রোন ভূপাতিত করল হাউছি বিদ্রোহীরা ইকুয়াটোরিয়াল গিনিতে বিস্ফোরণে নিহত ২০, আহত ৬ শতাধিক ১৫০ রোহিঙ্গা মুসলমানকে আটক করেছে ভারত, ফেরত পাঠানোর আশঙ্কা সাতক্ষীরায় জমিজমা বিরোধে ভাইয়ের হাতে ভাই খুন করোনাভাইরাস : প্রথম রোগী শনাক্তের ১ বছর পর পরিস্থিতি এখন কেমন? সমস্ত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত কোনো আলোচনা হবে না : ইরান

সকল