১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪২৯, ১২ জিলহজ ১৪৪৫
`
পাঠ্যপুস্তকে বিতর্কিত বিষয়

দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জমিয়তে ওলামায়ে ইসলামের

জমিয়তে ওলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সংবাদ সম্মেলন : নয়া দিগন্ত -


‘পাঠ্যসূচি নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে’-শিক্ষামন্ত্রীর এমন বক্তব্য প্রত্যাখান করে জমিয়তে ওলামায়ে ইসলামের নেতারা বলেছেন, বর্তমান পাঠ্যপুস্তকে এমন অনেক বিষয়ের অনুপ্রবেশ ঘটানো হয়েছে যা এ দেশের মানুষের বোধ-বিশ্বাস ও সামাজিক দৃষ্টিভঙ্গির সাথে সম্পূর্ণ সাংঘর্ষিক। শিক্ষা সিলেবাসে ইসলামের অকাট্য বিধান পর্দাকে বিকৃতরূপে উপস্থাপন করা হয়েছে। সুকৌশলে চালানো হয়েছে সাংস্কৃতিক আগ্রাসন। ভারত উপমহাদেশে মুসলিম শাসনামলের গৌরবময় ইতিহাস অস্বীকার করা হয়েছে। গতকাল পুরানা পল্টন দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তারা এ কথা বলেন। এ সময় তারা পাঠ্যপুস্তক ইস্যুতে আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি গত শুক্রবার জুমার নামাজের পর প্রতিবাদ সভা ও বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করেন।


লিখিত বক্তব্যে জমিয়তের মহাসচিব মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী বলেন, সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্য আমাদের নজরে এসেছে এবং শিক্ষামন্ত্রণালয় থেকে এ সব অসঙ্গতির বিষয়ে আলাদা দু’টি কমিটিও গঠন করা হয়েছে। কিন্তু জটিল বিষয়গুলোকে শুধু অসঙ্গতি কিম্বা ভুল বলে উপস্থাপন করাটাও একটি চরম আশ্চর্যের বিষয়। আমরা মনে করি ঈমানী আকিদা-বিশ্বাস ও ইসলামী মূল্যবোধ পরিপন্থি বিষয়গুলো জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তকে যুক্ত হওয়া দেশের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ এবং পূর্বপরিকল্পিত। এ জন্য সরকারকে নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠন করে প্রকৃত দোষীদের চিহ্নিত করে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। একইসাথে জাতীয় শিক্ষা কারিকুলামে জাতীয় আগ্রাসন বন্ধ, অনৈসলামিক ও বিতর্কিত বিষয়গুলো বাতিল করে নতুন করে ঢেলে সাজাতে হবে এবং পাঠ্যপুস্তক বোর্ডে একাধিক বিশেষজ্ঞ আলেমকে যুক্ত করতে হবে। এর পাশাপাশি ইসলাম ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষাকে অধিক গুরুত্ব দিতে হবে।
সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, সিনিয়র সহ-সভাপতি মাওলানা ওবায়দুল্লাহ ফারুক, সহসভাপতি মাওলানা আব্দুর রব ইউসুফী, যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা বাহাউদ্দীন যাকারিয়া, মাওলানা লোকমান মাজহারী ও মাওলানা মতিউর রহমান গাজিপুরী, প্রচার সম্পাদক মাওলানা জয়নুল আবেদীন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি নাসীরুদ্দীন খান প্রমুখ।


লিখিত বক্তব্যে জমিয়ত মহাসচিব বলেন, ষষ্ঠ শ্রেণীর ‘ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান’ বইয়ে বিবর্তণবাদকে প্রমোট করা হয়েছে। দাড়িকে বোকার প্রতীক হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছে। সপ্তম শ্রেণীর ‘ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান’ বইয়ে ‘শরীফার গল্প’ আলোচনায় সমকামিতাসহ নানা ধরনের বিকৃত ও অবাধ যৌনাচারের দিকে কিশোরদের আকৃষ্ট করা হয়েছে। অবরোধবাসিনী কাহিনীতে পর্দা করা নারীদের নির্বোধ ও মূর্খ হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার প্রতিষ্ঠার জনদাবি মেনে নেয়া, দলীয় নেতাকর্মী ও কারাবন্দী আলেমদের দ্রুত মুক্তি, বিদ্যুৎ ও গ্যাসসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে আনা, পাচার হওয়া হাজার হাজার কোটি টাকা দেশে ফেরত আনা এবং কাদিয়ানি সম্প্রদায়কে রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণার দাবি জানান জমিয়ত নেতারা।

 


আরো সংবাদ



premium cement
তিস্তায় ২৬ যাত্রী নিয়ে নৌকাডুবি, নিখোঁজ ৮ শাজাহানপুরে ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নারী নিহত ব্যক্তিগত চেম্বার থেকে শরীয়তপুর জেলা বিএনপি নেতার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার ফেসবুকে মহানবী সা:-কে নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করায় হিন্দু যুবক গ্রেফতার এএইচএফ কাপ হকিতে বাংলাদেশের পুরুষদের তৃতীয় জয়, নারী দলের প্রথম হার নৌকাডুবিতে নিখোঁজ অভিবাসীর খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে ইতালির কোস্টগার্ড দেড়যুগ পর ‘সুপার এইট’ খেলতে নামছে বাংলাদেশ বাগেরহাটে বজ্রপাতে ২ কৃষকের মৃত্যু, আহত ১ বন্যায় মৌলভীবাজারের ২ লাখ মানুষ পানিবন্দী প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের কর্মকর্তা সেই আজিজুল সাময়িক বরখাস্ত পৃথিবীর উদ্বাস্ত সমস্যা আজো ভয়াবহ ও অমানবিক : মির্জা ফখরুল

সকল