১৬ জুন ২০২৪
`

মিরসরাইয়ের জোরারগঞ্জ-মুহুরী প্রজেক্ট সড়ক খানাখন্দে ভরা

মিরসরাইয়ের জোরারগঞ্জ-মুহুরী প্রজেক্ট সড়কের অবস্থা : নয়া দিগন্ত -

চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার খুব গুরুত্বপূর্ণ ও ব্যস্ততম একটি সড়ক হচ্ছে জোরারগঞ্জ-মুহুরী প্রজেক্ট সড়ক। প্রতিদিন এ সড়ক দিয়ে শত শত গাড়ি যাতায়াত করে থাকে। কিন্তু টেকসই সংস্কার না করায় এ সড়কের কার্পেটিং উঠে গিয়ে ছোট-বড় অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। আর এ সড়কে চলাচলকারী হাজার হাজার মানুষ চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।
সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, ১৩ কিলোমিটার সড়কটির প্রায় ৫-৭ কিলোমিটারের অংশে ভেঙে গিয়ে ছোট-বড় গর্তে ভরে গেছে। সড়কের এ অস্থার কারণে ছোট-বড় পিকআপ, বাস-ট্রাক, অ্যাম্বুল্যান্স, কার-মাইক্রোবাস, স্কুলবাস, সিএনজি অটোরিকশা স্বাভাবিকভাবে চলতে পারছে না। সড়কের বিভিন্ন স্থানে পানি জমে থাকায় মনে হয় একটু আগেই বৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়া সড়কে থাকা পানি নিষ্কাশনের সুবিধা না থাকায় পানি জমে বেশি ক্ষতি হচ্ছে। এ দিকে শিক্ষার্থীরা যথাসময়ে বিদ্যালয়ে পৌঁছাতে হিমশিম খাচ্ছে।
জানা গেছে, জনগুরুত্বপূর্ণ এ সড়ক দিয়ে চট্টগ্রামের সর্ববৃহৎ মৎস্য জোন মুহুরী প্রকল্পসহ চার ইউনিয়ন ও ফেনী জেলার সোনাগাজী উপজেলার হাজার হাজার মানুষের যাতায়াত। এ ছাড়াও প্রতিদিন শত শত শিক্ষার্থী জোরারগঞ্জের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাতায়াত করে। এ এলাকার মানুষ হাসপাতাল, দৈনন্দিন বাজার ও উপজেলা সদরে যাতায়াত করেন এ সড়ক হয়ে।
সড়কের ভাঙাচোরার কারণ হিসেবে দেখা যায়, চট্টগ্রামের সর্ববৃহৎ মৎস্য প্রকল্পের ‘মুহুরী প্রজেক্ট’ দীঘিগুলোতে প্রতিরাতে মাছ বাজারজাত করতে এ সড়কে ড্রামে পানি নিয়ে শত শত পিকআপ ও ট্রাক চলাচল করে। ফলে রাস্তা কোনোভাবেই টেকসই হচ্ছে না।
পর্যটন স্পট মুহুরী প্রজেক্টে ঘুরতে আসা মাসুদ চৌধুরী বলেন, মুহুরী প্রজেক্ট অনেক সুন্দর স্পট। আমি পরিবার নিয়ে এখানে ঘুরতে এসেছি। আসতে অনেক কষ্ট হয়েছে। সড়ক এমন থাকলে মানুষ ঘুরতে আসার আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে।
ওচমানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মফিজুল হক বলেন, সড়কের কারণে এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায় যেতে মন চায় না। আমার অন্য এলাকায় গেলে এলাকায় আসতে মন চায় না। সড়ক সংস্কারের বিষয়ে উপজেলার সমন্বয় সভায় কয়েকবার আলোচনা করেছি।
মিরসরাই উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী রনি সাহা বলেন, জোরারগঞ্জ-টেকেরহাট সড়ক পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতাধীন। বারবার এ সড়ক নষ্ট হয় মাছবোঝাই গাড়ি চলাচলের কারণে। মাছের ড্রামে কেমিক্যাল যুক্ত যে পানি ব্যবহার করা হয়, তা রাস্তায় পড়ে দ্রুত নষ্ট হয়। এ ছাড়া এ সড়ক যেভাবে টেকসইভাবে সংস্কার করা প্রয়োজন, তা হচ্ছে না।

 


আরো সংবাদ



premium cement