১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১, ৭ মহররম ১৪৪৬
`

মরক্কোতে ভয়াবহ ভূমিকম্প : নিহত বেড়ে ১০৩৭

মরক্কোয় ভয়াবহ ভূমিকম্পে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। - ছবি : আলজাজিরা

মরক্কোতে ৭.২ মাত্রার একটি শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এ ভূমিকম্পে ১ হাজার ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন আরো ১ হাজার ২০০ জনেরও বেশি। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন। 

শুক্রবার (৮ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় রাত ১১টার দিকে শক্তিশালী এ ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে দেশটি। যা ২০ সেকেন্ড পর্যন্ত স্থায়ী ছিল। প্রাথমিকভাবে নিহতের সংখ্যা বলা হয়েছিল ৩০০, পরে যথাক্রমে ৬৩২ ও ৮২০ বলে জানানো হয়। সবশেষ ১,০৩৭ জন বলে জানানো হয়। 

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক কেন্দ্র ইউএসজিএস জানিয়েছে, ভূমিকম্পটির কেন্দ্র ছিল এটলাস পর্বতমালার ওকাইমেডেনের স্কি রিসোর্টের কাছে। এটি মরক্কোর চতুর্থ বৃহত্তম নগরী মারাকেশ থেকে ৭৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।

মরক্কোর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শনিবার সকালে জানায়, বেশির ভাগ ক্ষতি হয়েছে নগরী ও শহরের বাইরের এলাকায়। বিশেষ করে ঐতিহাসিক মারাকেশ নগরীর আশপাশে সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সামাজিক মাধ্যম এক্স-এ ক্ষতিগ্রস্ত ভবন ও রাস্তায় ধ্বংসস্তূপের ভিডিও দেখা যাচ্ছে, তবে এগুলোর সত্যতা সম্পর্কে এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। বিশেষ করে ভবন পড়ে যাচ্ছে এমন কিছু ভিডিও দেখা গেলেও এগুলো সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

‘মানুষ ভীত ও আতঙ্কগ্রস্ত। শিশুরা কাঁদছে ও তাদের অভিভাবকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছে,’ আব্দেল হাক আল আমরানি নামে এক ব্যক্তি বলছিলেন সংবাদ সংস্থা এএফপিকে।

তিনি জানান, বিদ্যুৎ ও ফোন সংযোগ প্রায় দশ মিনিটের মতো বন্ধ ছিল। এএফপি ধ্বংসস্তূপের মধ্যে একটি পরিবারের আটকে পড়ার খবর দিয়েছে। এছাড়া অনেক মানুষকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল এটলাস পর্বতমালার অনেক দূরের একটি এলাকায় হলেও ভূকম্পন অনুভূত হয়েছে সেখান থেকে ৩৫০ কিলোমিটার দূরে রাজধানী রাবাত ছাড়াও কাসাব্ল্যাংকা ও এসাউইরাতে।

উৎপত্তিস্থলের কাছে পর্বত এলাকার সাধারণ ভবনগুলো হয়তো টিকে নেই এবং অনেক দূরের এলাকা হওয়ার কারণে ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণে সময় লাগতে পারে।

সূত্র : আলজাজিরা ও এএফপি


আরো সংবাদ



premium cement