২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩০, ১৪ জিলহজ ১৪৪৫
`

ভারতের প্রতিশোধ : এবার কানাডার কূটনীতিক বহিষ্কার

- ছবি : সংগৃহীত

এক শীর্ষ কানাডিয়ান কূটনীতিককে পাঁচ দিনের মধ্যে দেশ ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে ভারত। কানাডায় ভারতীয় কূটনীতিককে বহিষ্কারের কয়েক ঘণ্টা পর প্রতিশোধমূলক এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি। বহিষ্কৃত কূটনীতিক ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা ‘র’-এর অ্যাজেন্ট বলে অভিযোগ করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, কানাডার মন্দিরে শিখ নেতা হত্যায় তার সম্পৃক্ততা রয়েছে।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে কানাডিয়ান কূটনীতিককে দেশ ছাড়া নির্দেশ দেয়ার বিষয়টি জানানো হয়েছে।

মঙ্গলবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে কানাডিয়ান কূটনীতিকদের হস্তক্ষেপ এবং ভারত বিরোধী কার্যকলাপে তাদের সম্পৃক্ততার ক্রমবর্ধমান উদ্বেগ প্রতিফলিত হয়েছে।

এদিকে কানাডা শিখ অ্যাক্টিভিস্ট হরদীপ সিং নিজ্জর হত্যায় ভারতের সম্ভাব্য সম্পৃক্ততা নিয়ে তদন্ত করবে বলে প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো জানিয়েছেন। তিনি এ ব্যাপারে সহযোগিতা করার জন্য ভারত সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

ট্রুডো সোমবার রাতে পার্লামেন্টে দেয়া এক বিবৃতিতে বলেন, ‘কানাডার মাটিতে কানাডার কোনো নাগরিককে হত্যায় কোনো বিদেশী সরকারের সম্পৃক্ততা আমাদের সার্বভৌমত্বের অগ্রহণযোগ্য লঙ্ঘন।’

তিনি বলেন, কানাডার নিরাপত্তা সংস্থাগুলো চলতি বছরের জুনে শিখ-কানাডিয়ান অ্যাক্টিভিস্ট নিহতের সাথে ভারত সরকারের অ্যাজেন্টদের সম্পৃক্ততার নিয়ে তদন্ত চালাচ্ছে।

হরদীপ সিং নিজ্জর ১৮ জুন সারের একটি শিখ মন্দিরে গুলিতে নিহত হন। ব্রিটিশ কলম্বিয়া প্রদেশের ওই ঘটনা ব্যাপক প্রশ্ন ও নিন্দার সৃষ্টি হয়। এ ব্যাপারে আল জাজিরার পক্ষ থেকে কানাডার রাজধানী অটোয় ভারতীয় হাই কমিশনে মন্তব্য জানতে চাইলেও তারা তাতে সাড়া দেয়নি।

উল্লেখ্য, নয়া দিল্লিতে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত জি২০ শীর্ষ সম্মেলনের ফাঁকে ট্রুডোর সাথে আলোচনার সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী কানাডায় শিখ বিক্ষোভ নিয়ে ‘গভীর উদ্বেগ’ প্রকাশ করেছিলেন।
সূত্র : আল জাজিরা


আরো সংবাদ



premium cement

সকল