২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৫ শাবান ১৪৪৫
`

অমর্ত্য সেনের মন্তব্যের পর প্রতিক্রিয়ায় যা বললেন মমতা

অমর্ত্য সেন ও মমতা ব্যানার্জি - ছবি : সংগৃহীত

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির প্রধানমন্ত্রী হওয়ার ‘যোগ্যতা আছে’ বলে একটি সংবাদসংস্থাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন। তাতে অনেকেই চাপে পড়ে গেছেন। বিশেষ করে কেন্দ্রীয় ক্ষমতাসীন দল বিজেপি।

তবে মমতা ব্যানার্জি নিজের প্রধানমন্ত্রী হওয়া নিয়ে কিছু বলেননি। শুধু বরেণ্য এ অর্থনীতিবিদের পর্যবেক্ষণকে স্বাগত জানিয়ে তিনি বলেছেন, ‘তার উপদেশ আমাদের কাছে আদেশ।’ অর্থাৎ ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে তিনি অলআউট খেলবেন বিজেপিকে হঠাতে এটা তার মন্তব্য থেকে স্পষ্ট।

ঠিক কী বলেছেন নোবেলজয়ী অমর্ত্য সেন?‌
বিজেপি যখন লোকসভা নির্বাচন নিয়ে ঘুঁটি সাজাতে শুরু করেছেন তখন বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন নোবেলজয়ী এ অর্থনীতিবিদ। সংবাদসংস্থা পিটিআইকে দেয়া সাক্ষাৎকারে অমর্ত্য সেন বলেন, ‘এই নয় যে মমতা ব্যানার্জির যোগ্যতা নেই। অবশ্যই তার যোগ্যতা রয়েছে দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার। কিন্তু বিজেপির বিরুদ্ধে মানুষের ক্ষোভকে তিনি কতটা টানতে পারবেন সেটাই সবচেয়ে বড় বিষয়। এখনো সেটা দেখা যাচ্ছে না। তাকে বিজেপির দেশ বিভাজনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নেতৃত্বে থাকতে হবে।’

মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিক্রিয়া ঠিক কী?‌
অমর্ত্য সেনের মন্তব্য নিয়ে যখন গোটা দেশে আলোচনা শুরু হয়েছে তখন মমতা ব্যানার্জি বলেন, ‘অমর্ত্য সেন বিশ্ববরেণ্য পণ্ডিত। আমাদের অন্যতম গর্ব। তার পর্যবেক্ষণ আমাদের পথ দেখায়। তার উপদেশ আমাদের কাছে আদেশ। দেশের এখন যা পরিস্থিতি সে সম্পর্কে তাঁর পর্যবেক্ষণ ও মূল্যায়ন নিশ্চয়ই সবাইকে গুরুত্ব দিয়ে ভাবতে হবে। বিজেপি শুধু যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর উপরেই আঘাত হানছে না। যে সব রাজ্যে বিরোধী দলের সরকার রয়েছে তারা সেখানে দিল্লির ক্ষমতা কাজে লাগিয়ে আক্রমণ হানার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে অমর্ত্য সেন তাঁর পর্যবেক্ষণের মধ্যে বিরোধী দলগুলির আগামী কর্তব্য সম্পর্কেও কিছুটা দিকনির্দেশ করেছেন।’‌

কী বলছে বিরোধী দলগুলো?‌
এই মন্তব্য সকলকেই চাপে ফেলে দেয়ায় কেউ সমর্থন করেননি অমর্ত্য সেনকে। বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘অমর্ত্য সেন যদি এই স্বপ্ন দেখেন তবে তাকে বলব, আপনি মমতাকে আশীর্বাদ করুন।’

সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, ‘সারা দেশের রাজনীতিতে যে কয়েকটা নাম নিয়ে প্রচার ও আলোচনা হয়, তার মধ্যে নরেন্দ্র মোদি, মমতা ব্যানার্জি অবশ্যই আছেন। তার কারণ অর্থ আর প্রচার।’‌

কংগ্রেস নেতা প্রদীপ ভট্টাচার্যের মন্তব্য, ‘প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন মমতাও দেখেন। অমর্ত্যবাবু ঠিকই বলেছেন যে বিজেপির বিরুদ্ধে মানুষের ক্ষোভ এবং বিভিন্ন শক্তিকে তৃণমূল নেত্রী এক জায়গায় আনতে পারবেন কি না, সেটাই প্রশ্ন।’

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস


আরো সংবাদ



premium cement
মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণায়ের নাম ‘নারী ও শিশু বিষয়ক’ মন্ত্রণালয় রাখার সুপারিশ ফরিদপুরে হত্যা মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন অশ্বিন-কুলদীপের ঘূর্ণিতে সিরিজ জয় থেকে ১৫২ রান দূরে ভারত ফরিদপুরে মাদক মামলায় নারীর যাবজ্জীবন প্রাথমিকে ১০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে ‘ছোট্ট’ জ্যোতির মুখোমুখি বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা পুরুষ! টাঙ্গাইল শাড়ির জিআই নিবন্ধন বিষয়ে বাংলাদেশের করণীয় বিষয়ে মত বিনিময় সভা সন্দেহজনক লেনদেনের অর্থ কোথায় যায়! পাকিস্তানে অধিবেশনের আগে ‘সংরক্ষিত আসন বণ্টন’ চান প্রেসিডেন্ট আলভি ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে আগামীকাল মুখোমুখি হবে কুমিল্লা-রংপুর নোয়াখালীতে ভোটের রাতে গৃহবধূকে দলবদ্ধ ধর্ষণ : সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার

সকল