১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১, ৭ মহররম ১৪৪৬
`

জয়পুরহাটে হত্যা মামলায় বাবা-ছেলেসহ ১০ জনের যাবজ্জীবন

জয়পুরহাটে হত্যা মামলায় বাবা-ছেলেসহ ১০ জনের যাবজ্জীবন - নয়া দিগন্ত

জয়পুরহাটে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে কৃষক সামছুল ইসলাম হত্যা মামলায় বাবা-ছেলেসহ ১০ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই সাথে তাদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরো দু’বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

সোমবার দুপুরে অতিরিক্ত দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক নুরুল ইসলাম এ রায় দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলা জজ আদালতের সরকারি সহকারী কৌঁসুলি আবু নাছিম মো: শামীমুল ইমাম শামীম।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার মহব্বতপুর গ্রামের মরহুম হাফেজের ছেলে ছাবদুল, ছাবদুলের চার ছেলে হেলাল ওরফে হেলু, আলম, ইদ্রিস ও রেজাউল, ছাবদুলের স্ত্রী ফাতেমা, আলমের স্ত্রী ফারজানা, হেলালের স্ত্রী লিলিফা, আমেজ উদ্দীনের ছেলে হেলাল উদ্দীন ও আক্কেলপুর উপজেলার রুকিন্দীপুর গ্রামের জিয়াউল হকের স্ত্রী ফুত্তি বেগম। এছাড়া অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় মামলা থেকে দু’জনকে খালাশ দেয়া হয়।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ক্ষেতলাল উপজেলার মহব্বতপুর গ্রামের ছাবদুলের কাছ থেকে প্রায় ৪০ শতক জমি কবলা করে প্রায় ২১ বছর ধরে ভোগ দখল করে আসছিলেন একই গ্রামের কৃষক সামছুল ইসলাম। পরে সেই জমি নিয়ে আসামিরা তার সাথে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েন। ২০১১ সালের ৩১ অক্টোবর দুপুরে সামছুল ও তার বাবা সেই জমিতে আলুর বীজ বপণ করছিলেন। ওই সময় আসামিরা পরিকল্পিতভাবে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সেখানে গিয়ে সামছুল ও তার বাবাকে মারধর করে আহত করেন। এ সময় সামছুলকে গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে জয়পুরহাট সদর, পরে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল এবং সেখান থেকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে বাড়িতে নেয়া হলে সেখানে ২০১২ সালের ২০ জানুয়ারি তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় সামছুল ইসলামের স্ত্রী মেরিনা বেগম ক্ষেতলাল থানায় মামলা দায়ের করলে আদালত এ রায় দেয়।


আরো সংবাদ



premium cement