২৮ মার্চ ২০২০

শিশু সায়মাকে ধর্ষণ ও হত্যা মামলার আত্মপক্ষ শুনানি ২৩ ফেব্রুয়ারি

-

ঢাকার ওয়ারীতে সিলভারডেল স্কুলের নার্সারির ছাত্রী সামিয়া আফরিন সায়মাকে (৭) ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে করা মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হয়েছে।
গতকাল বুধবার ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক কাজী আব্দুল হান্নানের আদালতে তিন জনের সাক্ষ্য দেয়ার মধ্য দিয়ে মামলাটির সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ করেছে রাষ্ট্রপক্ষ। এদিন সাক্ষ্য দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) ওয়ারী জোনাল টিম (নিরস্ত্র) মো: আরজুন, প্রথম তদন্ত কর্মকর্তা ওয়ারী থানার এসআই হারুন অর রশিদ ও ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক সোহেল মাহমুদ।
আদালতে তিনজন সাক্ষ্য দেয়ার রেকর্ড করে আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি আসামির আত্মপক্ষ শুনানির তারিখ ধার্য করেন।
সাক্ষ্য গ্রহণকালে হারুন অর রশিদকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। মামলাটিতে মোট ১৫ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন আদালত। মামলার বাদি সামিয়ার বাবা আব্দুস সালাম এ তথ্য জানান। গত ২ জানুয়ারি মামলার একমাত্র আসামি হারুনের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন একই আদালত।
গত বছর ৩০ অক্টোবর হারুনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) ওয়ারী জোনাল টিম (নিরস্ত্র) মো: আরজুন।
শিশু সামিয়াকে ধর্ষণ-হত্যার ঘটনায় তার বাবা আব্দুস সালাম গত ৬ জুলাই ওয়ারী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। গত ৭ জুলাই কুমিল্লার ডাবরডাঙা এলাকা থেকে আসামি হারুন অর রশিদকে গ্রেফতার করা হয়। পরদিন আদালতে দোষ স্বীকার করে জবানবন্দী দেন হারুন।


আরো সংবাদ