১৮ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১, ১১ মহররম ১৪৪৬
`

নির্বাচনের বছরে যে কারণে ভোটারদের মেজাজ খারাপ!

আর্জেন্টিনায় প্রেসিডেন্ট হাভিয়ের মিলেইয়ের নীতির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ শিক্ষার্থীদের - ছবি : সংগৃহীত

পূর্ব লন্ডনের একটি কমিউনিটি সেন্টারে প্রায় ২০ জন পুরুষ তাদের নিয়মিত দুপুরের খাবারের আড্ডায় মিলিত হয়। নানা রকমের কফি এবং চায়ের মগে চুমুক দিতে দিতে তারা বিশ্বের গণতান্ত্রিক দেশগুলোতে ক্রমশ জনপ্রিয় একটি আলাপচারিতায় মগ্ন হলো, তাদের সরকার নিয়ে অভিযোগ।

তারা দেশের নেতৃত্ব থেকে বিচ্ছিন্ন বোধ করছে, মূলত দেশের ধনী প্রধানমন্ত্রী এবং তাদের সংসদ সদস্যদের কাছ থেকে।

৬৫ বছর বয়সী ব্যারি স্ট্র্যাডলিং বলেন, ‘এটা এমন যে মনে হবে আপনারা দ্বিতীয় শ্রেণীর মানুষ। আমাদের সংসদ সদস্যরা জনগণের প্রতিনিধিত্ব করেন না। রাজনৈতিক নেতারা বুঝতে পারছেন না আমরা কিসের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। তারা কি মানুষের কথা জানতে চান? আমার তো মনে হয় না তারা তা করে।’

জাকার্তার একটি কফি শপে ৪৬ বছর বয়সী নি ওয়ায়ান সুরিয়াতিনি সম্প্রতি হয়ে যাওয়া নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন। নির্বাচনে ইন্দোনেশিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্টের ছেলে দেশের ভাইস প্রেসিডেন্ট হয়েছেন এবং এটা রোধ করেতে বিরোধী দলগুলো তেমন একটা চেষ্টা করেছে বলে মনে হয়নি।

সুরেয়াতিনি রাজনীতিবিদদের সম্পর্কে বলেন, ‘তাদের বিশ্বাস করা কঠিন। কারণ তারা কেবলমাত্র তাদের লক্ষ্যে পৌঁছাতে চায়। যতক্ষণ না তারা তাদের লক্ষ্য অর্জন ততক্ষণ তারা অন্য সবকিছু ভুলে যাবে।’

এবং যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডো রাজ্যের গ্রিলিতে পরিপাট্যহীন একটি কারুপণ্যের দোকানের মালিক ৫৮ বছর বয়সী স্যালি অটো প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং ২০২০ সালে তিনি যে ব্যক্তিকে পরাজিত করেছিলেন সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যকার আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে ভয়ে আছেন।

অটো বলেন, ‘আমি মনে করি আমরা যেখানে ছিলাম সেখানে ফিরে এসেছি। দু’জনই একরকম, প্রার্থী নির্বাচন ভালো হয়নি।’

বিশ্বব্যাপী ভোটের উৎসব
এ বছরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনগুলোতে বিশ্বের অর্ধেক মানুষ ভোট দিচ্ছে এবং ভোটাদের মেজাজ একেবারে খারাপ। দক্ষিণ কোরিয়া থেকে আর্জেন্টিনা, একের পর এক নির্বাচনে ক্ষমতাচ্যুত হয়েছেন ক্ষমতাসীনরা।

হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকারবিষয়ক বিভাগের অধ্যাপক স্টিভেন লেভিটস্কির হিসাব অনুযায়ী, গত সপ্তাহান্তে মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগ পর্যন্ত কেবল ল্যাটিন আমেরিকাতেই নেতারা ও তাদের দলগুলো টানা ২০টি নির্বাচনে পরাজিত হয়েছে।

ওয়াশিংটন ডিসির কাউন্সিল অন ফরেন রিলেশনসের সিনিয়র ফেলো ম্যাথিয়াস ম্যাথিজ বলেন, ‘অনেক দিক থেকেই আমরা আগে কখন এত ভালো ছিলাম না। কিন্তু তারপরও মানুষ অন্ত্যন্ত অসন্তুষ্ট।’

এই অসন্তুষ্টির কারণ অনেক, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমস্যাকে বড় করে দেখানোর ক্ষমতা থেকে শুরু করে করোনাভাইরাস মহামারী থেকে বেদনাদায়কভাবে সেরে ওঠা বা বিশ্বায়নের ফলে সৃষ্ট অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক পরিবর্তনের দিকে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া পর্যন্ত।

রাজনীতির বিরুদ্ধে মনোভাব
যদিও ইউরোপের মতো জায়গায় পপুলিস্ট ডানপন্থীরা বেশ কয়েকটি দেশে এগিয়ে আছে, তবে বিশ্বব্যাপী অসন্তুষের ক্ষেত্রে আদর্শিক সামঞ্জস্যতা তেমন একটা নেই।

সম্প্রতি ২৪টি গণতান্ত্রিক দেশে পিউ-এর জরিপে দেখা গেছে, ৭৪ শতাংশ উত্তরদাতা বলেছেন যে তারা মনে করেন না যে রাজনীতিবিদরা তাদের মতো লোকেরা কী ভাবছেন তা নিয়ে তারা চিন্তা করেন এবং ৪২ শতাংশ বলেছেন যে কোনো রাজনৈতিক দল তাদের দৃষ্টিভঙ্গির প্রতিনিধিত্ব করে না।

পিউ’স গ্লোবাল এটিচিউডস রিসার্চের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রিচার্ড উইক বলেন, ‘এটা অর্থনীতি ও সংস্কৃতির বিষয়, তবে এটি রাজনীতির কার্যকারিতা সম্পর্কিতও। এটা এমন এক পরিস্থিতির দিকে রাজনীতিকে নিয়ে যেতে পারে যখন দু’পক্ষই মনে করে অপরের ক্ষতি মানে নিজের লাভ। মানুষ প্রতিপক্ষর তরফ থেকে জীবন-মরণ হুমকি দেখতে পায়, যা মানুষকে গণতন্ত্র সম্পর্কে অসন্তুষ্ট করে তোল।’

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিশ্বব্যাপী নির্বাচিত নেতাদের নিয়ে ক্ষোভের যে প্রবণতা, তার একটি উল্লেখযোগ্য ব্যতিক্রম আছে। যেসব দেশে নেতারা অ্যান্টি-এস্টাবলিশম্যান্ট বা প্রতিষ্ঠানবিরোধী, জনপ্রিয় এবং শক্তিশালী।

লেভিটস্কি বলেন, ‘সিস্টেম-বিরোধী, পপুলিস্ট ব্যক্তিত্বরা অতীতের চেয়ে বেশি জয়ী হচ্ছেন। তারা কোনো আন্দোলনের প্রতিনিধিত্ব করে কিনা তা আমার কাছে স্পষ্ট নয়।’

ল্যাটিন আমেরিকায় ধারা ভঙ্গ
মেক্সিকোতে রোববার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বামপন্থী প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাদরের নিজ হাতে বাছাই করা উত্তরসূরি হিসেবে ক্লদিয়া শেইনবম জয়ী হন। এর ফলে ল্যাটিন আমেরিকায় ক্ষমতাসীন নেতাদের দলগুলোর পরাজয়ের ধারা ব্যাহত হলো।

আর্জেন্টিনায় নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট হাভিয়ের মিলেই, যিনি নিজেকে ‘অ্যানার্কো-ক্যাপিটালিস্ট’ বলে দাবি করেন এবং ভক্তরা যাকে ম্যাডম্যান বা ‘পাগল’ বলে অভিহিত করেছে, তার কৃচ্ছ্রসাধন এবং নিয়ন্ত্রণমুক্ত সংস্কারের পরে দেশটিতে ভেঙে পরা অর্থনৈতিক সমস্যা চলতে থাকা সত্ত্বেও সেখানে তিনি জনপ্রিয়।

৩৭ বছর বয়সী প্রকৌশলী সেবাস্তিয়ান স্প্রোভিয়েরো বলেন, ‘আমি কখনোই রাজনীতিতে আগ্রহী ছিলাম না। কারণ কোনো কিছুই বদলায়নি। এখন তা বদলাচ্ছে।’

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল গণতন্ত্রকে ক্ষতিগ্রস্ত করার জন্য সমালোচিত হয়েছেন। তবে পিউ জরিপে দেখা গেছে, যেসব দেশে জরীপ করা হয়েছে, তার মধ্যে ভারতে আরো বেশি কর্তৃত্ববাদী সরকার ব্যবস্থার প্রতি সমর্থন সবচেয়ে বেশি। সেখানে দুই-তৃতীয়াংশ উত্তরদাতা একটি শক্তিশালী নেতাকে সমর্থন করেছেন।

এ সত্ত্বেও মোদির মতো কর্তৃত্ববাদী সরকারকেও স্থিতাবস্থা নিয়ে অসন্তোষ মোকাবেলা করতে হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ জুন) ঘোষিত জাতীয় নির্বাচনের ফলাফলে দৃশ্যত মোদি ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তৃতীয় মেয়াদে জয়ী হয়েছেন।

তবে তার রক্ষণশীল হিন্দু জাতীয়তাবাদী দলের ফলাফল ছিল হতাশাজনক এবং সরকার গঠনের জন্য তার অন্য দলের সমর্থন প্রয়োজন।

‘ফ্রিডম ইন্ডেক্স’ নিম্নমুখী
বিশ্বব্যাপী ক্ষমতাসীন-বিরোধী মনোভাব এবং প্রতিষ্ঠান-বিরোধী পপুলিস্টদের সাফল্য গণতন্ত্রের জন্য একটি সতর্ক সঙ্কেত। পিউ জরিপে দেখেছে যে বিশ্বজুড়ে গণতান্ত্রিত সরকার ব্যবস্থা এখনো কাম্য হলেও এর আবেদন হ্রাস পেয়েছে।

ওয়াশিংটন ডিসিভিত্তিক সংগঠন ফ্রিডম হাউস যারা গণতন্ত্রকে উৎসাহিত করে থাকে তারা বলছে, তাদের ‘ফ্রিডম ইনডেক্স’ অনুযায়ী বিশ্বব্যাপী গণতান্ত্রিক পরিস্থিতি টানা ১৮ বছর ধরে নিম্নগামী।

ফ্রিডম হাউসের ভাইস প্রেসিডেন্ট আদ্রিয়ান শাহবাজ এই সমর্থন কমে যাওয়ার কারণ হিসেবে ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে ‘সন্ত্রাসী’ হামলা, ২০০৮-০৯ সালের বৈশ্বিক মন্দা এবং করোনাভাইরাস মহামারীসহ শতাব্দীর শুরু থেকে ধারাবাহিকভাবে একের পর এক সঙ্কটকে দায়ী করেন।

তিনি আরো বলেন, গণতান্ত্রিক রাজনীতিতে, বিশেষত ইউরোপ এবং যুক্তরাষ্ট্রে ট্রান্সজেন্ডার নীতি এবং অভিবাসনের মতো ইস্যুতে ক্রমান্বয়ে মনোযোগ বাড়ার ফলে এই চাপকে আরো বাড়িয়ে তুলেছে।

শাহবাজ বলেন, ‘গণতান্ত্রিক সমাজে মূল ফাটলগুলো অর্থনৈতিক বিষয়ের চেয়েও আইডেন্টি বা জেন্ডার বা ব্যক্তি-পরিচয় ইস্যুকে ঘিরে রয়েছে। কেবল এটাই খুব ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে কারণ গণতন্ত্র একটি নাগরিক পরিচয়ের ওপর নির্ভর করে যা ট্রাইবাল বা সম্প্রদায়ভিত্তিক পরিচয়ের চাইতেও অনেক গভীর।’
সূত্র : ভয়েস অব আমেরিকা


আরো সংবাদ



premium cement
করোনায় আক্রান্ত বাইডেন রাজধানীতে ১৬ প্লাটুন আনসার ব্যাটালিয়ন সদস্য মোতায়েন সাংবাদিকদের ওপর হামলায় গভীর উদ্বেগ বিএফইউজে ও ডিইউজের বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের প্রতি জামায়াতে ইসলামীর সমর্থন ঘোষণা আজ সারাদেশে 'কমপ্লিট শাটডাউন' ‘যুদ্ধ শুরু হলে নিশ্চিতভাবে লেবানন হবে ইসরাইলের জন্য দোযখ’ ট্রাম্পকে হত্যাচেষ্টার ছবি যেভাবে নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে পারে? ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান ইরানের কোটাবিরোধী আন্দোলনে রক্তাক্ত সহিংসতায় চট্টগ্রামে ৪ মামলা শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার আহবান পুলিশ সদর দফতরের কোটা আন্দোলনকারী ৬ শিক্ষার্থী হত্যার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে হেফাজতে ইসলাম

সকল