২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৭ বৈশাখ ১৪৩১, ১০ শাওয়াল ১৪৪৫
`

গাজায় বিমান পথে সাহায্য পাঠাবে যুক্তরাষ্ট্র

গাজায় বিমান পথে সাহায্য পাঠাবে যুক্তরাষ্ট্র - সংগৃহীত

স্থল পথে সরবরাহ ক্রমে কঠিন হয়ে পড়ায় ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় বিমান পথে সাহায্য পাঠানোর কথা বিবেচনা করছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

বুধবার মার্কিন এক কর্মকর্তা বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে এ কথা জানান।

এ সংক্রান্ত প্রথম প্রতিবেদন প্রকাশ করে অ্যাক্সিওস নিউজ সাইট। তারা জানায়, যুক্তরাষ্ট্র গাজা উপত্যকায় বিমান পথে মানবিক সহায়তার সামগ্রী পাঠানোর বিষয়টি বিবেচনা করেছে।

মার্কিন কর্মকর্তাদের উদ্ধৃতি দিয়ে নিউজ সাইটটি জানিয়েছে, এই ধরনের পদক্ষেপ বিশেষভাবে কার্যকর হবে না। কেননা বিপুল পরিমাণ সাহায্য শুধুমাত্র স্থলপথে স্থানান্তরিত করা যায়।

মার্কিন এক কর্মকর্তা বলেন, ‘পরিস্থিতি সত্যিই খারাপ। আমরা ট্রাকে করে পর্যাপ্ত সাহায্য পাঠাতে পারি না। তাই আমাদের এয়ারড্রপের মতো ব্যবস্থা দরকার।’

এদিকে, গাজা উপত্যকায় বিমান থেকে মানবিক সহায়তার সামগ্রী ফেলার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন কানাডার আন্তর্জাতিক উন্নয়ন মন্ত্রী আহমেদ হুসেন।

তিনি বলেছেন, তারা জর্ডানের মতো সমমনা দেশকে সাথে নিয়ে গাজায় আকাশ থেকে ত্রাণসামগ্রী ফেলতে চায়।

গত সপ্তাহে মিসর ও জর্ডান সফর করে হুসেন বলেন, রাফাহ সীমান্তে ত্রাণবাহী ট্রাকগুলো ইসরাইলি বাহিনী পরিদর্শনের নাম অতিরিক্ত সময় আটকে রাখে। এর ফলে গাজায় প্রয়োজনের কাছাকাছিও সহায়তা প্রবেশ করছে না।

ইসরাইলের স্থল আক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকে গাজায় সাহায্যের জন্য ১০ কোটি কানাডিয়ান ডলার (প্রায় সাত কোটি ৪০ লাখ মার্কিন ডলার) সহায়তা দিয়েছে অটোয়া। দেশটি শুধু জানুয়ারিতেই দিয়েছে চার কোটি কানাডিয়ান ডলার (প্রায় তিন কোটি মার্কিন ডলার)।

মন্ত্রী আহমেদ হুসেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি ওই অঞ্চল থেকে ফিরে এসেছি এবং কানাডার সহায়তা পার্থক্য তৈরি করেছে।’
সূত্র : টাইমস অব ইসরাইল এবং আল জাজিরা


আরো সংবাদ



premium cement