১৬ জুন ২০২৪
`

হরতালে ঢাকার আদালত চত্বরে ককটেল বিস্ফোরণ : ১৯ গাড়িতে আগুন

-


বিএনপি ও জামায়াতে ইসলামীসহ সমমনা বিরোধী দলগুলোর ডাকা ৪৮ ঘণ্টা হরতালের দ্বিতীয় দিন গতকাল সোমবার রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে যানবাহনে অগ্নিসংযোগ ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এ ছাড়া বিক্ষোভ, পিকেটিং ও সড়ক অবরোধ করেন দলগুলোর নেতাকর্মীরা।
রাজধানী ঢাকায় গতকাল তিনটি বাসে অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। হরতাল চলাকালে মহানগর দায়রা আদালতের চত্বরে ককটেল বিস্ফোরিত হয়েছে। এ ছাড়া চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে পাশাপাশি দাঁড়িয়ে থাকা তিনটি বাসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। ভোরে মহাসড়কের সাতকানিয়ার মাদারবাড়ি মডেল মসজিদ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
অপর দিকে সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে গত রোববার মধ্যরাতে গমবোঝাই একটি ট্রাকে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। উপজেলার মফিজ মোড়ে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে। এ দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পাশে নিজস্ব ডিপোতে পার্ক করে রাখা তিনটি বাসে অগ্নিসংযোগ করা হয়। গতকাল ভোর ৪টায় কেঁওচিয়ায় মডেল মসজিদের সামনে এ ঘটনা ঘটে।
পাঁচ দফা অবরোধের পর জাতীয় সংসদ নির্বাচনের একতরফা তফসিল ঘোষণার প্রতিবাদে সারা দেশে গত রোববার থেকে শুরু হয়েছে বিএনপি ও জামায়াতে ইসলামীর ৪৮ ঘণ্টার হরতাল। আজ মঙ্গলবার সকাল ৬টা পর্যন্ত হরতাল চলবে।

মহানগর দায়রা জজ আদালতের সামনে ককটেল বিস্ফোরণ : হরতাল চলাকালে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের সামনে ককটেল বিস্ফোরণ হয়েছে। গতকাল বিকেল ৩টা ৫৯ মিনিটে এ ঘটনা ঘটে।
পুলিশ জানায়, কে বা কারা আদালত চত্বরে ককটেল ছুড়ে মারে। সেটি বিস্ফোরিত হয়েছে। তবে এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।
ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সংশ্লিষ্ট আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর তাপস কুমার পাল সাংবাদিকদের বলেন, আমার ঠিক পেছনেই কয়েক গজ দূরে বিকট শব্দে ককটেলের বিস্ফোরণ হয়। এটা আসলে বিচার বিভাগকে কলঙ্কিত করার জন্য কোর্টের আঙিনায় এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে। যারাই এ ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের অবশ্যই আইন প্রয়োগকারী সংস্থা বিচারের আওতায় নিয়ে আসবে।
রাজধানীতে বাসে আগুন : রাজধানীর মিরপুর-১০ নম্বর এলাকায় একটি বিআরটিসি বাসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। ফায়ার সার্ভিসের দু’টি ইউনিট আগুন নেভায়। গতকাল বেলা ২টা ৩৫ মিনিটে বাসে আগুন দেয়ার তথ্য পায় ফায়ার সার্ভিস।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের মিডিয়া সেলের কর্মকর্তা তালহা বিন জসিম বলেন, বিআরটিসির একটি দোতলা বাসে আগুন দেয়া হয়। পরে আমাদের দু’টি ইউনিট সেখানে যায় এবং বাসটির আগুন নির্বাপণ করে।
এ দিকে হরতালের মধ্যে রাজধানীর মতিঝিলে সোনালী ব্যাংকের কর্মী পরিবহনের একটি বাসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল বিকেলে বাসটিতে আগুন দেয়া হয়। পুলিশ বলছে, দাঁড়িয়ে থাকা বাসে হঠাৎ আগুন দেখে স্থানীয় লোকজন ফায়ার সার্ভিসে ফোন করেন। ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা ঘটনাস্থলে আসার আগেই স্থানীয় লোকজন আগুন নিভিয়ে ফেলেন।
পুলিশের মতিঝিল বিভাগের উপকমিশনার হায়াতুল ইসলাম খান বলেন, মতিঝিলের মধুমিতা সিনেমা হলের পেছনের গলিতে দাঁড়িয়ে থাকা বাসটিতে আগুন দেওয়া হয়। আগুনে বাসের পেছনের দিকে সামান্য ক্ষতি হয়েছে। কেউ হতাহত হয়নি।

অপর দিকে বিকেলে রাজধানীর পল্টন এলাকায় একটি বাসে অগ্নিসংযোগ করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।
হরতালে ৩৬ ঘণ্টায় ট্রেনসহ ১৯ গাড়িতে আগুন : ৪৮ ঘণ্টার হরতালের ৩৬ ঘণ্টায় ১৯টি যানবাহনে অগ্নিকাণ্ড ঘটে। গত রোববার সকাল ৬টা থেকে গতকাল সোমবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এসব গাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা হয়। ফায়ার সার্ভিসের মিডিয়া সেলের কর্মকর্তা তালহা বিন জসিম এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ৪৮ ঘণ্টার হরতালের ৩৬ ঘণ্টায় ১৭টি আগুন লাগার খবর পায় ফায়ার সার্ভিস। এ ঘটনায় ১৯টি যানবাহনে আগুনের ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে ঢাকা শহরে চারটি, ঢাকা বিভাগে একটি, রাজশাহী বিভাগের নাটোর, বগুড়া ও সিরাজগঞ্জে সাতটি, চট্টগ্রাম বিভাগের ফেনী, মিরসরাই ও সাতকানিয়ায় চারটি, ময়মনসিংহ বিভাগের জামালপুরে একটি ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনায় ১০টি বাস, একটি কাভার্ডভ্যান, ছয়টি ট্রাক, একটি সিএনজি অটোরিকশা ও একটি ট্রেন পুড়ে যায়। আগুন নির্বাপণে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ৩১ ইউনিট ও ১৫৬ জন জনবল কাজ করে।
যাত্রীসঙ্কটে দূরপাল্লার বাস চলেনি : হরতালের দ্বিতীয় দিনও রাজধানীতে সকাল থেকে গণপরিবহন কম চলাচল করেছে। যাত্রীসঙ্কটে ছাড়েনি দূরপাল্লার বাসও। গতকাল রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে ঘুরে এই চিত্র দেখা গেছে। পরিবহন সংশ্লিষ্টরা জানায়, হরতালে রাতে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় বাস ট্রেনসহ একাধিক যানবাহনে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ কারণে ঢাকায় গণপরিবহন কম চলাচল করছে। এতে দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।

বগুড়ায় রাস্তায় ব্যারিকেড, গাড়ি ভাঙচুর
বগুড়া অফিস জানায়, তফসিল বাতিল ও সরকারের পদত্যাগ দাবিতে বিএনপি ও জামায়াতে ইসলামীসহ সমমনা বিরোধী দলগুলোর ডাকে ৪৮ ঘণ্টা হরতালের দ্বিতীয় দিন সোমবার বগুড়ায় মহাসড়কে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে ব্যারিকেড দিয়ে হরতাল পালিত হয়েছে। এ সময় বিএনপি ও জামায়াতে ইসলামী রাস্তায় রাস্তায় পিকেটিংসহ মিছিল-সমাবেশ করেছে। বগুড়া পৌর সভার ১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক আহ্বায়ক শাহ মেহেদী হাসান হিমুর ওয়ার্ড কাউন্সিলর অফিসে গত রোববার রাত সাড়ে ১০টায় কে বা কারা দু’দফা হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে। অপর দিকে রোববার রাতে জেলার নন্দীগ্রাম উপজেলার রনবাঘা এলাকায় খড়বোঝাই ভটভটিতে এবং ইউসুফপুরে রাস্তায় খালি ট্রাকে পেট্রল দিয়ে কে বা কারা আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা আগুন নিভিয়ে ফেলে।
বিএনপি : জেলা বিএনপির উদ্যোগে শহরের মাটিডালী টু বনানী রোডে দু’টি মিছিল হয়েছে। জেলা সভাপতি ও পৌর মেয়র রেজাউল করিম বাদশার নেতৃত্বে শহরের ফুলবাড়ী এলাকায় সকালে হরতালের সমর্থনে মিছিল বের হয়। এতে সাবেক জেলা সভাপতি ভিপি সাইফুল ইসলাম, লাভলী রহমান, পৌর কাউন্সিলর মেহেদী হাসান হিমু, ইকবাল হোসেন রাজু ও তৌহিদুল আলম বিটু, মাহিদুল ইসলাম পফুর, যুবদলের জাহাঙ্গীর আলম অংশ নেন। অপর দিকে মোহাম্মাদ আলী হাসপাতালের সামনে একটি মিছিল হয়েছে। এত চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু, জেলা সাধারণ সম্পাদক আলী আজগর হেনা, বিএনপি নেতা সহিদ উন নবী সালাম ও সোলায়মান আলী উপস্থিত ছিলেন।

জামায়াত : গতকাল সকাল ৮টার দিকে বগুড়া শহরের সাতমাথা টু বনানী রোডের কানছগাড়ী এলাকায় টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে ও রাস্তায় পুলিশের রোড ডিভাইডার পোল দিয়ে ব্যারিকেড সৃষ্টি করে জামায়াতের কর্মীরা। হরতালের সমর্থনে সেখান থেকে জামায়াতে ইসলামী বিক্ষোভ মিছিল বের করে। সেখান থেকে মিছিলটি বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে গিয়ে শেষ হয়। এ ছাড়াও শহরের বিভিন্ন এলাকায় জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা হরতালের সমর্থনে মিছিল ও পিকেটিং করেন। সকাল ৭টার দিকে জামায়াতে ইসলামী বগুড়া শহর শাখার উদ্যোগে শহরের ব্যস্ততম নামাজগড় মোড় থেকে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে নামাজগড় গোরস্থান রোড দিয়ে নুরানী মোড়ে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে জামায়াত-শিবিরের কয়েক শ’ নেতাকর্মী অংশ নেন।
বগুড়া জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (পদোন্নতিপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার) স্নিগ্ধ আখতার বলেন, ‘জামায়াতের নেতাকর্মীরা টায়ার জ্বালিয়ে সড়ক ব্লক করার চেষ্টা করেছিল। পরে পুলিশ পৌঁছালে তারা পালিয়ে যায়।

চট্টগ্রামে জামায়াতের বিক্ষোভ ও পিকেটিং
চট্টগ্রাম ব্যুরো জানান, আজ্ঞাবহ নির্বাচন কমিশন কর্তৃক ঘোষিত নীলনকশার তফসিল বাতিল এবং কেয়ারটেকার সরকার প্রতিষ্ঠার দাবিতে ১৯ ও ২০ নভেম্বর ৪৮ ঘণ্টার হরতালের দ্বিতীয় দিন চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করেছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী চট্টগ্রাম মহানগরী।
কর্মসূচির আওতায় নগরীর পাহাড়তলী, চকবাজারসহ বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ডে পিকেটিং ও বিক্ষোভ মিছিল করে এই কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। এতে থানা ও ওয়ার্ড নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।
বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশের নির্বাচন একটি জাতীয় উৎসব ছিল। সব দলের অংশগ্রহণে সারা দেশে একটি উৎসবের আমেজ বিরাজ করত।
সাতকানিয়া (চট্টগ্র্রাম) সংবাদদাতা জানান, চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় পার্কিং করে দাঁড়িয়ে থাকা তিনটি যাত্রীবাহী বাসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল ভোরে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের সাতকানিয়া-রাস্তারমাথা মডেল মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সাতকানিয়া ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে বাস তিনটির আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুন লাগানো বাসের মধ্যে দু’টি শ্যামলী ও একটি হানিফ পরিবহনের বাস।
ময়মনসিংহ অফিস জানায়, ময়মনসিংহে ৪৮ ঘণ্টা হরতালের সমর্থনে মিছিল করেছে বিএনপি ও যুবদল। গতকাল দুপুরে ময়মনসিংহ দক্ষিণ জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক জাকির হোসেন বাবলু ও দক্ষিণ জেলা যুবদলের সভাপতি রোকনুজ্জামান সরকার রোকনের নেতৃত্বে বিশাল মিছিল ফুলবাড়িয়ার পুরাতন বাসস্ট্যান্ট এলাকা থেকে শুরু হয়।
কুবি সংবাদদাতা জানান, গতকাল বিক্ষোভ মিছিল করেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। কুবি ছাত্রদলের সদস্যসচিব মোস্তাফিজুর রহমান শুভর নেতৃত্বে এ বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

 


আরো সংবাদ



premium cement

সকল