২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩০, ১৪ জিলহজ ১৪৪৫
`

তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন সংশোধনের ব্যাপারে ইতিবাচক মত খাদ্যমন্ত্রীর

স্বাস্থ্য সুরক্ষার পরিচালক অধ্যাপক ডা: মো: রফিকুল ইসলাম খাদ্যমন্ত্রী সাধন মজুমদারের হাতে প্রতিবেদন তুলে দিচ্ছেন : নয়া দিগন্ত -

তামাক উৎপাদনের পরিবর্তে খাদ্য উৎপাদনকে গুরুত্ব দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী, ২০৪০ সালের মধ্যে তামাকমুক্ত দেশ গঠনে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন সংশোধনের ব্যাপারে ইতিবাচক মত প্রকাশ করেছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার, এমপি । মন্ত্রী বলেন, তামাক চাষ দেশের স্বয়ংসম্পূর্ণ খাদ্য উৎপাদনের অন্যতম চ্যালেঞ্জ। আইন সংশোধনের পাশাপাশি তামাক নিয়ন্ত্রণে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। তামাকের ব্যবহার টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে অন্যতম একটি চ্যালেঞ্জ। মঙ্গলবার ‘বাংলাদেশ পার্লামেন্টারি ফোরাম ফর হেলথ অ্যান্ড ওয়েলবিং’ এবং স্বাস্থ্য সুরক্ষা ফাউন্ডেশনের একটি প্রতিনিধিদল সাধন চন্দ্র মজুমদারের সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি, তামাক আইন সংশোধনের বিষয়ে সংসদ সদস্যদের গৃহীত পদক্ষেপের প্রশংসা করেন। স্বাস্থ্য সুরক্ষা ফাউন্ডেশনের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো: রফিকুল ইসলাম, মাননীয় মন্ত্রী, খাদ্য মন্ত্রণালয়, সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপির কাছে বিভিন্ন কার্যক্রমের প্রতিবেদন হস্তান্তর করেন, যা তামাকমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনে সংসদ সদস্যদের গৃহীত পদক্ষেপের রূপরেখা তুলে ধরে। এ ছাড়াও জনস্বাস্থ্য রক্ষায় তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন সংশোধনের জন্য স্বাস্থ্যমন্ত্রী বরাবর পাঠানো ১৫২ জন সংসদ সদস্যের স্বাক্ষরিত আরেকটি সুপারিশের চিঠি খাদ্যমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করা হয়।
‘বাংলাদেশ পার্লামেন্টারি ফোরাম ফর হেলথ অ্যান্ড ওয়েলবিং’ এর প্রতিনিধিদল তামাক আইন নিয়ন্ত্রণের চূড়ান্ত খসড়াটি কেবিনেট ডিভিশন থেকে সংসদে উত্থাপন ও পাসের বিষয়ে মন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেন। মন্ত্রী এ বিষয়ে তার পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস দেন। উল্লেখ্য, দেশের প্রায় ৪ কোটির কাছাকাছি মানুষ জনস্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর তামাক ব্যবহার করে। বছরে দেশের প্রায় এক লাখ ৬১ হাজার মানুষ মারা যায় এই তামাকজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে। তামাক নিয়ন্ত্রণে ছয়টি বিষয় মাথায় রেখে ধূমপান ও তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন সংশোধনের প্রস্তাবিত খসড়ায় রয়েছে, পাবলিক প্লেসে ধূমপান নিষিদ্ধ করা, বিক্রয়স্থলে তামাক দ্রব্য প্রদর্শন নিষিদ্ধ করা, তামাক কোম্পানির সিএসআর কার্যক্রম নিষিদ্ধ করা, খুচরা বিক্রি বন্ধ করা, সচিত্র স্বাস্থ্য সতর্কতার ওপর জোর দেয়া এবং ই-সিগারেট এবং হিটেড টোব্যাকো প্রোডাক্টস (এইচটিপি) নিষিদ্ধ করা। বিজ্ঞপ্তি।


আরো সংবাদ



premium cement