৩০ নভেম্বর ২০২৩, ১৫ অগ্রহায়ন ১৪৩০, ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৫ হিজরি
`

চট্টগ্রামে বিজিএমইএর উদ্যোগে গ্যাস বিদ্যুৎ ও অগ্নি নিরাপত্তা সচেতনতামূলক সভা

-


গ্যাস, বিদ্যুৎ ও অগ্নি নিরাপত্তাবিষয়ক সচেতনতামূলক এক সভা গত বৃস্পতিবার বিকেলে চট্টগ্রামের বিজিএমইএ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। বিজিএমইএর প্রথম সহসভাপতি সৈয়দ নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান ছিলেন- চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স, চট্টগ্রামের উপপরিচালক মো: আবদুল হালিম।
অনুষ্ঠানে- বিজিএমইএর সহসভাপতি রাকিবুল আলম চৌধুরী, পরিচালক এমডি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী, এ এম শফিউল করিম (খোকন), মো: হাসান (জ্যাকি), মিরাজ-ই-মোস্তফা (কায়সার), সাবেক পরিচালক হেলাল উদ্দিন চৌধুরী, লিয়াকত আলী চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
সভায় বিজিএমইএর প্রথম সহসভাপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম বলেন, অধিক কার্বন নিঃসরণের ফলে বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে তাপমাত্রা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। তা রোধকল্পে বিজিএমইএ পরিবেশ ও মানুষের কল্যানে ও পোশাক শিল্প কারখানায় অনাকাফক্সক্ষত অগ্নি দুর্ঘটনা রোধকল্পে গ্যাস, বিদ্যুৎ ও অগ্নি নিরাপত্তাবিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধি করার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। বর্তমান অর্থনৈতিক মন্দাবস্থায় পোশাক শিল্পের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য কস্ট অব ডুয়িং বিজনেস কমানোর লক্ষ্যে গ্যাস, বিদ্যুতের মূল্য সমন্বয়, কাস্টমস, বন্ড, আয়কর, ভ্যাট, ব্যাংকসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে কার্যক্রম সহজীকরণপূর্বক পোশাক শিল্পকে যাবতীয় নীতিগত সহযোগিতা প্রদানের জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানান। চট্টগ্রামকে প্রকৃত অর্থে বাণিজ্যিক রাজধানী ও আঞ্চলিক ব্যবসায়িক হাব হিসেবে পরিণত করার লক্ষ্যে বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য বে-টার্মিনালের নির্মাণকাজ দ্রুত শুরু করা এবং চট্টগ্রামের গ্যাস সরবরাহের ক্ষেত্রে জাতীয় গ্রিডের সাথে সংযুক্ত রাখার আহ্বান জানান। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক বলেন, বাংলাদেশের পোশাক শিল্প নিরাপদ পরিবেশবান্ধব ও কমপ্লায়েন্ট হওয়ার কারণে বিশ্ব বাজারে প্রশংসিত হচ্ছে; যা দেশের অন্যান্য শিল্পকারখানার জন্য অনুকরণীয়। তিনি পোশাক শিল্প কারখানায় অনাকাক্সিক্ষত অগ্নি দুর্ঘটনা রোধকল্পে গ্যাস, বিদ্যুৎ ও অগ্নি নিরাপত্তাবিষয়ক কার্যক্রম মালিক-শ্রমিক ঐক্যবদ্ধভাবে পারস্পরিক সহযোগিতার মাধ্যমে পরিচালনার উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি চট্টগ্রামে পরিবেশ বান্ধব গ্রিন কারখানা স্থাপনের লক্ষ্যে সীতাকুণ্ডের জঙ্গল সলিমপুর এবং দক্ষিণ চট্টগ্রামে প্রয়োজনীয় ভূমি বরাদ্দ এবং পোশাক শিল্প শ্রমিকের সন্তানদের জন্য অবৈতনিক বিজিএমইএ স্কুল ও কারিগরি শিক্ষা ভবন স্থাপনের জন্য চট্টগ্রাম শহরের মধ্যে সরকারি মালিকানাধীন ভূমি বরাদ্দের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে মর্মে আশ্বাস প্রদান করেন। বিশেষ অতিথি মো: আবদুল হালিম বলেন, বিজিএমইএ এবং ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের যৌথ উদ্যোগে অনাকাক্সিক্ষত দুর্ঘটনা রোধকল্পে পোশাক শিল্প কারখানাগুলোতে নিয়মিতভাবে অগ্নি মহড়া কার্যক্রম মনিটরিং করা হচ্ছে। ফলে পোশাক শিল্প কারখানায় অগ্নি দুর্ঘটনা বর্তমানে নেই বললেই চলে, এর জন্য তিনি পোশাক কারখানাগুরোর মালিকসহ বিজিএমইএকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।


আরো সংবাদ



premium cement