২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

খালেদা জিয়ার কিছু হলে পরিণতি ভয়াবহ হবে : খন্দকার মাহবুব

বিএনপি
অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন - ফাইল ছবি

বিএনপির চেয়ারপারসন কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়ার কিছু হলে সরকারের ভয়াবহ পরিণতি হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন দলটির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন।

তিনি বলেন, কারাগারে খালেদা জিয়া খুবই অসুস্থ। সরকার তাকে চিকিৎসা দিচ্ছে না। আমি বলব- অবিলম্বে তাকে মুক্তি দিন এবং সুচিকিৎসার ব্যবস্থা নিন। নচেৎ তার কিছু হলে সব দায়ভার আপনাদেরই নিতে হবে এবং ভয়াবহ পরিণতি ভোগ করতে হবে।

আজ শুক্রবার সকালে এক সভায় তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব বলেন।

জাতীয় প্রেসক্লাবের তৃতীয় তলার কনফারেন্স লাউঞ্জে ‘রাষ্ট্রীয় ষড়যন্ত্রের কবলে খালেদা জিয়া : আরেকটি ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের প্রতিধ্বনি’ শীর্ষক এই সভার আয়োজন করে চেতনায় বাংলাদেশ নামের একটি সংগঠন। সংগঠনের সভাপতি ও দোহার উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান শামীমা রহিমের সভাপতিত্বে এতে অন্যদের মধ্যে বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার, নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক কর্নেল (অব:) আনোয়ারুল আজিম, সদস্য ইসমাঈল হোসেন বেঙ্গল, বেলায়েত হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, আসন্ন একাদশ জাতীয় নির্বাচনের আগেই সংসদ ভেঙ্গে দিতে হবে। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে যাতে মানুষ স্বচ্ছভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে সে ব্যবস্থা নিতে হবে।

তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, এই সরকারের কাছে অনুনয় বিনয় করে কিছু হবে না। সময় ঘনিয়ে এসেছে এবার জনগণের বিস্ফোরণে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে সরকারকে বাধ্য করা হবে। জনগণ এবার ফাঁকা মাঠে গোল দিতে দিবে না। তারা লাল কার্ড দেখিয়ে মাঠ থেকে বের করে দিবে।

প্রবীণ এই আইনজীবী বলেন, কারাগারে বন্দি খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ। ঠিকমতো চলাফেরা করতে পারেন না। আমি সরকারকে বলব- অবিলম্বে তাকে মুক্তি দিয়ে সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করুন।

সভাপতির বক্তব্যে শামীমা রহিম বলেন, এই অবৈধ সরকার অন্যায়ভাবে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে বন্দি রেখেছে। আমাদের দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধেও মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়েছে। আমি মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাই এবং অবিলম্বে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করছি।


আরো সংবাদ