০৪ মার্চ ২০২১
`

বাড়িওয়ালা ঘরে তালা দেয়ায় চিকিৎসা না পেয়ে শিশুর মৃত্যু, মালিকসহ ২ জনের বিরুদ্ধে মামলা

বাড়িওয়ালা ঘরে তালা দেয়ায় চিকিৎসা না পেয়ে শিশুর মৃত্যু, মালিকসহ ২ জনের বিরুদ্ধে মামলা - ছবি : সংগৃহীত

খুলনায় ঘর ভাড়ার অগ্রিম টাকা না পেয়ে ভাড়াটিয়া পরিবারকে তালাবদ্ধ করে রাখায় চিকিৎসা না পেয়ে শিশু মৃত্যুর ঘটনায় সোমবার দু’জনকে আসামি করে আদালতে মামলা দায়ের হয়েছে। বিচারক মামলাটি গ্রহণ করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) ঘটনার তদন্তের আদেশ দিয়েছেন। খুলনা মহানগরীর রিয়াবাজার এলাকায় একতলা বাড়িতে পাঁচ দিন ধরে ভাড়াটে তামান্নাসহ তার শিশুকে তালাবদ্ধ অবস্থায় রাখা হয়েছিল বলে জানা গেছে।

ওই বাড়ির মালিক বিদেশে অবস্থানরত নুর ইসলাম এবং তার বাবা নওশের আলীকে অভিযুক্ত করে খুলনা চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের আমলি আদালতে মামলা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার খুলনা জেলার কো-অর্ডিনেটর অ্যাডভোকেট মোমিনুল ইসলাম।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০২০ সালে ডিসেম্বর মাসে কাঠের মিস্ত্রী ইমদাদুল ইসলাম ও তার স্ত্রী মাসিক চার হাজার টাকা চুক্তিতে খুলনা মহানগরীর রিয়াবাজার এলাকায় একতলা বাড়ির দু’টি রুম ভাড়া নিয়েছিলেন। জানুয়ারি মাসের ভাড়া মাসের শুরুতে দিতে না পারায় গত ৬ জানুয়ারি থেকে ঘরে শিশু সন্তানসহ তামান্নাকে তালাবন্ধ করে রাখে বাড়িওয়ালা। তালাবদ্ধ অবস্থায় গত ১১ জানুয়ারি দুপুরে তামান্না বাড়ির ছাদে কাপড় নাড়তে যান। শিশুটি খেলতে গিয়ে হঠাৎ বালতির পানির মধ্যে উল্টে পড়ে যায়। ঘরে এসে তিনি শিশুটিকে উদ্ধার করলেও বাইরে থেকে দরজা তালাবদ্ধ থাকায় চিকিৎসকের কাছে নিতে পারেননি। ওই অবস্থায় শিশুটির মৃত্যু হয়। এ ব্যাপারে মামলা করতে গেলে লবণচরা থানা শুধু অপমৃত্যু মামলা নেয়। পরে কোর্টে মামলা দায়েরের সিদ্ধান্ত নেয় শিশুটির পরিবার।

মূলত মালিক নওশের আলীর নির্দেশেই ঘরে তালা দেয়া হয়েছিল বলে জানা গেছে। মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ড: মো: আতিকুস সামাদ মামলাটি আমলে নিয়ে পিবিআইকে তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন।



আরো সংবাদ