২০ জানুয়ারি ২০২১
`

ভ্যাকসিনের আগেই ২০ লাখ মৃত্যুর শঙ্কা

-

পুরোপুরি কার্যকর ভ্যাকসিন আসার আগে বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস মহামারীতে ২০ লাখ মানুষের মৃত্যু হতে পারে। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া না হলে এ সংখ্যা আরো বেশি হতে পারে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) কার্যক্রমবিষয়ক প্রধান ডা: মাইক রায়ান এক সংবাদ সম্মেলনে এমন আশঙ্কা প্রকাশ করেছে।
গত কয়েক দিনে ভয়ের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে করোনার ‘সেকেন্ড ওয়েভ’ বা দ্বিতীয় দফা সংক্রমণ। ইউরোপসহ পৃথিবীর অনেক দেশে শীত পড়া শুরু করেছে। সেসব দেশে করোনার সংক্রমণও বেড়ে চলেছে। অনেক দেশ নতুন করে গোটা দেশ লকডাউন করে দেয়ার কথা ভাবছে।
ইউরোপ প্রসঙ্গে ডা: মাইক রায়ান বলছেন, ‘আমরা দেখছি, একটা বিরাট অঞ্চলজুড়ে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। এটি আমাদের দুশ্চিন্তা বাড়িয়ে দিচ্ছে। আমরা দেখতে পাচ্ছি বিশাল অঞ্চলজুড়ে উদ্বেগজনক মাত্রায় সংক্রমণ বাড়ছে। খবর ডেইলি মেইল, এপি, আরব নিউজ, নেপাল টাইমস, আজকাল, সায়েন্টিফিক আমেরিকান, মস্কো টাইমস, সিএনএন, রয়টার্স, এনডিটিভি, বিবিসি, ওয়ার্ল্ডোমিটারস ও এএফপির।
৭ দিনে আক্রান্ত ২২ লাখ মানুষ : গত সাত দিনে বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস সংক্রমণ ২২ লাখ বেড়ে বিশ্বে মোট সংক্রমণ ৩ কোটি ২২ লাখ ছাড়িয়েছে। এ সংক্রমণ হার বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ০.৪ শতাংশ। গত এক সপ্তাহে গুরুতর সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা প্রায় ৫ লাখ হয়েছে। এই রোগীর সংখ্যা সংক্রমিতদের সার্বিক হিসাবের ২৩.৩ শতাংশ। গত ৭ দিনে করোনাজনিত কারণে প্রায় ৩৭ হাজার লোকের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী মোট ৯ লাখ ৮৩ হাজার লোকের মৃত্যু হয়েছে। গত ৭ দিনে চেক রিপাবলিকে সংক্রমণ ৩২ শতাংশ বেড়েছে, ইসরাইলে সংক্রমণ বেড়েছে, আর্জেন্টিনায় ৭৭ হাজার লোক আক্রান্ত হয়েছে, ফ্রান্সে সংক্রমণ বেড়েছে ২০ শতাংশ, যুক্তরাজ্যে সংক্রমণ বেড়েছে ৯.১ শতাংশ।
ঝুঁকি ৫২ শতাংশ কমায় ভিটামিন-ডি : যারা পর্যাপ্ত পরিমাণে এই ভিটামিন গ্রহণ করেন তাদের কোভিড-১৯ সংক্রমণে মৃত্যুর ঝুঁকি ৫২ শতাংশ কম। তেহরানের এক হাসপাতালে চিকিৎসারত দুই শতাধিক কোভিড রোগীর শরীর থেকে নেয়া রক্তের নমুনা পরীক্ষা শেষে এমন সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন বোস্টন ইউনিভার্সিটির ড. মাইকেল হোলিক ও তার দল। আমাদের ইমিউন সিস্টেম অর্থাৎ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে ভিটামিন-ডি। যারা পর্যাপ্ত ভিটামিন-ডি গ্রহণ করেন তাদের করোনাভাইরাসের সংক্রমণ হওয়ার আশঙ্কা ৫৪ শতাংশ কম। যাদের দেহে ভিটামিন-ডি’র ঘাটতি রয়েছে তাদের অসুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি, বিভিন্ন ধরনের জটিলতায় বেশি ভোগেন এবং অনেক ক্ষেত্রেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারাচ্ছেন।
বছরে ১০০ কোটি ডোজ টিকা উৎপাদন চীনের : করোনাভাইরাসের সম্ভাব্য টিকার ১০০ কোটি ডোজ প্রতি বছর উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে চীন। শুক্রবার দেশটির এক স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জানিয়েছে, সরকারের দ্রুত পদক্ষেপের ফলে আগামী বছর ১০০ কোটি ডোজ উৎপাদনের সক্ষমতা অর্জিত হবে। এই লক্ষ্যে নতুন নতুন কারখানা স্থাপন করা হয়েছে। চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের ঝেং জংওয়েই জানান, এই বছরের শেষ দিকে ৬১০ মিলিয়ন ডোজ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা সম্ভব হবে। আগামী বছর আমাদের সক্ষমতা ১০০ কোটি ডোজ ছাড়িয়ে যাবে।
৫৫ দিন পর ইরানে রেকর্ড দুই শতাধিক মৃত্যু : প্রায় ৫৫ দিন পর ইরানে মহামারী নভেল করোনাভাইরাসে এক দিনে রেকর্ড ২০৭ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এর আগে দেশটিতে সর্বশেষ গত ১ আগস্ট ২১৬ জনের প্রাণ কাড়ে করোনা। গত ২৪ ঘণ্টায় ইরানে করোনায় নতুন মারা গেছেন ২০৭ জন। মোট মৃত্যু বেড়ে ২৫ হাজার ২২২ জনে পৌঁছেছে। ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুর নতুন রেকর্ড গত ১ আগস্টের পর সর্বোচ্চ। এক দিনে আরো ৩ হাজার ৫৬৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৪ লাখ ৩৯ হাজার ৮৮২ জন।
আমিরাতে ঘরোয়া অনুষ্ঠােেন নিষেধাজ্ঞা : সংযুক্ত আরব আমিরাতে চলছে দ্বিতীয় দফায় করোনা সংক্রমণ। প্রতিদিন লাফিয়ে বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা। জুনে সংক্রমণ কমে যাওয়ায় জনজীবনে কিছুটা স্বাভাবিক পরিবেশ ফিরে এসেছিল। কিন্তু আমিরাত সরকারের দেয়া বিধিনিষেধ সাধারণ জনগণ শতভাগ না মানায় আবার শনাক্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঘরোয়া অনুষ্ঠান থেকে শুরু করে কোনো প্রকার জনসমাগম করা যাবে না।
স্পেনে করোনা প্রতিরোধে ৫ দফা দাবি : স্পেনের মাদ্রিদে পাঁচ দফা দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করছে বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন ও অভিবাসীরা। দাবিগুলো হলোÑ স্বাস্থ্যসেবা সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া, মেডিক্যালগুলোতে পর্যাপ্ত ডাক্তার নিয়োগ দেয়া, সব প্রবাসী অভিবাসীর জন্য ফ্রি দোভাষীর ব্যবস্থা, বিনামূল্যে সবার জন্য করোনা ঠিকা প্রদানের ব্যবস্থা করা এবং অবৈধ অভিবাসীদের জন্য ফ্রি মেডিক্যাল কার্ড প্রদান করে স্বাস্থ্য সেবা বৃদ্ধি করা।
তিন ঘণ্টায় শেষ করতে হবে ওমরাহ : করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে সৌদি আরব সরকার ওমরাহ পালনের অনুমতি দিলেও সেটি শেষ করতে হবে মাত্র ৩ ঘণ্টায়। দেশটির ওমরাহ ও হজ নিয়ন্ত্রণ কমিটির পক্ষ থেকে এমনটাই জানানো হয়েছে। আগামী ৪ অক্টোবর থেকে ওমরাহ পালন শুরুর হবে। তবে ওমরাহ পালনকারী প্রতিটি দলের জন্য মাত্র তিন ঘণ্টা সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রতি এক হাজার লোক ওমরাহ আদায়ের জন্য তিন ঘণ্টা সময় পাবেন। দ্বিতীয় স্তরে ওমরাহ পালন শুরু হবে আগামী ১৮ অক্টোবর থেকে। ১ নভেম্বর থেকে তৃতীয় স্তরে ওমরাহ হবে।
পর্যটকদের জন্য সীমান্ত খুলছে নেপাল : দীর্ঘ অপেক্ষার পর অবশেষে বিদেশী পর্যটকদের জন্য সীমান্ত খুলে দিচ্ছে নেপাল। প্রায় ছয় মাস বন্ধ রাখার পর নেপাল সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে বিদেশী পর্যটকদের নেপাল ভ্রমণের জন্য অবশ্যই করেনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট সাথে নিতে হবে। পরীক্ষা করাতে হবে নেপালের উদ্দেশে যাত্রার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে। অনুমতি দেয়া হয়েছে এক শহর থেকে অন্য শহরে বাস চলাচল, হোটেল ও রেস্তোরাঁগুলোও খুলে দেয়ার। ট্রেকিং ও পর্বতারোহী গ্রুপ বিদেশী ক্লায়েন্টদের পর্বতারোহণে নিয়ে যেতে পারবে ১৭ অক্টোবর থেকে।
ফ্রান্সে আক্রান্ত পাঁচ লাখ ছাড়াল : ফ্রান্সে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। শুধু শুক্রবারই দেশটিতে নতুন করে ১৫ হাজার ৭৯৭ জনের শরীরে এ ভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে ফ্রান্সে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল পাঁচ লাখ ১৩ হাজার ৩৪। ফ্রান্সে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত পাঁচ লক্ষাধিক মানুষের মধ্যে ৯৪ হাজার ৮৯১ জন সুস্থ হয়ে উঠেছে। মৃত্যু হয়েছে ৩১ হাজার ৬৬১ জনের।
হিমায়িত মাছ-গোশতেও করোনা : চীনে আবারো করোনা সংক্রমণের কারণ হলো ফ্রোজেন ফুড। চীনে নতুন করে আক্রান্ত হলেন শেংডং প্রদেশের কুইংডাও শহরে দুই বন্দরকর্মী। পরীক্ষা করে দেখা গেল, আমদানি করা ফ্রোজেন ফুডেও রয়েছে করোনার জীবাণু। চীনের বন্দরে আসা হিমায়িত সামুদ্রিক মাছ, গোশত ও সেগুলোর কনটেইনারে করোনার জীবাণু মেলায় সম্প্রতি ইকুয়েডর, ব্রাজিল, ইন্দোনেশিয়া থেকে পণ্য আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে বেইজিং। চীনের গবেষকদের দাবি, ফ্রোজেন স্যামন মাছে সাত দিন পর্যন্ত করোনার জীবাণু থাকতে পারে।
আক্রান্ত ৩ কোটি ২৭ লাখ ছাড়াল : বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা তিন কোটি ২৭ লাখ ছাড়িয়েছে। করোনাভাইরাস বৈশ্বিক মহামারীতে এ পর্যন্ত বিশ্বের ২১৫টি দেশ ও অঞ্চল আক্রান্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা তিন কোটি ২৭ লাখ ৫৮ হাজার ৩৪০। এর মধ্যে ৯ লাখ ৯৩ হাজার ৪১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরই মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছে দুই কোটি ৪১ লাখ ৭১ হাজার ৪১৩ জন। এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭২ লাখ ৪৪ হাজার ১৮৪। মৃত্যু হয়েছে দুই লাখ ৮ হাজার ৪৪০ জনের।
ভারতে এক দিনে ১,০৮৯ জনের মৃত্যু : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো এক হাজার ৮৯ জন মারা গেছেন। একই সময়ে ৮৫ হাজার ৩৬২ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এ রোগে মারা গেছেন ৯৩ হাজার ৩৭৯ জন। শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৫৯ লাখ ৩ হাজার ৯৩২ জন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৪৮ লাখ ৪৯ হাজার ৫৮৪ জন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৯৩ হাজার ৪২০ জন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন মহারাষ্ট্রে ৩৪ হাজার ৭৬১ জন, তামিলনাড়ুতে ৯ হাজার ১৪৮ জন, কর্ণাটকে ৮ হাজার ৪১৭ জন, অন্ধ্রপ্রদেশে ৫ হাজার ৬০৬ জন, উত্তরপ্রদেশে ৫ হাজার ৪৫০ জন, দিল্লিতে ৫ হাজার ১৪৭ জন এবং পশ্চিমবঙ্গে ৪ হাজার ৬৬৫ জন।
চীনের টিকার জরুরি ব্যবহারে সমর্থন : জরুরি ভিত্তিতে পরীক্ষামূলক করোনার টিকা ব্যবহারের জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সমর্থন পেয়েছে চীন। শুক্রবার দেশটির ন্যাশনাল হেলথ কমিশনের একজন কর্মকর্তা বলেন, করোনার টিকার জরুরি ব্যবহারের ক্ষেত্রে বিতর্ক থাকলেও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে তারা বোঝাতে পেরেছেন এবং সমর্থনও পেয়েছেন। গত জুলাই মাস থেকে জরুরি ব্যবহার কর্মসূচির আওতায় শত শত মানুষকে টিকা দিচ্ছে চীন। দেশটির সরকার এতে অনুমোদন দিয়েছে।
সুইজারল্যান্ডের দুয়ার বন্ধ ইইউর নাগরিকদের : রোববার সুইস নাগরিকরা ইমিগ্রেশন-বিষয়ক রেফারেন্ডামে ভোট দেবে। এই রেফারেন্ডামের উদ্দেশ্য ইউরোপীয় নাগরিকরা যাতে সুইজারল্যান্ডে ফ্রি মুভমেন্ট করতে না পারে। সহজেই যাতে তারা সেখানে বসবাস এবং চাকরি করতে না পারে। সুইজারল্যান্ড দেশটি ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত নয়। তবে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সাথে তাদের নির্দিষ্ট কিছু চুক্তি রয়েছে, যাতে ইউরোপীয় ইউনিয়নে নাগরিকরা সুইজারল্যান্ডে ফ্রি মুভমেন্ট, বসবাস এবং সেখানে চাকরি করতে পারে। এমনকি চুক্তির অধীনে সুইজারল্যান্ডকে ইইউর একক বাজারে পণ্য ও পরিসেবার অবাধ চলাচলে অংশ নিতে সহায়তা করে। ইইউ হচ্ছে সুইজারল্যান্ডের প্রধান বাণিজ্যিক অংশীদার।
জনসংখ্যার ঘনত্ব শহরকে ঝুঁকিতে ফেলে না : কোভিড-১৯ মহামারীর শুরুর দিকে যুক্তরাষ্ট্রের কিছু নেতা ও পণ্ডিত নিউ ইয়র্ক, মিলান ও উহানে ভাইরাসের বিস্তৃতির হটস্পট হওয়ার জন্য জনসংখ্যার ঘনত্বকে দায়ী করেন। নতুন করোনাভাইরাস শহুরে এলাকা থেকে শুরু করে গ্রামাঞ্চলেও ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির আন ফোরসিথ বলেন, কোনো কোনো সময় ভিড় তৈরি হয় যখন মানুষ কোনো একটি আয়োজনে হাজির হয় যেমন কনসার্ট কিংবা পার্টি। বাস ও যাতায়াতের অন্য ক্ষেত্রগুলোও ভিড়সম্পন্ন হয়ে উঠতে পারে। এমনকি ছোট মফস্বলীয় এলাকায়ও। ভিড়সম্পন্ন প্রতিটি পরিস্থিতি বিস্তৃত ভাইরাল ট্রান্সমিশনের দিকে চালিত করে না। কিন্তু কোনো কোনোটা আবার সুপারস্প্রেডার ইভেন্ট হয়ে উঠতে পারে।
জাদুঘরকে বদলে দেবে কোভিড-১৯ : নতুন জাদুঘরগুলো নিশ্চিতভাবেই কোনো কোনোটা বর্তমান কোভিড-১৯ প্রটোকল মেনে চলবে, যেমন সময় নির্ধারিত টিকিট এবং দর্শনার্থী গণনার মতো বিধিনিষেধ। জাদুঘর স্থপতিরা সব কিছুর ডিজাইন করছেন, বিজ্ঞান জাদুঘর, শিশু জাদুঘর থেকে শুরু করে কলা ও ইতিহাসের প্রতিষ্ঠানগুলোও। যেখানে তাদের কোভিড-১৯-এর পরিস্থিতি ও নিরাপদে এগিয়ে যাওয়ার উপায় নিয়ে ভাবতে হচ্ছে। বেশির ভাগ জাদুঘর অনলাইনে টিকিট নেয়ার ব্যবস্থা করেছে; যা কিনা কোভিড-১৯-পরবর্তী সময়েও অব্যাহত থাকবে।
টিকা না দেয়ার বিচার ইতিহাসই করবে : জাতিসঙ্ঘের সাধারণ পরিষদে ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে পাঠানো বার্তায় অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বলেন, ‘টিকার প্রশ্ন যখন আসে, তখন অস্ট্রেলিয়ার দৃষ্টিভঙ্গি পরিষ্কার। যে-ই আগে টিকা পাক, তা অবশ্যই ভাগাভাগি করতে হবে। যতদূর সম্ভব টিকা ভাগাভাগি করা বৈশ্বিক ও নৈতিক দায়িত্ব। কেউ কেউ স্বল্প মেয়াদে বা মুনাফার সুযোগ দেখতে পারেন। কিন্তু আমি নিশ্চিত করে বলতে পারি, যিনি এ দিকে চিন্তা করবেন, তাকে মনে রাখতে হবেÑ মানবতার স্মৃতি দীর্ঘ দিন বয়ে বেড়াতে হবে এবং ইতিহাস এর বিচার করবে।’
সিঙ্গাপুরে করোনায় আক্রান্ত ৫৭,৬৮৫ : সিঙ্গাপুরে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ২০ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত মোট ৫৭ হাজার ৬৮৫ জন ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছে। সিঙ্গাপুরে এই পর্যন্ত মোট ৫৭ হাজার ৩৪১ জন হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত সিঙ্গাপুরে ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। ২৯ জন এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ২৬৮ জনকে অন্যত্র সরিয়ে চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে।
যুক্তরাষ্ট্রের একটি ভ্যাকসিন ট্রায়ালে সাফল্য : প্রাপ্তবয়স্ক স্বেচ্ছাসেবীদের অংশগ্রহণে কোভিড-১৯-এর চতুর্থ একটি ভ্যাকসিনের তৃতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের মধ্যবর্তী সময়ে সাফল্য পাওয়া গেছে। শুক্রবার প্রকাশিত ফলাফলে একক ডোজ প্রয়োগে মানবদেহে শক্ত প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হওয়ার প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে বলে জানিয়েছে ভ্যাকসিন আবিষ্কারক প্রতিষ্ঠান জেনসেন। নেচার সাময়িকীতে প্রকাশিত প্রি-ক্লিনিক্যাল গবেষণায় দেখা গেছে, জেনসেনের ভ্যাকসিন সার্স-কোভ-২ আক্রমণের ফলে ফুসফুস ও নাকে জীবাণু সংক্রমণের বিরুদ্ধে পুরোপুরি বা প্রায় পুরোপুরি সুরক্ষা দিয়ে থাকে।
দ্বিতীয় দফার সংক্রমণের মাত্রা বেশি : প্রথম দফার চেয়ে দ্বিতীয় দফায় করোনাভাইরাসের কাঠামো বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সাম্প্রতিক নমুনাগুলো আরো বেশিমাত্রার সংক্রামক। বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের হিউস্টন মেথডিস্ট হাসপাতালের গবেষকরা একটি বড় শহরে সংক্রমণের মাত্রার ওপর চালানো এক গবেষণায় এ তথ্য পেয়েছে। হিউস্টন শহরের মহামারীর প্রথম দিকের প্রায় পাঁচ হাজার করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীর জিনোম পরীক্ষা করে এ তথ্য পাওয়া যায়।
করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ইতালিতে : করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ইতালিতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলছে। বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছেন, অক্টোবরে ইতালির অবস্থা আরো খারাপ হতে পারে। কিছু দিন ধরেই ইতালিতে আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। অক্টোবরে আরো ব্যাপকহারে বাড়তে পারা আশঙ্কায় নাগরিকদের মাস্ক ব্যবহারের আহ্বান জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ; অন্যথায় জরিমানা করা হবে বলে সতর্ক করা হয়। ইতালিতে করোনাভাইরাসের আক্রান্তের হার শতকরা ৮৪ দশমিক ২ শতাংশ। বাকিরা অন্য দেশ থেকে আসা।



আরো সংবাদ